বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০২:৪৯

বিদেশে বাংলাদেশী শ্রমিকদের মৃত্যুর ৩০ ভাগই অস্বাভাবিক

বিদেশে বাংলাদেশী শ্রমিকদের মৃত্যুর ৩০ ভাগই অস্বাভাবিক

/ ১৪২
প্রকাশ কাল: বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারী, ২০১৪

শীর্ষবিন্দু নিউজ: বিদেশ থেকে যত বাংলাদেশি লাশ হয়ে ফেরেন, তার ৩০ শতাংশই অস্বাভাবিক মৃত্যুর শিকার বলে জানিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন। মঙ্গলবার ইস্কাটনে প্রবাসী কল্যাণ ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রী প্রবাসে মৃত্যুর পরিসংখ্যান জানিয়ে এজন্য অভিবাসন ব্যয় উঠিয়ে আনতে শ্রমিকদের অমানুষিক পরিশ্রম করাকে দায়ী করেন তিনি।

মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৩ সালে তিন হাজার ৭৬ জন বাংলাদেশি শ্রমিক বিদেশে মারা গেছেন। এর মধ্যে ৭৩৮ জনের অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে। সড়ক দুর্ঘটনা, কর্মক্ষেত্রে দুর্ঘটনা, ক্যান্সার, আত্মহত্যা, খুন এবং আগুনে পুড়ে মারা যাওয়াকে অস্বাভাবিক মৃত্যু হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। বিদেশে গমণের পর কর্মীরা তাদের অস্বাভাবিক অভিবাসন ব্যয়ের অর্থ উত্তোলনের জন্য মরিয়া হয়ে উঠে। ফলে কর্মক্ষেত্রে তারা অমানুষিক পরিশ্রম করে। অন্যদিকে স্ট্রোক, হার্ট অ্যাটাকসহ বিভিন্ন অসুস্থতাজনিত মৃত্যুকে স্বাভাবিক মৃত্যু হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। বর্তমানে ৮৭ লাখ বাংলাদেশি বিশ্বের ১৫৭টি দেশে কাজ নিয়ে গেছেন বলে জনশক্তি রপ্তানি ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর (বিএমইটি) এক তথ্যে জানানো হয়।

এছাড়া প্রবাসে ব্যয় সাশ্রয়ের জন্য অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে থাকার পাশাপাশি বিভিন্ন ঝুঁকিপূর্ণ কাজেও শ্রমিকদের যুক্ত হওয়ার বিষয়টি তুলে ধরেন মোশাররফ। এসব কারণে শ্রমিকদের মধ্যে এক ধরনের মানসিক চাপ সৃষ্টি হয়। অত্যাধিক পরিশ্রম ও মানসিক চাপে তাদের শারীরিক সমস্যা দেখা দেয়। এর ফলাফল হিসেবে অল্পবয়সী শ্রমিকদের মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়তে হয়। এই পরিস্থিতি এড়াতে অভিবাসন খরচ কমাতে সরকার নিরবচ্ছিন্নভাবে কাজ করে যাচ্ছে জানান মন্ত্রী।

গণমাধ্যমের কর্মীদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, কুয়েত, কাতার, সংযুক্ত আরব আমিরাত, মালয়েশিয়া, বাহরাইন এবং সৌদি আরবসহ প্রায় সব মধ্যপ্রাচ্যে দেশে বাংলাদেশের শ্রম বাজার বন্ধ ছিল। নানা কূটনৈতিক তংপরতার মাধ্যমে সেসব শ্রমবাজার খোলার চেষ্টা অব্যাহত আছে। কিছু খুলেছে, অন্যগুলোও প্রক্রিয়াধীন। সৌদি আরবে শ্রমবাজার কবে থেকে খুলেছে-  এই প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী বলেন, তারা কখনো লিখিতভাবে শ্রমিক নিয়োগ বন্ধ করেনি, তাই অফিসিয়ালি বাংলাদেশ থেকে শ্রমিক নেয়ার ঘোষণাও তারা দেবে না। ফলে আমাদের লোকেরা যেদিন থেকে ডিমান্ড নোট নিয়ে আসবেন, সেদিন থেকেই শ্রমবাজার উন্মুক্ত।




Comments are closed.



পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯  
All rights reserved © shirshobindu.com 2024