সোমবার, ২১ জুন ২০২১, ০৪:৫৪

ঋণ জালিয়াতি: সোনালী ব্যাংকের ৪ কর্মকর্তাকে দুদকে জিজ্ঞাসাবাদ

ঋণ জালিয়াতি: সোনালী ব্যাংকের ৪ কর্মকর্তাকে দুদকে জিজ্ঞাসাবাদ

/ ৭ বার পড়া হয়েছে
প্রকাশ কাল : বুধবার, ১ মে, ২০১৩

স্বদেশ জুড়ে ডেস্ক: অবৈধপন্থায় পারটেক্স গ্রুপকে ঋণ দেওয়ার অভিযোগে সোনালী ব্যাংক বঙ্গবন্ধু এভিনিউ কর্পোরেট শাখার চার কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টা থেকে বেলা সাড়ে ৫টা পর্যন্ত তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে দুদকের উপপরিচালক এস এম এম আখতার হামিদ ভূঁইয়ার নেতৃত্বে একটি টিম। এর আগে গত বুধবার অনুসন্ধান কর্মকর্তা ও দুদকের উপপরিচালক এস এম এম আখতার হামিদ ভূঁইয়া স্বাক্ষরিত এক নোটিশে ১২ কর্মকর্তাকে তলব করা হয়। তার মধ্যে মঙ্গলবার পাঁচজনকে এবং আগামী বৃহস্পতিবার সাতজনকে জিজ্ঞাসাবাদে হাজির হতে বলা হয়।

তাদের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগে বলা হয়, বিদেশ থেকে অপরিশোধিত চিনি আমদানির নামে রাষ্ট্রায়ত্ত সোনালী ব্যাংকের ১৩৬ কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছে পারটেক্স গ্রুপের প্রতিষ্ঠান পারটেক্স সুগার মিলস লিমিটেড। এলসির বিপরীতে ৩০ হাজার টন অপরিশোধিত চিনি আমদানি করলেও তা বিক্রি করে কোনও টাকা ব্যাংকে জমা করেনি প্রতিষ্ঠানটি। এতে ব্যাংকের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ ওঠে বিএনপিদলীয় সাবেক সংসদ সদস্য এমএ হাশেমের মালিকানাধীন এ প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে।

এ বিষয়ে জানতে মঙ্গলবার যাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে তারা হলেন- সোনালী ব্যাংক বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউ করপোরেট শাখার দুই সিনিয়র অফিসার শেখ মো. ফজলুল হক ও বিশ্বম্ভর কুমার নাথ, এক্সিকিউটিভ অফিসার বিপ্লব ভূষণ বক্সি এবং এজিএম মোজাম্মেল হক খান। এছাড়া এজিএম মো. আনিসুজ্জামানকে মঙ্গলবার জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য তলব করা হলেও তিনি দুদকের জিজ্ঞাসাবাদে হাজির হননি।

আরো নথিপত্র সূত্রে জানা যায়, বিদেশ থেকে অপরিশোধিত চিনি আমদানির নামে ২০১১ সালে মাত্র ৭ কোটি ৪২ লাখ টাকার এফডিআরের বিপরীতে (১৮০ দিন বিলম্বে পরিশোধের ভিত্তিতে) বঙ্গবন্ধু এভিনিউ শাখায় ১৫০ কোটি টাকার দু’টি এলসি খোলে পারটেক্স সুগার মিলস লিমিটেড। এলসির বিপরীতে ৩০ হাজার টন অপরিশোধিত চিনি আমদানি করলেও তা বিক্রি করে কোনও টাকা ব্যাংকে জমা করেনি।

সূত্র আরো জানায়, ১৫০ কোটি টাকার এলসি খোলার আগেও পারটেক্স গ্রুপের ২২ কোটি টাকা অনিয়মিত দায় ছিল। ব্যাংকের নিয়মানুযায়ী অনাদায়ী থাকাকালে নতুন কোন এলসি খোলা যায় না। এত কিছুর পরও সৃষ্ট পেমেন্ট এগেইনস্ট ডকুমেন্ট (পিএডি) শ্রেণিভুক্ত করে এফডিআর সমন্বয় করার পরও পারটেক্স সুগার মিলসের কাছে সোনালী ব্যাংকের পাওনা দাঁড়ায় ১৩৬ কোটি টাকা।

এ সকল অভিযোগের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার যাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে তারা হলেন-  সোনালী ব্যাংক বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউ করপোরেট শাখার সাবেক ও বর্তমানে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য অর্থায়ন বিভাগের ডিজিএম মেজবাহ উদ্দিন, প্রধান কার্যালয়ের শিল্প প্রকল্প অর্থায়ন বিভাগের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ অফিসার মো. শাহ আলম, এক্সিকিউটিভ অফিসার মো. ইসমাইল, দুই এজিএম আবুল কালাম মো. ইসহাক ও সুখেন্দু বিকাশ সাহা, সাবেক ডিজিএম মেজবাউল হক ও বর্তমানের ডিজিএম তারিকুল ইসলাম চৌধুরী।

 

 






পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  
All rights reserved © 2021 shirshobindu.com