l

সোমবার, ০১ মার্চ ২০২১, ১২:১৫ পূর্বাহ্ন

স্যুট-টাই পরতে অপারগতা ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা জাকারবার্গ

স্যুট-টাই পরতে অপারগতা ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা জাকারবার্গ

এখানে শেয়ার বোতাম

 

 

 

 

 

 

 

 

 

শীর্ষবিন্দু নিউজ ডেস্ক: মার্ক জাকারবার্গ নামটি এখন প্রায় সবার কাছেই পরিচিত। বিশ্বের বৃহৎ সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইট ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা তিনি। ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গ সম্পর্কে সবার ধারণা, তিনি নাকি কখনো স্যুট-টাই পরেন না! তাঁকে মাত্র কয়েকটি ক্ষেত্রেই স্যুট-টাই পরতে দেখা গেছে। প্রযুক্তির উদ্যোগ আর বিনিয়োগের লক্ষ্য নিয়ে সম্প্রতি দক্ষিণ কোরিয়া সফর করছেন তিনি। এর আগে তিনি সাক্ষাত্ করেছেন মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস ও গুগলের প্রতিষ্ঠাতা ল্যারি পেজের সঙ্গেও। দক্ষিণ কোরিয়া সফরে জাকারবার্গের যে বৈশিষ্ট্যটি সবার চোখে পড়েছে তা হচ্ছে, তাঁর পোশাক-পরিচ্ছদ। অর্থাৎ আবারও স্যুট-টাই পরেছেন তিনি!

জাকারবার্গের চ্যালেঞ্জ টাই-স্যুট পরার বিষয়টিকে জাকারবার্গ একরকম চ্যালেঞ্জই মনে করেন। এর আগে তিনি অবশ্য বেশ কয়েকবারই কোট-টাই পরেছিলেন। প্রথমবার ছিল হোয়াইট হাউসে বারাক ওবামার সঙ্গে সাক্ষাতের সময় এবং দ্বিতীয়বার ফ্রান্সের সাবেক প্রেসিডেন্ট নিকোলা সারকোজির সঙ্গে সাক্ষাতের সময়। দীর্ঘদিনের বান্ধবী প্রিসিলা চ্যানকে বিয়ের পর যে ছবি তুলেছিলেন, তাতে তাঁকে স্যুট-টাই পরে থাকতে দেখা গেছে।

তিনি এর আগে সর্বশেষ ২০১২ সালে বিয়ের সময় কোট-টাই পরে ছবি তুলেছিলেন। জাকারবার্গের ট্রেডমার্ক পোশাক হুডি অনেকে তাঁর পোশাক-পরিচ্ছদ পছন্দের বিষয়টিকে বলেন ‘ছেলেমানুষি’। ২০১২ সালে গুরুত্বপূর্ণ উপস্থাপনার সময় পোশাক পরা নিয়ে প্রযুক্তি বিশ্লেষকদের সমালোচনার মুখেও পড়েছিলেন তিনি। তাঁরা পোশাকের জন্য ‘অপরিপক্ব’ বা ‘ছেলেমানুষি’ আচরণ বলেন। ২০১২ সালে ফেসবুকের আইপিও ছাড়ার অনুষ্ঠানে ট্রেডমার্ক পোশাক ‘হুডিযুক্ত ধূসর টি-শার্ট-জিনস-স্নিকার’ পরে হাজির হয়েছিলেন তিনি। গুরুত্বপূর্ণ এই অনুষ্ঠানে জাকারবার্গ পোশাক নির্বাচন নিয়ে প্রযুক্তি-বিশ্বে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েন।

একটি দুর্লভ ঘটনা সবচেয়ে বাজে স্টাইলের পোশাকধারীর খেতাব জুটেছে ফেসবুক প্রতিষ্ঠাতার জন্য। ২০১১ সালে তিনি সবচেয়ে বাজে স্টাইলের পোশাক পরেন বলেও আখ্যা পেয়েছিলেন ‘জিকিউ’ ম্যাগাজিনে। ‘হাফিংটন পোস্ট’ জানিয়েছে, মার্ক জাকারবার্গকে স্যুট-টাই পরতে দেখা একটি দুর্লভ ঘটনাই বটে। জাকারবার্গের স্যুট-টাই পরা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট তাঁর সঙ্গে সাক্ষাতের সময় কৌতুক করে মন্তব্য করেছিলেন, ‘আমিই সে ব্যক্তি, যে মার্ককে জ্যাকেট এবং টাই পরে থাকতে দেখতে পেয়েছি।

চলতি বছরের ১৪ মে জাকারবার্গের ২৯তম জন্মদিনে বার্তা সংস্থা সিএনএনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গের অবস্থা কি এতটাই খারাপ যে একই পোশাক প্রতিদিন পরতে হয় তাঁকে? এ প্রশ্নটির সঙ্গে সবার মনে হয়তো প্রশ্ন জাগে, যখনই জাকারবার্গকে দেখা যায়, তাঁর গায়ে থাকে ধূসর রঙের একটি টি-শার্ট। বাড়িতে কি তাঁর আর কোনো পোশাক নেই? এনবিসিকে দেওয়া টেলিভিশন সাক্ষাত্কারে মার্ক জাকারবার্গ তাঁর পোশাক-রহস্যের বিষয়টি জানিয়ে দেন। জাকারবার্গ বলেন, তাঁর বাড়িতে ধূসর রঙের একই রকম দেখতে টি-শার্ট আছে ২০টি। এগুলো ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে পরেন বলে মনে হয় তিনি প্রতিদিন একই টি-শার্ট পরছেন। তাঁর বাড়িতে নাকি কাপড়চোপড় রাখার বেশি জায়গা নেই! কারণ, স্ত্রী প্রিসিলা চ্যান কাপড়চোপড় রাখার জন্য বেশির ভাগ জায়গা দখল করে রেখেছেন—এমন রসিকতাও করেন ২৮ বছর বয়সী জাকারবার্গ। জাকারবার্গ বলেন, তিনি একই রকম পোশাক প্রতিদিন পরেন। বাড়িতে নিজের কাপড় রাখার জন্য তাঁর সম্বল মাত্র ওই একটি ড্রয়ার! একই পোশাক ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে পরায় কোনো লজ্জা অনুভব করেন না তিনি। আর বিষয়টি কেউ জানলেও তাঁর কোনো অসুবিধা নেই।

