মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১০:৫৪

দেশের বিভিন্ন স্থানে নির্বাচনকে ঘিরে সংঘর্ষ

দেশের বিভিন্ন স্থানে নির্বাচনকে ঘিরে সংঘর্ষ

সংঘর্ষ, নাশকতা, ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, হামলা, ককটেল বিস্ফোরণ, গোলাগুলি ও বর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হলো  দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। নির্বাচনকে ঘিরে রোববার সকাল থেকে সারাদেশে সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থানে ছিলো আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

মুন্সিগঞ্জ-৩ আসনে জিল্লুর রহমান নামে নৌকা প্রার্থীর এক সমর্থককে কুপিয়ে হত্যা করা  হয়েছে। সংঘর্ষ ও গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়েছে ৫ শতাধিকের বেশি। এসব ঘটনায় আটক হয়েছে শতাধিকের বেশি।

নির্বাচনকে ঘিরে ভোটারদের মধ্যে উদ্বেগ, উৎকণ্ঠা ও টানটান উত্তেজনা ছিলো ভোটারদের মধ্যে। তবে রাজধানীতে দুই একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া তেমন কিছু ঘটেনি। আবার অনেক জেলায় সুষ্ঠ ও শান্তিপূর্ণ ভোট গ্রহণ হয়েছে।

জিল্লুর রহমানের স্ত্রী রেহেনা বেগম বলেন,  রোববার সকাল ৯টায়  সদরের মিরকাদিম পৌরসভার টেংগোর এলাকা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। স্বতন্ত্র প্রার্থী কাঁচি প্রতীকের সমর্থকরা জিল্লুর রহমানকে হত্যা করেছে।

মুন্সিগঞ্জের এসপি আসলাম খান বলেন, তার বিরুদ্ধে ১০ মামলা ছিলো। পূর্ব শক্রতার জেরে তাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

জানা গেছে, সকাল সাড়ে ছয়টায় রাজধানীর  সায়দাবাদ করাটিয়া সিএমএস মেমোরিয়াল হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজ সামনে ককটেল বিস্ফোরণে ট্রাফিক পুলিশের পরিদর্শক আনন্দ চন্দ্র ও মোহাম্মদ অন্তর (২২)  নামের আনসারের এক  সদস্য আহত হয়েছে।

বেলা সাড়ে ১১টায়  হাজারীবাগের বটতলা এলাকার একটি কেন্দ্রের সামনে ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনায় তানভীর আহমেদ নামের আট বছরে এক শিশু আহত হয়েছে। এই ঘটনায় আমির হোসেন (৬০) নামের আরেকজন আহত হন। এছাড়া খিলক্ষেতে একটি কেন্দ্রে ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

যাত্রাবাড়ী এলাকায় নৌকা ও ট্রাক প্রতীকের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে।  এতে চারজন আহত হয়েছেন।

যশোরে বেনাপোলে নৌকার ৩ কর্মীকে ছুরিকাঘাতের অভিযোগ উঠেছে স্বতন্ত্রী প্রার্থী ট্রাক প্রতীকের আশরাফুল আলম লিটনের লোকজনের বিরুদ্ধে।  যশোর মনিরাপুমর আসনে ঈগল প্রতীকের দুই কর্মীকে কুপিয়ে জখমের অভিযোগ উঠেছে নৌকা সমর্থকদের বিরুদ্ধে।

চট্টগ্রাম-১০ আসনে নৌকার প্রার্থী মো. মহিউদ্দিন ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ফুলকপি প্রতীকের মোহাম্মদ মঞ্জুর আলমের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে দুইজন গুলিবিদ্ধ হয়েছে।

কুমিল্লার দেবিদ্বারে বর্তমান এমপি নৌকা প্রতীকের প্রার্থী রাজী মোহাম্মদ ফখরুলকে জাল ভোটের অভিযোগে অবরুদ্ধ করে ঈগল প্রতীকের সমর্থকরা। পরে প্রশাসন গিয়ে তাকে উদ্ধার করে।

