l

রবিবার, ০৭ মার্চ ২০২১, ০৫:৩৫ পূর্বাহ্ন

বিকল্প আসছে ব্লু-রে ডিস্কের

বিকল্প আসছে ব্লু-রে ডিস্কের

এখানে শেয়ার বোতাম

 

 

 

 

 

 

 

 

 

প্রযুক্তি আকাশ ডেস্ক: বাজার বিশ্লেষকেরা জানিয়েছে, আলট্রা হাই ডেফিনেশন বা ফোরকে ফরম্যাটের ভিডিও তথ্যসহ বর্তমানে অতিরিক্ত তথ্য সংরক্ষণে জন্য সনি ও প্যানাসনিক উদ্যোগ নিয়েছে।

সনি এবং প্যানাসনিক এই দুই প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান মিলে ব্লু-রে ডিস্কের বিকল্প হিসেবে নতুন ধরনের অপটিক্যাল স্টোরেজ ডিস্ক বাজারে আনার ঘোষণা দিয়েছে। ২০১৫ সাল নাগাদ বাজারে আসতে পারে ৩০০ গিগাবাইট তথ্য ধারণ ক্ষমতার এ বিশেষ অপটিক্যাল স্টোরেজ পণ্যটি। এক খবরে এ তথ্য জানিয়েছে দ্য রেজিস্টার।

জাপানের প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান সনি ও প্যানাসনিক সম্প্রতি নতুন ফরম্যাটের অপটিক্যাল স্টোরেজ ডিস্ক তৈরির জন্য চুক্তি করেছে। এক যৌথ বিবৃতিতে প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠান দুটির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ভবিষ্যতে মূল্যবান তথ্য সংরক্ষণের জন্য নতুন সমাধান আনছে সনি ও প্যানাসনিক।

বাজার বিশ্লেষকেরা জানিয়েছে, আলট্রা হাই ডেফিনেশন বা ফোরকে ফরম্যাটের ভিডিও তথ্যসহ বর্তমানে অতিরিক্ত তথ্য সংরক্ষণে জন্য সনি ও প্যানাসনিক উদ্যোগ নিয়েছে।

ব্লু-রে ডিস্কের পরবর্তী প্রজন্ম হিসেবে অতিরিক্ত তথ্য ধারণ ক্ষমতার অপটিক্যাল ডিস্ক তৈরি করবে প্রতিষ্ঠান দুটি। ব্লু রে হচ্ছে সিডি বা ডিভিডি এর মতোই একধরনের অপটিকাল ডিস্ক ফরম্যাট। এর মূল ব্যবহার হচ্ছে হাই-ডেফিনেশন ভিডিও, ভিডিও গেম এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষণে। প্রতিটি একক লেয়ার বিশিষ্ট ব্লু-রে ডিস্ক ২৫ গিগাবাইট পর্যন্ত তথ্য ধারণ করতে পারে, আর দ্বৈত লেয়ারের ক্ষেত্রে এই ধারণক্ষমতা হয় ৫০ গিগাবাইট। একটা সাধারণ সিডি-তে ৭০০ মেগাবাইট, ডিভিডি-তে ৪.৭ গিগাবাইট, দ্বৈত-লেয়ার ডিভিডি ১৭ গিগাবাইট পর্যন্ত তথ্য ধারণ করতে পারে সেখানে একটি দ্বৈত-লেয়ার ব্লু-রে ডিস্ক ৫০ গিগাবাইট পর্যন্ত তথ্য ধারণে সক্ষম ।

 


এখানে শেয়ার বোতাম






পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

All rights reserved © 2021 shirshobindu.com