l

রবিবার, ০৭ মার্চ ২০২১, ০৫:৫৭ অপরাহ্ন

সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন সরকারের প্রতি বার্তা

সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন সরকারের প্রতি বার্তা

এখানে শেয়ার বোতাম

 

 

 

 

 

 

 

 

গাজীপুরসহ সম্প্রতি অনুষ্ঠিত পাঁচটি সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ক্ষমতাসীন সরকারের প্রতি বার্তা বলে মনে করছেন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম বিবিসি বাংলা আয়োজিত সংলাপে অংশ নেওয়া প্যানেল আলোচক ও দর্শকরা। রোববার দুপুরে রাজধানীর বিয়াম মিলনায়তনে ‘বিবিসি বাংলাদেশ সংলাপ’-এ তারা এ মতামত দেন।

উদাহরণ টেনে আলোচকরা বলেন, এই পাঁচটি সিটি দেশের অধিকাংশ অংশের প্রতিনিধিত্ব করে। এছাড়া চারটি সিটি চার বিভাগীয় শহরে অবস্থিত। তাই, এই সিটি কর্পোরেশনের ফলাফল আগামী জাতীয় নির্বাচনের একটা বড় ম্যাসেজ (বার্তা) বহন করছে। আর এখান থেকে শিক্ষা নিতে হবে প্রধান দুই জোটকে। বিশেষ করে ক্ষমতাসীন ১৪ দলীয় জোটকে।

বিবিসি বাংলার সংবাদদাতা আকবর হোসেনের সঞ্চালনায় প্যানেল আলোচক ছিলেন- নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান, আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থা অ্যাকশন এইডের নির্বাহী পরিচালক ফারাহ কবীর, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় টেলিভিশন ও চলচ্চিত্র বিভাগের অধ্যাপক শফিউল আলম ভূঁইয়া। পাঁচটি সিটি নির্বাচন ক্ষমতাসীন সরকারের পরাজয়ের ইঙ্গিত বহন করে কিনা শাহীন আহমেদের প্রশ্নের জবাবে নৌমন্ত্রী বলেন, রাজনীতির মাঠে জয়-পরাজয় আছেই। এটাকে আমি পরাজয় বলবো না। কারণ, জয়-পরাজয় আল্লাহ ও জনগণের কাছে। তবে সরকারের জন্য বড় একটা সতর্ক বার্তা।

এ নির্বাচনে পরাজয়ে পর সরকার উদ্বিগ্ন কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, সেভাবে নয়। তবে এখান থেকে আমাদের ভুলগুলো শোধরানোর একটা সুযোগ তৈরি হয়েছে। আব্দুল্লাহ আল নোমান বলেন, “অবশ্যই সরকারের পরাজয় হয়েছে। এটাকে আর স্থানীয় নির্বাচন বলার কোনো অবকাশ থাকে না। কারণ, প্রত্যেক নির্বাচনে ভোটাররা স্থানীয় বিষয়গুলো বাদ দিয়ে জাতীয় ইস্যুকে সামনে এনে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছে। সরকারের সাড়ে চার বছরের অপকর্মের বিরুদ্ধে রায় দিয়েছে। এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক শফিউল আলম বলেন, “এই ফল সরকারের জনপ্রিয়তার ধস বলবো না। জনগণ সরকারকে বুঝাতে চেয়েছে, তোমাদের কর্মকাণ্ডে আমরা বিরক্ত। এখনই সংশোধন করো, না হয় জাতীয় নির্বাচনে একই শিক্ষা দেবো। তবে সরকারের এখনও সংশোধন করার সুযোগ আছে বলে মত দেন তিনি।

