রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ০৪:৫৪

নির্বাচিতদের মাধ্যমেই অন্তর্বর্তী সরকার গঠিত হবে

নির্বাচিতদের মাধ্যমেই অন্তর্বর্তী সরকার গঠিত হবে

এখানে শেয়ার বোতাম
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

স্বদেশ জুড়ে: নির্বাচনকালের অন্তর্বর্তীকালীন সরকার গঠিত হবে নির্বাচিত প্রতিনিধিদের মাধ্যমে। তাদের দিক-নির্দেশনায় নির্বাচন কমিশন একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন জাতিকে উপহার দেবে বলে বিদেশী কূটনীতিক ও উন্নয়ন সহযোগীদের আশ্বস্ত করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. দীপুমনি। গতকাল সন্ধ্যায় ঢাকায় আবাসিক মিশন কিংবা স্থায়ী অফিস রয়েছে এমন প্রায় অর্ধশত প্রতিনিধিদের অংশ নেয়া পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে জরুরি ব্রিফিংয়ে তিনি সরকারের এ কঠোর অবস্থানের কথা জানান।

বিদেশী বন্ধু-উন্নয়ন সহযোগীদের সঙ্গে গত দু’মাসে তৃতীয়বারের মতো অনুষ্ঠিত এ ব্রিফিংয়ের শুরুতেই এ সংক্রান্ত একটি ভিডিও চিত্র তুলে ধরা হয়। অনেক সময় নিয়ে দীর্ঘ বক্তৃতা করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তার বক্তব্যে হেফাজতে ইসলামের সামপ্রতিক কর্মকাণ্ড, বিএনপি’র নেতৃত্বাধীন ১৮দলীয় জোটের আন্দোলন সংগ্রাম, রাজপথের সহিংসতা, প্রধানমন্ত্রীর সংলাপ আহ্বানের জবাবে বিরোধী নেত্রীর ৪৮ ঘণ্টার আলটিমেটামের সমালোচনা এবং আগামী নির্বাচন প্রশ্নে জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক সমপ্রদায়ের ঐকমত্যে পৌঁছানোর আহ্বানের বিষয় স্থান পায়।

আসন্ন জাতীয় নির্বাচন নিয়ে বক্তৃতায় মন্ত্রী তার সরকারের অবস্থান স্পষ্ট করেন। তিনি বলেন, আদালতের রায়ে এবং দীর্ঘ সংসদীয় প্রক্রিয়ায় নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা সংবিধান থেকে বাদ পড়েছে। তা আর ফিরিয়ে আনার কোন সুযোগ নেই। সরকার কিংবা বিরোধী কেউই আদালতের রায় অগ্রাহ্য করতে পারে না। বিভিন্ন ইস্যুতে আলোচনা হলেও রাষ্ট্রদূতরা সাভার ট্র্যাজেডি ও নির্বাচনকালীন ব্যবস্থা নিয়েই বেশি আগ্রহ দেখিয়েছেন বলে জানা গেছে।

মূলত গত ৫ই মে শাপলা চত্বরে হেফাজতে ইসলামের অবস্থানকে কেন্দ্র করে সৃষ্ট রাজনৈতিক অস্থিরতা নিয়ে আয়োজিত এ বিফ্রিংয়ে মার্কিন রাষ্ট্রদূত ড্যান মজিনা, বৃটিশ হাইকমিশনার রবার্ট গিবসন, ইউরোপীয় ইউনিয়নের রাষ্ট্রদূত উইলিয়াম হানা ও জাতিসংঘের আবাসিক প্রতিনিধি নিল ওয়াকার উপস্থিত থাকতে না পারায় তারা প্রতিনিধি পাঠিয়েছেন।

মন্ত্রীর বক্তৃতা শেষ হওয়ার পর কূটনীতিকদের প্রশ্ন আহ্বান করা হলে  উন্মুক্ত সেশনে কানাডার হাইকমিশনার হিদার ক্রুডেন, জার্মান রাষ্ট্রদূত আলবেক্ট কনৎসে এবং ইতালি ও ইইউ’র প্রতিনিধি চারটি প্রশ্ন উত্থাপন করেন- তারমধ্যে বিশেষ প্রশ্নগুলো  দেশের সাম্প্রতিক মৃত্যুর ঘটনা নিয়ে, সাভার ট্র্যাজেডির পর রাজপথের সহিংসতা, হেফাজতের ঢাকা অবরোধে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সাঁড়াশি অভিযানের ঘটনাগুলো সামগ্রিকভাবে দেশের ভাবমূর্তির ওপর কি প্রভাব ফেলছে তা-ও জানতে চান এক কূটনীতিক।

এর মধ্যে একজন রাষ্ট্রদূত সামপ্রতিক পরিস্থিতি সম্পর্কে জানাতে বিদেশী মিশনগুলোর সক্রিয় করার পরামর্শ দেন। অপর একজন রাষ্ট্রদূত গার্মেন্ট রফতানি ২০ ভাগ হ্রাস পাবে বলে আশঙ্কা করেন। দিপু মনি তার বক্তৃতায় পুনরুল্লেখ করেই প্রশ্নগুলোর জবাব দেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ব্রিফিংয়ে জাতিসংঘের সংলাপ ও সমঝোতার উদ্যোগের বিষয়টিও উঠে আসে। মন্ত্রী বলেন, জাতিসংঘ দূতের সঙ্গে আলোচনায় সরকারের অবস্থান স্পষ্ট করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীসহ সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ের আলোচনায় বর্তমান সংবিধানের আলোকে নির্বাচিত প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে অন্তর্বর্তী সরকার গঠনের চিন্তার বিয়ষটি তুলে ধরা হয়েছে।

এক সপ্তাহের সফরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী গতকাল রাতেই ঢাকা ছেড়েছেন। সফরের বিশেষ উদ্দেশ্য জাতিসংঘ মহাসচিবের সঙ্গে তার বৈঠকের কথা রয়েছে। আগামীকাল জাতিসংঘ মহাসচিবের সঙ্গে বৈঠকেও তার বিস্তারিত তুলে ধরবেন বলে জানান দীপু মনি। আগামী নির্বাচন প্রশ্নে সংলাপের বিকল্প নেই উল্লেখ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বিরোধী দল তাদের আহ্বানের জবাবে আলটিমেটাম দিচ্ছে। তারা বিভিন্ন ধরনের উস্কানি দিচ্ছে। সংলাপের আহ্বানে বিরোধীরা যত দ্রুত সাড়া দেবে সহিংসতা থেকে তত তাড়াতাড়ি মুক্তি পাওয়া যাবে বলে দাবি করেন দীপুমনি। আসন্ন নির্বাচনকে গ্রহণযোগ্য করতে যে আন্তর্জাতিক সহযোগিতাকে সরকার স্বাগত জানাবে এবং সব সময় দরজা উন্মুক্ত থাকবে বলেও অঙ্গীকার করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

 

 


এখানে শেয়ার বোতাম
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  






পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  
All rights reserved © 2021 shirshobindu.com