বুধবার, ২৩ জুন ২০২১, ০৬:৫২

আরিফকে নয় অন্য কাউকে মেয়র প্রার্থী চায় সিলেট বিএনপি

আরিফকে নয় অন্য কাউকে মেয়র প্রার্থী চায় সিলেট বিএনপি

/ ৬ বার পড়া হয়েছে
প্রকাশ কাল : বুধবার, ২২ মে, ২০১৩

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

শীর্ষবিন্দু নিউজ: আসন্ন সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের আর খুব বেশি সময় হাতে নেই। সময় একদম ঘনিয়ে এসেছে। এর মধ্যে সিলেট বিএনপির একক প্রার্থী নিয়ে জটিলতা এখনও কাটেনি। দলের কেন্দ্রিয় ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মবিন চৌধুরী সিলেট অবস্থান করছেন দলীয় প্রার্থী ঘোষণায় এবং নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নিতে।

প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী বিএনপি’র চার মেয়র প্রার্থীর সাথে আলাদা আলাদা বৈঠক করেছেন দলের এই বীর বিক্রম। প্রতিদ্বন্দ্বিুাকারী চার প্রার্থী হলেন মহানগর বিএনপির সাবেক সভাপতি আরিফুল হক চৌধুরী, মহানগর বর্তমান সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাইয়ূম জালালী পংকী, সিনিয়র সহ সভাপতি নাসিম হোসাইন এবং স্বেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি এডভোকেট শামসুজ্জামান জামান। সিলেট অবস্থানরত শমসের মবিন সোমবার সন্ধ্যায় ও মঙ্গলবার দুপুরে এ চার প্রার্থীর সাথে পৃথক মতবিনিময় করলেও কোন সিদ্ধান্ত জানাননি। সাক্ষাৎকালে নাসিম, পংকী ও জামান সবাই তাদের বক্তব্যে, তিন জনের মধ্যে থেকে একজনকে প্রার্থী দেয়ার ব্যাপারে অনড়। বিষয়টি  নিয়ে তারা তিনজন শমসের মুবিন চৌধুরীর সাথে আলাপ করলে শমসের মবিন সামগ্রিক পরিস্থিতি অবহিত হন। তাই বিভিন্ন মত পার্থক্য থাকায় কোন চুড়ান্ত সিধ্ধান্তে পৌছাতে পারেন নি তিনি। সিলেট মেয়র প্রার্থী নিয়ে খুবই জটিল আকার ধারণ করায় শেষ পর্যন্ত জানা যায়, এ ব্যাপারে দলের চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার সাথে আলাপ-আলোচনা করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত জানানো হবে।

সিলেট বিএনপি আরিফকে মেয়র প্রার্থী হিসেবে দেখতে চায় না মন্তব্য করে দলের সিলেট মহানগর সহ-সভাপতি ও মেয়র প্রার্থী নাসিম হোসাইন জানান, তার কারণেই আজ সিলেটে বিএনপির সাংগঠনিক অবস্থা অত্যন্ত নাজুক। তাকে ছাড়া অন্য যে কাউকেই মনোনয়ন দিলে আপত্তি নেই। আরিফ বিএনপির অনেক ক্ষতি করেছেন উল্লেখ্য করে তিনি বলেন,  সাধারণ জনগণও এটা জানেন। তাই জনগণের পক্ষ থেকেও দাবি উঠেছে, আমাদের তিনজনের ভেতর থেকে যেন একজনকে মেয়রপ্রার্থী করা হয়। কিন্তু কেন্দ্র থেকে যদি আরিফকে মেয়র প্রার্থী ঘোষণা করা হয় তাহলে সিলেট বিএনপির মূলধারা মেয়র নির্বাচনে আরিফের পক্ষে কাজ করবে না। নির্বাচনী প্রচারণায় কেউ মাঠে থাকবে না।  ফলে সিলেটের মেয়র বিএনপির হাতছাড়া হয়ে যাবে। তাই আমরা আশা করছি- জনগণের দাবি ও অনুভূতি বিবেচনায় নিয়ে সিলেটে মেয়র প্রার্থী ঘোষণা করা উচিত। আমার বিশ্বাস- দলের হাইকমান্ড সঠিক সিদ্ধান্ত নেবেন।

নাসিম আরো বলেন, মেয়র প্রার্থী নিয়ে মতোপার্থক্য রয়েছে আমাদের মধ্যে। কিন্তু বিএনপিতে কোনো বিভাজন নেই। আশা করছি, খুব শিগগিরই এ সমস্যার সমাধান হবে। বর্তমানে বিএনপির ‍চারজন প্রার্থী মাঠে আছি আমরা। তবে দলের পক্ষ থেকে এখন একজন হওয়ার চেষ্টা করছি। আশা করি একটা ঐক্যমত্যে পৌছে আমরা সর্বশক্তি নিয়ে নির্বাচনী মাঠে নামবো এবং বিজয় ছিনিয়ে আনবো। বিএনপির অপর দুই প্রার্থী সামসুজ্জামান জামান এবং আব্দুল কাইয়ুম জালালী পংকী ব্যক্তিগতভাবে আমাকে জানিয়েছেন যে, দল আমাকে মনোনয়ন দিলে তারা বসে যাবেন। গত রোববার বিএনপির এক সভায় সম্মিলিতভাবে সিদ্ধান্ত হয়েছে, সিলেট বিএনপি আরিফকে মেয়র প্রার্থী হিসেবে দেখতে চায় না।

দলের হাইকমান্ড থেকে সিলেট সিটি নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী হিসেবে তিনি নিজেকে প্রস্তুত বলে মনে করে নাসিম বলেন, সিটি নির্বাচনে বিএনপির ঐক্যবদ্ধ থাকা প্রয়োজন। মাঠের রাজনীতি যারা করছেন তাদেরই প্রার্থী হওয়া উচিত। মেয়র কামরানের প্রতি নগরজুড়ে অসন্তোষ এমন অভিযোগ করে তিনি বলেন, একঘন্টার বৃষ্টিতে নগর ডুবে যায় পানির নিচে। রাস্তাঘাটে যত্রতত্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকে ময়লা আবর্জনা। নগরীর প্রধান পয়েন্ট বন্দরবাজার পেপার পয়েন্টে রাতে  শুকর চড়ে বেড়ায়। পৃথিবীর কোন সভ্য দেশে এমন দৃশ্য দেখা যায় না। তাই মেয়র হিসেবে তিনি পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছেন। সিলেট নগরীকে তিনি একটি ‘যানজট ও জলাবদ্ধতার’ নগরীতে পরিণত করেছেন। সামান্য বৃষ্টি হলেই নগরীর গুরুত্বপূর্ণ জায়গাগুলোতে হাঁটু পর্যন্ত পানি জমে। নৌকাও চলে। জলাদ্ধতার ময়লা-পানি মানুষের বাড়িঘর ও দোকানপাট এবং ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে প্রবেশ করে। দীর্ঘ সময় এই পানি নামতে চায় না। এই হচ্ছে সদ্য সাবেক মেয়র কামরানের সাফল্য। তাই আশা করছি সিলেটের শান্তিপ্রিয় জণগণ তাদের আশা আকাংকার প্রতিফলন ঘটাতে আমাকেই বেচে নেবেন।

 






পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  
All rights reserved © 2021 shirshobindu.com