রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ০৫:৩৮

গোয়েন্দা নজরদারিতে যুক্তরাষ্ট্রের মুসলমান

গোয়েন্দা নজরদারিতে যুক্তরাষ্ট্রের মুসলমান

এখানে শেয়ার বোতাম
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

বোস্টন ম্যারাথনে বোমা হামলায় আবারও যুক্তরাষ্ট্রে মুসলমানদের জীবনে নেমে আসছে নতুন সংকট। এটা যেন নতুন খড়গ উদয় হলো আমেরকিায় বসবাসরত মুসলমানদের জন্য। এখন থেকে মুসলমান কমিউনিটিতে অব্যাহত নজরদারি আসছে। যুক্তরাষ্ট্র হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভের বর্তমান ‘কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ইন্টেলিজেন্স’ বিষয়ক সাবকমিটির চেয়ারম্যান ও হোমল্যান্ড সিকিউরিটি কমিটির সাবেক চেয়ারম্যান পিটার কিং স্বয়ং এই প্রস্তাব দিয়েছেন।

কংগ্রেসম্যান পিটার কিংয়ের এই বক্তব্য বিশেষ করে মুসলমানসহ বিভিন্ন মহলে বিতর্কের জন্ম দিলেও বাস্তবতায় যুক্তরাষ্ট্রের জনগণের  নিরাপত্তার বিষয়টিই সরকারের কাছে সর্বাগ্রে গুরুত্বপূর্ণ। নাইন ইলেভেনের বর্বোরোচিত সন্ত্রাসী হামলার পর বোস্টন ম্যারাথনে বোমা হামলার ঘটনা আবারও নতুন করে সমগ্র যুক্তরাষ্ট্রকেই কাঁপিয়ে তুলেছে। আর সে কারণেই যুক্তরাষ্ট্রে মুসলমানদের মধ্যে আবারও আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে।

নিউইয়র্ক থেকে নির্বাচিত রিপাবলিকান দলীয় কংগ্রেসম্যান পিটার কিং বলেছেন, “পুলিশকে উপলব্ধি করতে হবে, মুসলমান কমিউনিটি থেকেই হুমকি আসছে। পুলিশকে মুসলিম সম্প্রদায়ের ওপর নজরদারি বাড়াতে হবে।” তিনি আরও বলেন, “অনেকদিন ধরেই আমি মুসলিম উগ্রবাদের কথা বলে আসছি। পুলিশকে কমিউনিটির অভ্যন্তরে প্রবেশ করতে হবে এবং যত বেশি সম্ভব কমিউনিটির ভেতরে পুলিশের ‘সোর্স’ তৈরি করতে হবে।”

সম্প্রতি, প্রভাবশালী সংবাদ মাধ্যম ‘ন্যাশনাল রিভিউ’-কে দেওয়া সাক্ষাতকারে এ সব কথা বলেন তিনি। পিটার কিং বলেন, “রাজনৈতিক শুদ্ধতার কাছে আমরা বাধা পড়তে পারি না। আমি মনে করি, যে সব কমিউনিটি থেকে হুমকি আসছে, সে সব কমিউনিটিতে আরও পুলিশ প্রয়োজন, আরও নজরদারি প্রয়োজন। তা বিপথগামীদের আইরিশ কমিউনিটি (নিউইয়র্ক সিটির আইরিশ-আমেরিকান গ্যাং) ইটালিয়ান মাফিয়া কমিউনিটি অথবা ইসলামিক টেরোরিজমের মুসলমান কমিউনিটিই হোক।” কংগ্রেসম্যান পিটার কিং আরও বলেছেন, “বোস্টনের বোমা হামলাই প্রমাণ করে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ শেষ হতে আরও বাকি।” তিনি তার বক্তব্যের সমর্থনে নতুন তথ্য উপস্থাপনে জোর দিয়ে বলেন, “অনেকেই ভীত সন্ত্রস্ত যে, কোনোরকম ‘ক্রিমিনাল রেকর্ড’ ছাড়াও যে কেউ নিউইয়র্ক সিটিতে হামলায় সফল হতে পারে।” তিনি বলেন, “হামলার আগে গোয়েন্দাদের নজরদারিতে কোনো রকম আশঙ্কা বৃদ্ধির সংকেত ছাড়াই সন্ত্রাসীরা ভেতর থেকেই হামলা চালাতে পারে।” কংগ্রেসম্যান পিটার কিং বলেন, “নতুন আশঙ্কা অবশ্যই অভ্যন্তরীণ এবং আমরা আমাদের প্রতিরক্ষাকে ভেঙে পড়ে যেতে  দিতে পারি না।” সামাজিক ব্যবসায়ীরা যে কোনো ধরনের সন্দেহজনক কেনাকাটা, বিশেষ করে বিস্ফোরণ কাজে ব্যবহৃত হতে পারে, তেমন দ্রব্যাদির অধিক পরিমাণে ক্রয় সম্পর্কে পুলিশকে অবহিত করবে। এমনটাই দেখতে চান কংগ্রেসম্যান পিটার কিং।

উল্লেখ্য, বোস্টনের ম্যারাথনে বোমা হামলায় ৮ বছরের শিশুসহ তিনজনের প্রাণহানি ও ১৭২ জন আহত হন। এই ঘটনার পর নিউইয়র্ক সিটিতে বাড়তি সতর্কতা হিসেবে পুলিশের সন্ত্রাস বিরোধী ইউনিটের এক হাজার সদস্যকে নিয়োজিত করা হয়েছে। কংগ্রেসম্যান পিটার কিংয়ের মতে, কেবল নগন্য কয়েকজন পুলিশ কর্মকর্তা এ কাজে পর্যবেক্ষণের দায়িত্ব পালন করছেন।

বোস্টনের বোমা হামলায় জড়িত সন্দেহের দুই সহোদর তামেরলান সারনেভ ও জোক্খার সারনেভের সঙ্গে চেসনিয়ার সম্পৃক্ততা রয়েছে। কংগ্রেসম্যান পিটার কিং বলেছেন, “এর অর্থ, সন্ত্রাসবিরোধী যুদ্ধে এটা একটি নতুন ফ্রন্টও হতে পারে।” তিনি বলেন, “যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে চেচনিয়ান কমিউনিটি থেকে হামলার সূত্রপাত হয়নি। সুতরাং, সে বিবেচনায় এটা একটা নতুন ফ্রন্ট তৈরি হয়েছে।” ইমিগ্রেশন নীতিমালা ঢেলে সাজানোর উদ্যোগে বোস্টনের বোমা হামলার ঘটনা কোনো প্রভাব ফেলবে না বলেও তিনি উল্লেখ করেন। বোস্টনের বোমা হামলায় সাধারণ মানুষের প্রাণহানি ঘটেছে এবং সাধারণ মানুষই এর ভুক্তভোগী। এ হামলার অন্য কোনো উদ্দেশ্য নেই উল্লেখ করে কংগ্রেসম্যান পিটার কিং বলেন, “ঘটনাটি এমন নয় যে, তারা সরকারি নিদর্শন উড়িয়ে দিতে চেয়েছে, যেখানে একই সঙ্গে সাধারণের প্রাণহানি ঘটেছে।”

 


এখানে শেয়ার বোতাম
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  






পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  
All rights reserved © 2021 shirshobindu.com