বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১, ০৯:৪৮

অনিশ্চিয়তায় মহাজোটের শরিক দল জাতীয় পার্টি

অনিশ্চিয়তায় মহাজোটের শরিক দল জাতীয় পার্টি

এখানে শেয়ার বোতাম
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

 

ক্ষমতাসীন মহাজোটের অন্যতম শরিক জাতীয় পার্টি ফের ভাঙ্গনের মুখে পড়ছে রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের ধারনা। রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষেত্রে দলটির চেয়ারম্যান জেনারেল হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ যে কৌশল নিয়েছেন তাতে নেতাকর্মীদের মধ্যে প্রচন্ড ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। আর প্রেক্ষিতে রাজনৈতিক জোট গঠনের ব্যাপারে তাদের মধ্যে বিভক্তি স্পষ্ট হচ্ছে। বিষয়টি উপলব্ধি করতে পেরেই হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ নিজেও এখন মহাজোট থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে বের হয়ে আসতে চান।

বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, পার্টির ৪১ প্রেসিডিয়াম সদস্যের মধ্যে ৩০ জনের অধিক বিএনপির সঙ্গে রাজনৈতিক সমঝোতায় আগ্রহী। ২৭ এমপির মধ্যে অধিকাংশই এ পক্ষে রয়েছেন। রওশন এরশাদের নেতৃত্বে কাজী জাফর আহমেদ, এডভোকেট কাজী ফিরোজ রশীদ, ব্রিগেডিয়ার মাহামুদ হাসান, এসএম আলম, মোস্তফা জামাল হায়দার, জাহাঙ্গীর মোহাম্মদ আদেল,  গোলাম হাবিব দুলাল, গোলাম মসিহ, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, মশিউর রহমান রাঙ্গা, সোলেমান আলম শেঠ, এমএ হান্নান, এসএম আব্দুল মান্নান,  গোলাম কিবরিয়া টিপু, লিলি চৌধুরী, সালমা ইসলামসহ আরো একাধিক নেতা বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোটে যাওয়ার পক্ষে। এছাড়া যুবসংহতি, ছাত্রসমাজ, স্বেচ্ছাসেবক পার্টি, মহিলা পার্টি, কৃষক পার্টি, শ্রমিক পার্টিসহ সবগুলো অঙ্গসংগঠনের নেতারা মহাজোট ছেড়ে দেয়ার পক্ষে।

তবে মহাজোট থেকে বের হয়ে বিএনপির সঙ্গে রাজনৈতিক সমঝোতা করবে নাকি, আপাতত একাই পথ চলবে তা নিয়ে দ্বিধাদ্বন্দ্বে রয়েছেন তিনি। কিন্তু স্ত্রী রওশন এরশাদসহ দলের একাধিক নেতা  মহাজোট থেকে বের হয়ে তৃতীয় কোনো জোট না করে বিএনপির সঙ্গে রাজনৈতিক সমঝোতা করে সরকারবিরোধী আন্দোলনে নামতে আগ্রহী। তবে এরশাদের ভাই বাণিজ্যমন্ত্রী জিএম কাদের, ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, নাসিম ওসমান, জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, মুজিবুল হক চুন্নু এমপিসহ কয়েকজন প্রেসিডিয়াম সদস্য মহাজোট থেকে বের না হতে এরশাদকে চাপে রেখেছেন বলে এরশাদের ঘনিষ্ঠ সূত্র জানিয়েছে। তবে এ  বিষয় নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতেই নাকি স্ত্রী রওশান এরশাদকে নিয়ে দীর্ঘ এক দশক পর সিঙ্গাপুর সফরে গেছেন।

সিঙ্গাপুর সফর শেষে দেশের ফেরার পর যে কোনোদিন মহাজোট থেকে বের হয়ে আসার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিতে পারেন এরশাদ। এমনটাই মনে করছেন জাপা নেতারা।
আওয়ামীপন্থি বলে পরিচিত জাপার এক প্রেসিডিয়াম সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেছেন, হঠাৎ করে স্যার (এরশাদ) কেন রওশন এরশাদকে নিয়ে সিঙ্গাপুর গেলেন তা নিয়ে আমাদের মধ্যে যথেষ্ট কৌতূহলের সৃষ্টি হয়েছে। সিঙ্গাপুর থেকে ফিরে যদি তিনি সত্যিই মহাজোট থেকে বের হয়ে আসার ঘোষণা দেন, তাহলে তা পুরো পার্টির জন্য বুমেরাং হতে পারে। এমনকি আমরা অনেকেই স্যারের সঙ্গে নাও থাকতে পারি। জানা গেছে, এরশাদ যদি মহাজোট থেকে বের হয়ে আসার ঘোষণা দেন তাহলে জাতীয় পার্টি আবারো ভেঙ্গে যাবে। সেক্ষেত্রে ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, নাসিম ওসমান ও মুজিবুল হক চুন্নুসহ কয়েকজন জাপা নেতা আওয়ামী লীগে যোগ দিতে পারেন।
এ ব্যাপারে দলের মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার  জানিয়েছেন, আমরা তো এখনও মহাজোটে আছি। তবে আমাদের পার্টির চেয়ারম্যান বলেছেন জাতীয় পার্টি আগামী নির্বাচনে এককভাবে অংশ নেবে, তাই যথাসময় জাপা মহাজোট ছাড়বে।

প্রেসিডিয়াম সদস্য এসএমএম আলম বলেছেন, জাপার মধ্যে অধিকাংশ প্রেসিডিয়াম সদস্য মহাজোটের বিপক্ষে। এছাড়া  তৃণমূলের নেতাকর্মীরাও চান না স্যার (এরশাদ) মহাজোটে থাকুক। সে কারণে মহাজোট থেকে বের হয়ে যাওয়া এখন সময়ের ব্যাপার। মহাজোট থেকে বের হয়ে গেলে দল ভাঙ্গনের মুখে পড়বে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে আলম বলেন, স্যারের (এরশাদ) নেতৃত্বের বাইরে গিয়ে যদি কেউ জাপা গঠন করতে চায়, তাহলে সে জাপাকে জনগণ কিভাবে গ্রহণ করে তা তো আনোয়ার হোসেন মঞ্জুকে দেখেই বুঝা যায়।

 


এখানে শেয়ার বোতাম
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  






পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  
All rights reserved © 2021 shirshobindu.com