বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০১:৩৮

যুক্তরাজ্যের বার্মিংহাম সিটি কাউন্সিল দেউলিয়া ঘোষণা

যুক্তরাজ্যের বার্মিংহাম সিটি কাউন্সিল দেউলিয়া ঘোষণা

শীর্ষবিন্দু নিউজ, লন্ডন / ১০৯
প্রকাশ কাল: শনিবার, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০২৩

দেউলিয়া হয়ে গেছে যুক্তরাজ্যের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর বার্মিংহাম। বার্ষিক বাজেট ঘাটতির কারণে নিজেদের দেউলিয়া ঘোষণা করেছে শহর কর্তৃপক্ষ। গত মঙ্গলবার (৫ সেপ্টেম্বর) এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানায় বার্মিংহাম সিটি কাউন্সিল। তাতে বলা হয়, কাউন্সিলে ব্যয় করার মতো পর্যাপ্ত অর্থ না থাকায় এখন কেবল শহরের অতি গুরুত্বপূর্ণ সেবাগুলোয় নজর দেওয়া হবে।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন জানায়, বিরোধী দল লেবার পার্টির নিয়ন্ত্রণাধীন বার্মিংহাম সিটি কাউন্সিল শুধু যুক্তরাজ্যে নয়, ইউরোপের অন্যতম বৃহৎ কাউন্সিল। যার শতাধিক কাউন্সিলর রয়েছেন। তারা ১০ লাখেরও বেশি মানুষকে সেবা দেন। কিন্তু বছরের পর বছর ধরে সরকারের কাছ থেকে পর্যাপ্ত বাজেট পাচ্ছে না বার্মিংহাম কাউন্সিল।

গত মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে শহর কর্তৃপক্ষ জানায়, তারা আর শহরের ব্যয় পরিচালনা করতে পারছে না। এ কারণে লোকাল গভর্নমেন্ট ফিনান্স অ্যাক্ট ১৯৮৮ এর অধীনে শহরে ১১৪ ধারা জারি করা হয়েছে।

লেবার পার্টির কাউন্সিলর বলেন, গুরুত্বপূর্ণ সেবাগুলো দেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ ছাড়া এই মূহুর্তে কাউন্সিলের হাতে অতিরিক্ত কোনো অর্থ নেই। এমনকি, বেতন দেওয়ার মতো তহবিলও নেই। এছাড়া বাজেটে ৮ লাখ ৭০ হাজার কোটি পাউন্ড ঘাটতি রয়েছে।

২০১২ সালে দেশটির সুপ্রিম কোর্ট নারী কর্মীদের ‘সমবেতন’ পরিশোধের পক্ষে রায় দেন। মূল ঘটনা হলো, বার্মিংহাম সিটি কাউন্সিলে যেসব কর্মী কাজ করতেন তাদের মধ্যে পুরুষদের বোনাস দেওয়া হলেও, নারীদের দেওয়া হয়নি। বিষয়টি নিয়ে নারীরা আদালতের দারস্থ হলে তাদের পক্ষে রায় দেওয়া হয়।

বার্মিংহাম কাউন্সিল গত জুনে বলেছিল, আদালত নির্দেশ দেওয়ার পর গত এক যুগে নারী কর্মীদের ১০০ কোটি ১০ লাখ বিলিয়ন পাউন্ড পরিশোধ করা হয়েছে। তবে এখনো অনেক অর্থ বাকি রয়ে গেছে। ওই সময় কাউন্সিল জানিয়েছিল, তারা এই অর্থ পরিশোধে হিমশিম খাচ্ছে। কিন্তু এসব অর্থ পরিশোধে তারা সর্বোচ্চ চেষ্টা করছে।

যুক্তরাজ্যের স্থানীয় সরকার বা সিটি কাউন্সিলগুলো মূলত কেন্দ্রীয় সরকারের অর্থায়ন, পার্কিং সার্ভিস ও ট্যাক্স থেকে অর্থ আয় করে থাকে। তবে সম্প্রতি ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাকের দপ্তর জানিয়েছে, স্থানীয় যেসব কাউন্সিল আছেন তাদের নিজেদের বাজেট নিজেদেরই যোগাতে হবে। যদিও প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর জানিয়েছে, এ অর্থবছরে কাউন্সিলদের বাড়তি ৫৫ কোটি ১০ লাখ পাউন্ড দেওয়া হচ্ছে।

তবে প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছিলেন, বার্মিংহাম সিটি কাউন্সিলকে কোনো আর্থিক সহায়তা দেওয়া হবে না। কারণ সিটি কাউন্সিলের কর্মকর্তারা কাউন্সিলের ফান্ড নিয়ে এদিক-ওদিক করেছেন।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *



পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  
All rights reserved © shirshobindu.com 2024