শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৭:২২

ব্রিটেনে করোনা ভ্যারিয়েন্টের কার্যকর টিকার প্রথম অনুমোদন

ব্রিটেনে করোনা ভ্যারিয়েন্টের কার্যকর টিকার প্রথম অনুমোদন

শীর্ষবিন্দু নিউজ, লন্ডন / ৫৪
প্রকাশ কাল: মঙ্গলবার, ১৬ আগস্ট, ২০২২

করোনা ভাইরাসের মূল স্ট্রেইন এবং ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট উভয়ের বিরুদ্ধে কার্যকর এমন একটি টিকা বিশ্বে প্রথম অনুমোদন দিয়েছে ব্রিটেন। মূলত এটি একটি বুস্টার ডোজ। এখন পর্যন্ত এটি ‘স্পাইকভ্যাক্স বাইভ্যালেন্ট অরিজিনাল বা ওমিক্রন’ হিসেবে পরিচিত।

এর অর্ধেকটা হলো ওমিক্রন টিকা এবং বাকি অর্ধেক হলো করোনাভাইরাসের মূল টিকা। এ দুটি একত্রিত করে তৈরি করা হয়েছে এই টিকা। এ খবর দিয়েছে অনলাইন স্কাই নিউজ।

এতে বলা হয়েছে, ব্রিটিশ নিয়ন্ত্রণকারীরা এর নিরাপত্তা, গুণগত মান ও কার্যকারিতা পরীক্ষা করেছে। তাতে মানোত্তীর্ণ হয়েছে এই টিকা। ফলে মডার্নার এই বুস্টার ডোজকে সবুজ সংকেত দিয়েছে মেডিসিনস অ্যান্ড হেলথকেয়ার প্রোডাক্ট রেগুলেটরি এজেন্সি (এমএইচআরএ)।

স্কাই নিউজ লিখেছে, ‘স্পাইকভ্যাক্স বাইভ্যালেন্ট অরিজিনাল বা ওমিক্রন’-এ আছে ২৫ মাইক্রোগ্রাম ওমিক্রন টিকা এবং ২৫ মাইক্রোগ্রাম করোনা ভাইরাসের মূল টিকা। যে টিকা দুটি সংক্রমণে কাজ করে তা বাইভ্যালেন্ট হিসেবে পরিচিত।

এখন দ্য জয়েন্ট কমিটি অন ভ্যাক্সিনেশন অ্যান্ড ইমিউনাইজেশন পরামর্শ দেবে, কিভাবে এই টিকা ব্যবহার করা হবে। ওদিকে এই টিকা অনুমোদনের জন্য অস্ট্রেলিয়া, কানাডা এবং ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের কাছে সাবমিট করা হয়েছে। আশা করা হচ্ছে, সেপ্টেম্বরের মধ্যে এই টিকার অনুমোদন দেবে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন।

এমএইচআরএ’র প্রধান নির্বাহী ড. জুন রেইন বলেছেন, মডার্নার বাইভ্যালেন্ট বুস্টার টিকার অনুমোদন ঘোষণা করতে পেরে আমি সন্তুষ্ট। ক্লিনিক্যাল পরীক্ষায় এই টিকায় শক্তিশালী রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা পাওয়া গেছে। এই টিকা একই সঙ্গে ওমিক্রন বিএ.১ ভ্যারিয়েন্ট এবং ২০২০ সালের করোনার মূল স্ট্রেইনের বিরুদ্ধে রোগ প্রতিরোধ সৃষ্টি করে।

ওদিকে মডার্নার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা স্টিফেন ব্যানসেল এই টিকাকে ‘পরবর্তী প্রজন্মের কোভিড-১৯ টিকা’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। শীতে ব্রিটেনে কোভিড-১৯ থেকে জনগণকে সুরক্ষিত রাখতে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে তা। এমএইচআরএ কর্তৃপক্ষ ‘স্পাইকভ্যাক্স বাইভ্যালেন্ট অরিজিনাল বা ওমিক্রন’কে অনুমোদন দিয়েছে।

এ জন্য আমরা আনন্দিত। এটাই প্রথম ওমিক্রমন সংক্রমিত বাইভ্যালেন্ট টিকা। এটা করোনা মহামারি রোধে ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষকে সহায়তা করবে। এরই মধ্যে ব্রিটিশ সরকারের নিরপেক্ষ বিজ্ঞান বিষয়ক উপদেষ্টা পরিষদ কমিশন অন হিউম্যান মেডিসিনসও এই টিকা অনুমোদন করেছে।

কমিশন অন হিউম্যান মেডিসিনস-এর চেয়ার প্রফেসর স্যার মুনির পীর মোহামেদ বলেছেন, এর নিরাপত্তা, গুণগত মান ও কার্যকারিতা পর্যালোচনা করে দেখেছে কমিশন অন হিউম্যান মেডিসিনস এবং এর কোভিড-১৯ ভ্যাক্সিন্স এক্সপার্ট ওয়ার্কিং গ্রুপ। তারা এমএইচআরএর সিদ্ধান্তের সঙ্গে একমত হয়েছেন।

ব্রিটেনে প্রথমে কোভিড-১৯ এর যে প্রথম পর্যায়ের টিকা দেয়া হয়েছে তা এই রোগের বিরুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ সুরক্ষা অব্যাহত রেখেছে। এতে জীবন রক্ষা হচ্ছে। যেহেতু এই ভাইরাস অব্যাহতভাবে বিবর্তিত হচ্ছে, তাই আমাদেরকে এই রোগের বিরুদ্ধে সুরক্ষিত থাকতে একটি হাতিয়ার হয়ে উঠেছে বাইভ্যালেন্ট টিকা।




Leave a Reply

Your email address will not be published.



পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

All rights reserved © shirshobindu.com 2022