l

সোমবার, ০১ মার্চ ২০২১, ০৬:৫৫ অপরাহ্ন

বিশ্বের সর্বোচ্চ উচ্চতায় ফোরজি ইন্টারনেট

বিশ্বের সর্বোচ্চ উচ্চতায় ফোরজি ইন্টারনেট

এখানে শেয়ার বোতাম

 

 

 

 

 

 

 

 

 

সাব্বিন হাসান: সবখানে, সব সময়ে ইন্টারনেট। এ মহাপরিকল্পনা একটু একটু করে বাস্তবায়নের পথে এগোচ্ছে। সীমাবদ্ধতা একেবারে নেই তা নয়। কিন্তু সাফল্যের পাল্লাও নেহাত কম নয়। আধুনিক মানুষেরা এখন ইন্টারনেট ছাড়া একদিনই কাটাতে পারেন না। তাই সবখানেই আর সব সময়ই অপরিহার্য হয়ে উঠছে। এ কঠিন সত্যের সর্বশেষ নজির পাওয়া গেল বিশ্বের সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ এভারেস্টে।

এখন এভারেস্টের বেজ ক্যাম্পেও পৌঁছে গেছে দ্রুত গতির ফোরজি নেওয়ার্ক। বেজ ক্যাম্পের চূড়া থেকেই এখন উচ্চগতির ডাটা সার্ভিস পাওয়া যাবে। চীনের শীর্ষ মোবাইল অপারেটর হুয়াওয়ে এভারেস্টে ফোরজি এলটিই টিডিডি নেটওয়ার্ক প্রতিষ্ঠা করে রেকর্ড গড়েছে। তুলে ধরেছে ইন্টারনেটের অবিচ্ছেদ্য গুরুত্ব। নেপালের ভূমি থেকে ৫,২০০ মিটার ওপরের বেজ ক্যাম্পে এখন থেকে অনায়াশেই ফোরজি (চতুর্থ প্রজন্ম) প্রযুক্তির ইন্টারনেট উপভোগ করতে পারবেন পর্বত আরোহীরা।

প্রসঙ্গত, এর আগে ২০০৮ সালে দুটি মোবাইল অপারেটর জিএসএম নেটওয়ার্ক দিয়ে একই উচ্চতায় অলিম্পিক গেমের ইন্টারনেটভিত্তিক সম্প্রচার করে। এ ছাড়াও নেপালের নিজস্ব টেলিকম অপারেটর এনসেল এভারেস্টে থ্রিজি নেটওয়ার্ক প্রতিষ্ঠা করে। এ মুহর্তে এটিই বিশ্বের সর্বোচ্চ উচ্চতায় ইন্টারনেট সেবার উদাহরণ। এ প্রসঙ্গে হুয়াওয়ের প্রেসিডেন্ট ডেভিড ওয়াঙ বলেন, বিশ্বের এলটিই টিডিডি নেটওয়ার্কের ফোরজি ইন্টারনেট সেবার দারুণ এক মাইলফলক হচ্ছে এভারেস্টের বেজ ক্যাম্প। এ অসাধ্য নেটওয়ার্ক স্থাপন করে হুয়াওয়ে গর্বিত। আশা করা যাচ্ছে ইন্টারনেট সেবার মানোন্নয়নে এ পথেই বিশ্বের শীর্ষ মোবাইল ব্রডব্যান্ড অপারেটরেরা তাদের নিত্যনতুন সেবা কৌশলে এগিয়ে আসবে। এ ধারায় বিশ্বের সবখানে, সব সময়ই ইন্টারনেটের উপস্থিতি নিশ্চিত হবে।

এ ফোরজি ঘরানার এলটিই টিডিডি নেটওয়ার্কের মাধ্যমে সর্বোচ্চ উচ্চতায় সর্বোচ্চ দ্রুতগতির ডাটা বিনিময় করা সম্ভব হবে। আর তাতে কোনো বাড়তি সময়ের প্রয়োজন হবে না। অর্থাৎ সম্প্রচার হবে রিয়েল টাইম। গত মাসেই এ বেজ ক্যাম্প থেকে লাইভ ভিডিও স্ট্রিমিংয়ের সফল পরীক্ষা করা হয়েছে। আগের এলটিই ঘরানার এফডিডি নেটওয়ার্কের তুলনায় টিডিডি বহুগুণ শক্তিশালী এবং নিরবিচ্ছিন্ন ইন্টারনেট সরবরাহ করে থাকে। এরই মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপভুক্ত দেশগুলো ছাড়াও জাপান, লাতিন আমেরিকার দেশেও ফোরজি ঘরানার এফডিডি ইন্টারনেট সেবা চালু হয়েছে।

এ ছাড়াও এলটিই ঘরানার টিডিডি নেটওয়ার্ক চালু আছে এমন দেশের মধ্যে চীন, ভারত, আফ্রিকা এবং ইউরোপের বাজারে এ নেটওয়ার্কের ইন্টারনেট চাহিদা এবং সরবরাহ দুটোই বাড়ছে। এখন স্মার্টফোনভিত্তিক হ্যান্ডসেট, ডাটা কার্ড, ওয়্যারলেস মডেম এবং ট্যাবলেটে এলটিই এফডিডি ঘরানার ইন্টারনেট কাজ করবে। তবে সর্বাধুনিক এলটিই ঘরানার টিডিডি নেটওয়ার্কের দ্রুত গতির ইন্টারনেট সম্প্রচারে এ সময়ের প্রচলিত পণ্যগুলো মোটেও কাজে আসবে না। অর্থাৎ এ গতির ইন্টারনেট উপভোগে ফোরজি এলটিই টিডিডি নেটওয়ার্ক সমর্থিত পণ্যের নতুন বাজার চাহিদা তৈরি হবে।

 


এখানে শেয়ার বোতাম






পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

All rights reserved © 2021 shirshobindu.com