মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ০৭:৪৫

সিরিয়ায় জঙ্গীদের হয়ে লড়তে হবে জানতেন শামীমা

সিরিয়ায় জঙ্গীদের হয়ে লড়তে হবে জানতেন শামীমা

শীর্ষবিন্দু নিউজ, লন্ডন / ১১৮
প্রকাশ কাল: বুধবার, ২৩ নভেম্বর, ২০২২

বাংলাদেশি বংশদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক শামীমা বেগম জানতে তাকে সিরিয়ায় গিয়ে আইএসআইএস যোগ দিয়ে জঙ্গীদের হয়ে লড়তে হবে। ব্রিটেনের গোয়েন্দা সংস্থা এমআই ফাইভের এক কর্মকর্তা আদালতে কথা বলেছেন। দ্য সান।

আদালতে শামীমার আইনজীবী সামান্থা নাইটস কেসি বলেন, একজন ব্রিটিশ মেয়ে বন্ধুদের সাথে আইএসআইএসেরপ্রপাগান্ডা মেশিনএর মাধ্যমেপ্রভাবিতহয়েই সিরিয়ায় গিয়েছিলেন। তাকেআইএসআইএস যোদ্ধার সাথে বিয়ে দেওয়া হয়েছিলএবং তার নাগরিকত্ব হারানোর বিষয়টিচরম ব্যবস্থা

এটি কার্যকরভাবে শামীমাকে নির্বাসিত জীবনে ফেলে দিয়েছে যা তার জীবনে সবচেয়ে গভীর প্রভাব ফেলেছে এবং অব্যাহত রয়েছে। আইএসআইএস নিয়োগকারীর পাচারের শিকার হলেও ব্রিটেনের জাতীয় নিরাপত্তার জন্য সে হুমকি নয়

তবে এমআই ফাইভের একজন কর্মকর্তা যিনি ২০১৯ সালে সিরিয়া ইরাকে ইসলামপন্থী সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর কার্যকলাপের তদন্তকারী একটি দলের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন, তিনি বেগমের আইনজীবীর দাবিকে প্রত্যাখ্যান করেছেন। তিনি স্পেশাল ইমিগ্রেশন আপিল কমিশনে (এসআইএসি) শুনানিতে বলেন, এটা অচিন্তনীয় যে বেগম এই সময়ে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে কী করছে তা জানবেন না।

শামীমা পাচারের শিকার হয়েছেন তা সিকিউরিটি সার্ভিস বিবেচনা করেছে কিনা, প্রশ্নের উত্তরে ব্রিটিশ গোয়েন্দা কর্মকর্তা বলেন, ভুক্তভোগীরা খুব বেশি হুমকি হতে পারে যদিও কেউ পাচারের শিকার হয়। সাত বছর আগে শামীমা বেগম সিরিয়ায় যাওয়ার সময় আইএসআইএস দ্বারা সংঘটিত অপরাধগুলিমনে রাখার মতোছিল।

এমআই ফাইভ কর্মকর্তা ২০১৪ সালের জুনে ইরাকে ১৭শ ক্যাডেটকে হত্যা দেশটির সিনজাউ অঞ্চলে ইয়াজিদিদের গণহত্যা, সেইসাথে জেমস ফোলি, ডেভিড হেইনস এবং অ্যালান হেনিং সহ সাংবাদিকদের শিরশ্ছেদ এর ঘটনার উল্লেখ করেন। শামীমা বুদ্ধিমতী, স্পষ্টভাষী সম্ভবত সমালোচনামূলক চিন্তাশীল ব্যক্তি হিসেবে সিরিয়ায় তার যাওয়ার ব্যাপারে বিস্তারিত জানতেন।

শামীমা বর্তমানে উত্তর সিরিয়ার আলরোজ শরণার্থী শিবিরে রয়েছেন এবং সাম্প্রতিক বছরগুলিতে তিন সন্তানকে হারিয়েছেন। এর আগে শামীমা বেগমকে কানাডিয়ান আইএসআইএস এজেন্ট এর মাধ্যমে তুরস্ক থেকে সিরিয়ায় পাচার করা হয় বলে দাবি করা হয়।

তবে ব্রিটেনের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় আদালতে লিখিত বক্তব্যে জানিয়েছে, নিরাপত্তা সংস্থাগুলো শামীমাকে এখনো দেশটির জাতীয় নিরাপত্তার জন্য ঝুঁকিপূর্ণ বলে মনে করছে। আর এটি জাতীয় নিরাপত্তা সংক্রান্ত মামলা। এটি পাচারের মামলা নয়

উল্লেখ্য, সিরিয়ায় আটক শামীমা বেগম ব্রিটেনের আদালতে তার ব্রিটিশ নাগরিকত্ব ফের ফিরে পেতে আবেদন জানিয়েছেন। এ মামলার শুনানিতে তার আইনজীবীরা আদালতকে বলেন, ২০১৫ সালে সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর মাধ্যমে যৌন শোষণের জন্য পাচার হওয়ার আগে শামীমা বেগমকে ১৫ বছর বয়সে সুকৌশলে রিক্রুট করা হয়েছিল।

২০১৯ সালে সিরীয় শরণার্থী শিবিরে শামীমা বেগমকে পাওয়া গেলে ব্রিটেনের তৎকালীন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাজিদ জাভিদ তার নাগরিকত্ব বাতিল করেন। পূর্ব লন্ডনের বেথনাল গ্রিনের প্রাক্তন স্কুলছাত্রীর আইনজীবীরা এই সিদ্ধান্তকে বেআইনি দাবি করছেন।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *



পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
All rights reserved © shirshobindu.com 2022