মার্ক জাকারবার্গের জানা-অজানা বর্তমানে প্রায় ১১০ কোটি ব্যবহারকারীর ওয়েবসাইট ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা তিনি। বিশ্বের প্রতি সাতজন ব্যক্তির মধ্যে একজন তাঁর সাইটের সঙ্গে জড়িত। বিশ্বের সবচেয়ে কম বয়সী কোটিপতিদের তালিকায় স্থান পেয়েছেন তিনি। বেতন মাত্র এক ডলার মার্ক জাকারবার্গ ফেসবুক থেকে প্রতীকী বেতন নেন এক ডলার মাত্র। ২০১২ সালে ফেসবুক পাবলিক করপোরেশনে পরিণত হওয়ার পর এক ডলার প্রতীকী বেতন নেওয়ার ঘোষণা দেন তিনি। সব নীল তাঁর চোখে ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী জাকারবার্গ বর্ণান্ধ! তিনি কেবল নীল রং দেখতে পান। জাকারবার্গ বলেন, ‘নীল আমার প্রিয়। বহু ভাষাবিদ ইংরেজির পাশাপাশি বেশ কয়েকটি ভাষা জানেন মার্ক জাকারবার্গ। ফ্রেঞ্চ, হিব্রু, লাতিন ও গ্রিক ভাষা জানেন তিনি। বিয়ে করেছেন চীনা বংশোদ্ভূত প্রিসিলা চ্যানকে। তাই ম্যান্ডারিন ভাষা যে শিখেছেন, তা সবাই ধারণা করতেই পারছেন। টিভি-বিমুখ জাকারবার্গের টেলিভিশন দেখতে বিরক্তি লাগে। তাই বাড়িতে কোনো টিভি রাখেননি তিনি। টেলিভিশনও দেখেন না। বিয়েতেও কৃপণতা মার্ক জাকারবার্গ প্রেম করেছেন দীর্ঘদিন ধরে। কিন্তু ১৯০ কোটি মার্কিন ডলারের মালিক হয়েও মাত্র ২৫ হাজার টাকার রুবির আংটি দিয়ে বিয়ে করেছেন তিনি।

খাবার পছন্দের দিক থেকে খুঁতখুঁতে জাকারবার্গ। তিনি নিরামিষ ভোজী। তিনি যে প্রাণী নিজে জবাই করেন কেবল তার মাংস খান। কিন্তু তাঁর ফেসবুক প্রোফাইলে তিনি ম্যাকডোনাল্ডের বার্গারকেও প্রিয় খাবার হিসেবে পছন্দের তালিকায় রেখেছেন। জাকারবার্গের ভবিষ্যত্ যদি কোনো দিন ফেসবুক বন্ধ হয়ে যায় বা ফেসবুক থেকে তাঁকে সরে দাঁড়াতে হয়, তবে কী করবেন জাকারবার্গ? আরেকটি ফেসবুক তিনি তৈরি করবেন না অন্তত এ নিশ্চয়তা আইপিও ছাড়ার সময়ই তিনি দিয়েছেন। তিনি হয়তো বিনিয়োগ বা উদ্যোক্তা হিসেবে কাজ করবেন ভবিষ্যতে।

ফেসবুক নিয়ে চিন্তা-ভাবনা, মিটিং, আলোচনা, যোগাযোগ সব মিলিয়ে আর বাড়তি সময় কোথায় তাঁর। এসব কাজে বেশি সময় দিতেই পোশাক নিয়ে ভাবনা নেই তাঁর। সময় বাঁচাতেই টি-শার্ট তাঁর পছন্দের। রাজনীতিতে ঝোঁক নিউ জার্সির গভর্নরকে অর্থ সাহায্য ও অর্থ সংগ্রহে সহযোগিতা করেছেন তিনি। আর রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের প্রতি তাঁর আগ্রহ রয়েছে। তাহলে কি মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে লড়বেন কোনো একসময়?  মেয়ে পটাতে ফেসবুক? মার্ক জাকারবার্গ ও ফেসবুক তৈরির কাহিনি নিয়ে নির্মিত হয়েছে ‘দ্য সোশ্যাল নেটওয়ার্ক’ নামের একটি চলচ্চিত্র। ছবিতে দেখানো হয়েছে, জোকারবার্গ ফেসবুক তৈরির সময় মেয়ে পটানোর জন্যই তৈরি করেছিলেন সাইটটি। তবে সিবিএস শো ৬০ মিনিটস-এ জাকারবার্গ এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। জাকারবার্গ জানিয়েছেন, ছবিতে দেখানো দৃশ্যগুলো বেশ মজাই লেগেছে। তবে তাতে বাস্তবের সঙ্গে কোনো সংগতি নেই; কেবল জাকারবার্গ প্রায় সব সময় টি-শার্ট পরেন, এ তথ্যটি ছাড়া! তাঁর মতে, ‘দ্য সোশ্যাল নেটওয়ার্ক‘ ছবিটির মূল বিষয়টিই ভুল।

 

 


এখানে শেয়ার বোতাম






পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

All rights reserved © 2021 shirshobindu.com