l

রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৩:১৫ পূর্বাহ্ন

হার্টের ভয়াবহ ঝুঁকিতে মোটা মায়ের সন্তানরা বেশি আক্রান্ত

হার্টের ভয়াবহ ঝুঁকিতে মোটা মায়ের সন্তানরা বেশি আক্রান্ত

এখানে শেয়ার বোতাম

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

দুনিয়া জুড়ে ডেস্ক: স্কটল্যান্ডে পরিচালিত এ গবেষণায় দেখা গেছে, যে মায়েরা অন্তঃসত্ত্বা থাকার সময় স্থূলকায় ছিলেন, তাদের সন্তানরা ৫৫ বছর বয়সে পা দেয়ার আগেই মৃত্যুর সমূহ ঝুঁকির মধ্যে পড়ে যান। স্থূলকায় বা অতিরিক্ত ওজনের মায়েদের সন্তানদের হার্টের অসুখে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেশি। নতুন এক গবেষণায় এ তথ্য পাওয়া গেছে।

হার্টের গুরুতর কোন সমস্যায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর ক্ষেত্রে স্বাভাবিকের তুলনায় ৩৫ শতাংশ বেশি ঝুঁকিতে রয়েছেন তারা। তবে বংশগত কারণে, মাতৃগর্ভে থাকার সময় বা পরবর্তী লাইফস্টাইল বা জীবনধারণ প্রক্রিয়ার সঙ্গে এ ঝুঁকির কতোটা সম্পর্ক, সে সম্পর্কে এখনও কিছু জানা যায়নি। বৃটিশ মেডিকেল জার্নালে এ গবেষণাপত্রটি প্রকাশিত হয়েছে।

এডিনবার্গ ইউনিভার্সিটির গবেষক দলটির প্রধান অধ্যাপিকা রেবেকা রেইনল্ডস গর্ভবতী মায়েদের জন্য কিছু পরামর্শ দিয়েছেন। তিনি বলছেন, অন্তঃসত্ত্বা মায়েদের অবশ্যই সুস্বাস্থ্য বজায় রাখা, সুষম খাদ্যাভ্যাস গড়ে তোলা ও সক্রিয় থাকা উচিত। তবে, অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী খাওয়া-দাওয়া ও কাজ করতে হবে গর্ভবতী মাকে। ভারি কোন কাজ থেকে বিরত থাকতে হবে।

সন্তান জন্মদানের পূর্বে চিকিৎসকের কাছে প্রসবের জন্য নাম লেখানোর সময় বৃটেনের প্রতি ৫ জনের মধ্যে ১ জন নারীকে স্থূলাবস্থায় পাওয়া যায়, যা বেশ আতঙ্কজনক। ২৮ হাজার ৫৪০ জন নারীর ওপর গবেষণাটি পরিচালিত হয়। সন্তান জন্মদানের পূর্বে তাদের ওজন মাপা ও লিপিবদ্ধ রাখা হয়েছিল। তাদের ৩৭ হাজার ৭০৯ জন সন্তান-সন্ততির বয়স এখন ৩৪ থেকে ৬১ বছরের মধ্যে। প্রতি ৫ জনের মধ্যে ১ জন মায়ের ওজন ছিল অতিরিক্ত।

সন্তানদের মধ্যে যে কোন রোগে আক্রান্ত হয়ে ৬ হাজার ৫৫১টি অকালমৃত্যুর ঘটনা রেকর্ড করা হয়েছে। এর মধ্যে হার্টের অসুখ ছিল সবচেয়ে এগিয়ে। দেখা গেলো, অন্তঃসত্ত্বা থাকার সময় যে মায়েদের ওজন স্বাভাবিক ছিল, তাদের তুলনায় মোটা মায়েদের সন্তানদের ক্ষেত্রে এ ঝুঁকি ৩৫ শতাংশ বেশি। ওই গবেষণায় আরও দেখা গেছে, স্থূলকায় মায়েদের গর্ভে জন্ম নেয়া সন্তানরা ৪২ শতাংশ বেশি হার্ট অ্যাটাক, স্ট্রোকে বা অন্য কোন মারাত্মক হার্টের অসুখে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন।

 


এখানে শেয়ার বোতাম






পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

All rights reserved © 2021 shirshobindu.com