বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ০৮:১৩

ব্রিটেনে প্রাইমারী স্কুলে সেক্স এডুকেশনের নতুন নির্দেশিকার খসড়া প্রস্তুত

ব্রিটেনে প্রাইমারী স্কুলে সেক্স এডুকেশনের নতুন নির্দেশিকার খসড়া প্রস্তুত

ব্রিটিশ সরকার শিক্ষা নীতি বিষয়ক নতুন একটি নির্দেশিকার খসড়া প্রস্তুত করেছে। খসড়া প্রকাশিত হওয়ার আগেই তা ফাঁস হয়ে গেছে।

সরকারের নতুন খসড়া নির্দেশিকায় প্রস্তাব করা হয়েছে, ইংল্যান্ডের স্কুলগুলোতে লিঙ্গ পরিচয় সম্পর্কে শিক্ষা দেওয়া উচিত হবে না। অর্থাৎ, কে ছেলে, কে মেয়ে, কে ছেলে-মেয়ে কিছুই না- এ ধরনের বিষয় পড়ানো হবে না।

বাহ্যিকভাবে দেখতে কাউকে ছেলে মনে হলেও সে হয়তো নিজেকে মেয়ে মনে করে। এই জেন্ডার আইডেনটিটি, অর্থাৎ লিঙ্গ পরিচয় বিষয়টি স্কুলে না পড়ানোর নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। আরও বলা হয়েছে, প্রাইমারি স্কুলে ৯ বছরের কম বয়সের শিশুদের সেক্স এডুকেশন দেয়া হবে না।

অর্থাৎ, ইয়ার-ফাইভ কিংবা সিক্সের শিক্ষার্থীদের সেক্স এডুকেশন দেয়া যাবে। খসড়া নির্দেশিকা ফাঁস হয়ে যাওয়ার পর শিক্ষা খাতের সাথে জড়িত ব্যাক্তিবর্গ এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে তাদেরকে অন্তর্ভুক্ত করার এবং সরকারের স্পষ্ট ব্যাখ্যা চান।

বিদ্যমান সরকারি নির্দেশিকায় খুব শক্তভাবে বলা আছে, শিশুদেরকে নানা রকম পরিবার সম্পর্কে শিক্ষা দিতে হবে। সমলিঙ্গের দুইজন অভিভাবকের পরিবারকেও স্বাভাবিক হিসেবে শিক্ষা দিতে হবে।

কিন্তু সরকারের নির্দেশিকায় এই কথাও বলা আছে, স্কুলের হেড টিচার যদি মনে করেন তিনি প্রাইমারি স্কুলে সমলিঙ্গের পরিবার সম্পর্কে শিক্ষা দিতে চান, তিনি দেয়ার সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। বাধ্যবাধকতা না থাকায় দুটানায় পড়েছেন কোনো কোনো হেড টিচার।

এই অভিভাবকেরা যখন স্কুলে গিয়েছেন, সে সময় থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত স্কুলে সেক্স এডুকেশনের মাত্রা ও পদ্ধতিতে অনেক পরিবর্তন এসেছে।

স্কুলের শিক্ষার্থীদের হাতে হাতে চলে এসেছে মোবাইল ফোন, মোবাইলে পর্ণ ছবি দেখা সহজ হয়ে গেছে, আর সোশাল মিডিয়া তো আছেই।

অভিভাবকদের মধ্যে অনেক রকম দৃষ্টিভঙ্গি আছে, শিশুদেরকে স্কুলে কী শেখান উচিত। তবে একটি বিষয়ে এসব অভিভাবক একমত সেক্স এডুকেশন একটি সংবেদনশীল বিষয়।

শিক্ষা নীতির নতুন নির্দেশিকায় রিলেশনশিপ, সেক্স এন্ড হেলথ এডুকেশন ইস্যুতে শিক্ষক-অভিভাবিকেরা স্বচ্ছতা চান। শিগগিরি নির্দেশিকা প্রকাশ করবে সরকার।

স্কুলে রিলেশনশিপ, সেক্স এন্ড হেলথ এডুকেশন ব্যাপক বিতর্কিত একটি বিষয়। বারমিংহামের এনডারটন প্রাইমারি স্কুলে ২০১৯ সালে এলজিবিটি পরিবার নিয়ে যখন শিশুদের শিক্ষা দেয়া হচ্ছিল তখন স্থানীয় অভিভাবকদের সাথে স্কুল কর্তৃপক্ষের উত্তেজনা সৃষ্টি হয়।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *



পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
All rights reserved © shirshobindu.com 2012-2024