বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০২:০২

একুশের প্রথম প্রহরে শহীদ মিনারে শ্রদ্ধারত বাঙ্গালী জাতি

একুশের প্রথম প্রহরে শহীদ মিনারে শ্রদ্ধারত বাঙ্গালী জাতি

/ ১৫৬
প্রকাশ কাল: শুক্রবার, ২১ ফেব্রুয়ারী, ২০১৪

একুশের প্রথম প্রহর। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে সাধারণ মানুষের ঢল নেমেছে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে। পুরো জাতি যেন শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাবনত। শিশু থেকে শুরু করে নানা বয়সী মানুষের ঢল নামে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে। বিনম্র শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় জাতি আজ স্মরণ করলো ভাষা শহীদদের।

খালি পায়ে প্রভাত ফেরির মিছিলে অমর গান ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি, আমি কি ভুলিতে পারি..‘ নিয়ে এগুতে থাকে মানুষের ঢল। মধ্য রাতেও মুখে আল্পনা এঁকে দীর্ঘ লাইন ধরে হাতে ফুল নিয়ে শহীদ মিনারের পানে এগুতে থাকে তারা।

শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে রাত ১০টার পর থেকেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এলাকার চারপাশে অসংখ্য মানুষ ভিড় জমাতে শুরু করে। কিন্তু রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা প্রটোকলের কারণে শহীদ মিনারে প্রবেশের সব রাস্তাই বন্ধ করে রাখে নিরাপত্তা বাহিনী।

রাত ১২টা ১ মিনিটে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন রাষ্ট্রপতি মোহাম্মদ আবদুল হামিদ। রাষ্ট্রপতির শ্রদ্ধা নিবেদনের পর ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর পরপরই শ্রদ্ধা নিবেদন করেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরিন শারমিন চৌধুরী, বিরোধী দলীয় নেতা রওশন এরশাদ, মন্ত্রিসভার সদস্যবৃন্দ, তিন বাহিনী প্রধান, পুলিশের আইজিপি , কূটনৈতিক কোরের সদস্যবৃন্দ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক।

এর পর সর্বসাধারণের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার। এ সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি, সেক্টর কমান্ডার্স ফোরাম, জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান, এটর্নি জেনারেল, জ‍াতীয় প্রেসক্লাব, জাসদ, বাসদসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন শহীদ মিনারে।

রাত ১টায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে আসেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। এ সময় তার সাথে ছিলেন বিএনপি’র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দসহ সর্বস্তরের নেতা-কর্মীরা। রাত ২টার সময় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে ছিল হাজারো মানুষের ঢল।

শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু সাংবাদিকদের বলেন, একুশের চেতনা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা রক্ষায় যে কোনো ধরনের জঙ্গিবাদ, মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী শক্তিকে প্রতিহত করা। তারা যেন বাংলার মাটিতে আর মাথা চাড়া দিয়ে না উঠতে পারে, সেজন্য তাদের শেষ ধাক্কা দেওয়ার এখনই সময়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বাংলানিউজকে বলেন, একুশের স্মৃতি আমাদের শক্তি। একুশে শহীদদের স্মৃতি আমাদের প্রেরণা। এ শক্তি এবং প্রেরণাকে সঙ্গে নিয়ে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। ১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা করার দাবিতে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের মিছিলে পাকিস্তানি শাসক গোষ্ঠীর নির্দেশে পুলিশের গুলিতে প্রাণ হারান সালাম, রফিক, বরকত, শফিউরসহ নাম না জানা অনেকে।

ভাষা আন্দোলনের ধারাবাহিকতায় ১৯৭১ সালে নয় মাস সশস্ত্র সংগ্রামের মধ্য দিয়ে স্বাধীনতা অর্জন করে বাংলাদেশ। ১৯৯৯ সালের ১৭ নভেম্বর ২১ ফেব্রুয়ারিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি দেয় ইউনেস্কো। এরপর থেকেই বিশ্বব্যাপী পালিত হয় দিনটি। ভাষা শহীদদের প্রতি এই শ্রদ্ধানুষ্ঠান ভাবগাম্ভীর্য ও শান্তিপূর্ণভাবে পালনের লক্ষ্যে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকেই কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারসহ পুরো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়।




Comments are closed.



পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯  
All rights reserved © shirshobindu.com 2024