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে দুই ভোটকেন্দ্রে নৌকা ও ট্রাক প্রতীকের সমর্থকদের মধ্যে দুই দফায় সংঘর্ষে নৌকার এজেন্টসহ উভয় ২০ জন আহত হয়েছেন। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ ৫ রাউন্ড গুলি ছুড়েছে।

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারের রামচন্দ্রদী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে সিল মারাকে কেন্দ্র করে দুপক্ষের সংষর্ষে  ১০ জন আহত হন।

মাদারীপুর-৩ আসনে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীক ড. আবদুস সোবহান মিয়া গোলাপ ও ঈগল প্রতিকের স্বতন্ত্রপ্রার্থী মোসা. তাহমিনা বেগমের সমর্থকদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষে ১৫ থেকে ২০ জন আহত হয়েছে। এছাড়া কয়েকটি বাড়ি-ঘরে আগুন দেওয়ার ঘটনাও ঘটে।

নরসিংদী-৩ আসন শিবপুরে দুলালপুর ফাজিল (ডিগ্রি ) মাদরাসা কেন্দ্রে হামলা ও ভাংচুর চালায়  নৌকার সমর্থকরা। এসময় ব্যালট পেপার ছিনিয়ে নেয়। এতে বাধা দিলে কেন্দ্রের প্রিজাইডিং কর্মকর্তাকে মারধর করা হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনসার ও পুলিশ সদস্য পর পর ৬ রাউন্ড গুলির্বষণ করেন। ওই সময় ঘটনাস্থল থেকে ৮ জনকে আটক করা হয়েছে।

টাঙ্গাইলে জেলার গোপালপুরে ভোটকেন্দ্র থেকে ভোটের পেপারসহ ব্যালট বাক্সে আগুন দেয়ার ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ৫ রাউন্ড গুলি করে। এঘটনায় দুইজন আনসার সদস্য আহত হয়েছে।

গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে ভোটকেন্দ্রে হামলা চালায়। তারা ব্যালট বাক্স ভাঙচুরসহ আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেন। বিদ্যালয়ের দরজা-জানালাও ভাঙচুর করেন তারা।

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আনোয়ার হোসেন খানের কর্মীরা স্বতন্ত্র প্রার্থীর ঈগল নির্বাচনী কমিটির সদস্য সচিব আওয়ামী লীগ নেতা শামছুল হক মিজানের ওপর হামলা করে এবং গাড়ি ভাংচুর করে। এঘটনায় ৩ সংবাদকর্মীসহ আরও ৬ জন আহত হয়েছেন।

লালমনিরহাট-১ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী আতাউর রহমানকে একটি কেন্দ্রে অবরুদ্ধ করার ঘটনা ঘটে। এ সময় ছবি তুলতে গেলে হামলা চালানো হয়। এতে চালকসহ তিন সাংবাদিক আহত হয়েছেন।

চাঁদপুর-৪ জালভোট দেওয়াকে কেন্দ্র করে নৌকা ও ঈগল প্রতীকের প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহিত চৌধুরীর গাড়ি ভাঙচুর করে। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ ২৬ রাউন্ড শটগানের গুলি বর্ষণ করে।  বেশ কয়েকজন আহত হন।

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় নৌকা ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষে  ৮ জন আহত হন। নোয়াখালী-২ নৌকা ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধসহ আহত হয়েছে ৬ জন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগরে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান জাকির হোসেন সাদেকের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় তিনজন আহত হয়েছেন। পটুয়াখালীতে মহাজোট প্রার্থী ও জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদারের ওপর হামলার অভিযোগ উঠেছে বাংলাদেশ কংগ্রেসের ডাব প্রতীকের সমর্থকদের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় রুহুল আমিন হাওলাদারের ব্যক্তিগত সহকারী সোহেলসহ পাঁচজন আহত হয়েছেন।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *



পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
All rights reserved © shirshobindu.com 2012-2024