তিনি বলেন, সরকারের যে সাফল্যগুলো আছে, তা সঠিকভাবে জনগণের সামনে তুলে ধরতে ব্যর্থ হয়েছে। ফারাহ কবীর বলেন, ভোটাররা আগের চেয়ে অনেক বেশি সচেতন। প্রার্থীদের দক্ষতা ও যোগ্যতার পাশাপাশি তারা জাতীয় ইস্যুগুলোতে প্রাধান্য দিয়েছেন। পাঁচটি সিটিতে ২০ লাখ ভোটারদের দিয়ে জাতীয় নির্বাচনে ৮ কোটি ভোটারদের সঙ্গে তুলনা করা যাবে কি একজন দর্শকের এমন প্রশ্নে জবাবে আব্দুল্লাহ আল নোমান বলেন, এই পাঁচটি সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন দেশের পাঁচটি বড় বিভাগের প্রতিনিধিত্ব করছে। এছাড়া এখানকার ভোটাররা সবাই সচেতন। তারা দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে এসে এখানে বসবাস করেন। তারাই কিন্তু একটা পরিবারে বা কখনও একটি গ্রামের প্রতিনিধিত্ব করেন। সুতরাং এই ভোটার জাতীয় নির্বাচনের জন্য বড় ফ্যাক্টর।

তিনি আরো বলেন, “সবকটি সিটিতে ভোটাররা জাতীয় ইস্যুকে প্রাধান্য দিয়ে সরকারের বিরুদ্ধে ভোট দিয়েছে। আওয়ামী লীগের দ্বিতীয় দুর্গ গাজীপুরে পতনের পর প্রথম দুর্গ গোপালগঞ্জে পতন হবে কিনা এমন প্রশ্নের জবারে শাজাহান খান বলেন, বিএনপি সরকারে থাকাকালীন সময়ে চট্টগ্রামে বিএনপির মেয়র প্রার্থী হেরেছিল। আমি এটাকে পতন বলবো না। বরং সংশোধন করার সুযোগ।

নৌমন্ত্রী বলেন, অবমূল্যায়ন নয়, হয়ত একটু ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। এটা ঠিক হয়ে যাবে। ফারাহ কবীর বলেন, ভোটের রাজনীতিতে এরশাদের তেমন কোনো প্রভাব নেই। তিনি আর্দশচ্যুত বলেই একেকবার একেক দিকে যায়। লিমনের বিরুদ্ধে সরকার কি নিষ্ঠুরতার প্রমাণ দিচ্ছে, রুপু আক্তারের এমন প্রশ্নের জবাবে শফিউল আলম বলেন, লিমনের ক্ষেত্রে সরকার আরেকটু নমণীয় হতে পারতো। তার বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহার করা উচিত। ফারাহ কবীর বলেন, আইনের কোনো তোয়াক্কা না করে তার বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলার চার্জশিট দেওয়া হয়েছে। মানবাধিকার কমিশন এখানেও বোবা হয়ে গেছে।

নোমান বলেন, জনগণ যে নীরব বিপ্লব ঘটাচ্ছে, তাতে মনে হয়, সরকারের সব দুর্গে পচন ধরেছে। জাতীয় পার্টিকে অবমূল্যায়ন করা কি পরাজয়ের কারণ, সিরাজুল ইসলামের প্রশ্নের জবাবে নোমান বলেন, এই পরাজয়ের পেছনে জাতীয় পার্টির তেমন কোনো ভূমিকা আছে বলে আমি মনে করি না। কারণ, জনগণই এই সরকারকে প্রত্যাখ্যান করেছে। এরশাদ তো এই সরকারেরই একটা অংশ। নৌমন্ত্রী বলেন, লিমনের বিষয়টি সরকারকে পরিস্কার করতে হবে। প্রকৃত ঘটনা জনগণের সামনে তুলে ধরতে হবে। নোমান বলেন, লিমনের বিরুদ্ধে সরকার দাঁড়িয়েছে। মানবাধিকার কমিশনও তার সুর পরিবর্তন করেছে। এটাই হলো সরকারের স্ট্যান্টবাজি।


এখানে শেয়ার বোতাম






পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

All rights reserved © 2021 shirshobindu.com