কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স হারিয়ে টানা দ্বিতীয় জয় কেড়ে নিল সিলেট সিক্সারস

November 6, 2017 0

গ্যালারী থেকে ডেস্ক:  কী জয়টাই না পেল সিলেট সিক্সার্স। রোববার আইপিএলের তৃতীয় ম্যাচ। প্রতিপক্ষ কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ভিক্টোরিয়ান্স করেছিল ৬ উইকেটে ১৪৫ রান। জবাবে সিলেট সিক্সার্স ১৯.৫ বলে ১৪৮ রান করে জয় তুলে নেয়। তবে শুরু থেকে যেভাবে খেলছিল সিলেট, তাতে করে আরেকটি সহজ জয় পাওয়ার কথা তাদের। কিন্তু না হঠাৎ ঝড়ে সবই যেন এলোমেলো হয়ে গেল।

শেষ ওভারে দরকার ১০ রানের। ক্রিজে লিয়াম প্লাংকেট আর নুরুল হাসান। পারবেন এই রান করতে? দর্শকরা বটেই সাইড লাইনে থাকা খেলোয়াড়রা পর্যন্ত স্থির থাকতে পারছিলেন না।

বিশেষ করে নুরুল হাসান আর নাসির হোসেনের যা হলো, তা ভাষায় প্রকাশ করা সত্যিই কঠিন। নুরুল হাসান তো মাঠেই নেমে পড়তে চাইছিলেন। এমন কঠিন অবস্থায় তাকেই দরকার। পারলে তখনই মাঠে ছুটে যান, ব্যাট হাতে তো আগে থেকেই তৈরি। দলের অন্যরা বেশ কষ্ট করে তাকে বসালো।

আর অধিনায়ক নাসির হোসেন! জয় যে তিনি কত ভালোবাসেন সেটাই আবার ফুটে ওঠল তার চোখে-মুখে-পুরো দেহে। শুভাগত হোমের আউট হওয়া কিংবা তার পর মাঠে নামা নুরুল হাসানের দুই রানের বদলে এক রানে ক্ষান্ত থাকাটা তার সহ্য হচ্ছিল না। একপর্যায় তো তিনি চুলই ছিঁড়ে ফেলতে বসেছিলেন। উত্তেজনার শতভাগ ফুটে ওঠেছিল তার মধ্যে। দলের অধিনায়ক কিংবা অন্য খেলেয়াড়দের মধ্যে এমন যখন অবস্থা, সেই দল তো জয় পাবেই। তারা তা-ই জয় পেয়েছে।

টস করতে দেরি করায় সতর্ক করা হলো নাসিরকে

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) টুয়েন্টি টুয়েন্টি ক্রিকেটের পঞ্চম আসরে উদ্বোধনী ম্যাচে ঢাকা ডায়নামাইটসের মুখোমুখি হয় এবারের আসরের নতুন দল সিলেট সিক্সার্স। ম্যাচের আগে টস করতে মাঠে আসতে ৬ মিনিট দেরি করেন সিলেটের অধিনায়ক নাসির হোসেন। এমনকি দলের খেলোয়াড় তালিকায় দিতেও ব্যর্থ হন নাসির। তাই নাসিরকে সতর্ক করে দেয়ার পাশাপাশি ১টি ডিমেরিট পয়েন্ট দিয়েছে বিপিএল কর্তৃপক্ষ।

বিপিএলের উদ্বোধনী ম্যাচে জয় দিয়ে শুরু করে নাসিরের সিলেট। সাকিবের ঢাকাকে ৯ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে তারা। তবে ম্যাচের আগে টস-এর জন্য ৬ মিনিট দেরি করায় ম্যাচ শেষে আচরণবিধি ভঙ্গের দায়ে পড়েন নাসির।

নাসিরের সঙ্গে অভিযুক্ত হয়েছেন সিলেটের ম্যানেজার জাতীয় দলের সাবেক পেসার হাসিবুল হোসেন শান্তও। দু’জনই তাদের দোষ শিকার করে নেয়ায় আনুষ্ঠানিকভাবে কোন শুনানির প্রয়োজন পড়েনি।

বিপিএলের আচরণ বিধি অনুযায়ী, চারটি ডিমেরিট পয়েন্ট পেলে সেটি পরিণত হবে নিষেধাজ্ঞায়। তখন এক ম্যাচ নিষিদ্ধ করা হবে।