বিনোদন

১৪ বছরে পা রাখছে চ্যানেল আই

শুধু টেলিভিশন নয়, ‘বাঙালির চেতনার বাতিঘর’ স্লোগান নিয়ে ১লা অক্টোবর ১৪ বছরে পা রাখছে বাংলা ভাষার প্রথম ডিজিটাল স্যাটেলাইট চ্যানেল ‘চ্যানেল আই’। দীর্ঘ ১৩ বছরের পথপরিক্রমার পর ১৪ বছরে পদার্পণ উপলক্ষে গতকাল চ্যানেল আই ভবনে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে চ্যানেল আই’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর এবং পরিচালক ও বার্তা প্রধান শাইখ সিরাজ আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেছেন, বিগত ১৩ বছর সবার সহযোগিতা ও ভালবাসা নিয়ে চ্যানেল আই সাফল্যের সঙ্গে পথ চলেছে। চ্যানেল আই’র সব গৌরবময় সাফল্যের অংশীদার পুরো বাঙালি জাতি। তাই তো আমরা ‘বাঙালি চেতনার বাতিঘর’ স্লোগানকে বুকে ধারণ করে নতুন বছরটাও চলতে চাই। আপনাদের সাংবাদিক সমাজের ভালবাসা অব্যাহত থাকবে এটাই আমাদের প্রত্যাশা। সংবাদ সম্মেলনে ফরিদুর রেজা সাগর বলেন, এই সংবাদ সম্মেলনে অনেকেই উপস্থিত আছেন, যারা গত ১৩ বছর ধরে আমাদের চ্যানেল আই’র সঙ্গে সম্পৃক্ত। তাদের পরামর্শ এবং গঠনমূলক সমালোচনা আমাদের পথপ্রদর্শক হিসেবে কাজ করেছে। আমরা আরও সহযোগিতা ও পরামর্শ চাই। চাই গঠনমূলক সমালোচনা। শাইখ সিরাজ বলেন, ১৩ বছর আগে আমরা যখন চ্যানেল আই’র প্রচার শুরু করি তখন আমাদের লক্ষ্য ছিল একটাই, সেটা হলো- এই চ্যানেল যেন সবার চ্যানেল হয়। সবাই যাতে এখানে এসে কথা বলতে পারে। এটি যেন বাংলাদেশ চ্যানেল হয়। তার জন্য আমরা আমাদের স্লোগান ঠিক করি ‘আমার চ্যানেল আই’। তিনি বলেন, ১৪ বছরের দ্বারপ্রান্তে এসে আমরা এখন বলতে পারি চ্যানেল আই’র অনেক কিছুই অন্যরা অনুসরণ করছে। শাইখ সিরাজ বলেন, চ্যানেল আই’র জন্মদিন উপলক্ষে আমরা নানা বিষয়ে ৯টি সেমিনার করেছি। প্রতিটি সেমিনারে সমস্যা, তার সমাধান থেকে শুরু করে সামাজিক
দায়বদ্ধতা ফুটে উঠেছে। আগামীতে হয়তো অনেক চ্যানেলই তাদের জন্মদিন উপলক্ষে এমন সেমিনারের আয়োজন করবে বলে আশা করছি। শাইখ সিরাজ বলেন, এখন চ্যানেল আই একটি শক্ত জায়গায় দাঁড়াতে পেরেছে। হাজারও রঙের ভিড়ে লাল সবুজের বীজ আমরা বুনতে পেরেছি। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে ফরিদুর রেজা সাগর বলেন, আমরা চাই চ্যানেল আই’র শাখা-প্রশাখা বৃদ্ধি পাক। আমরা আই সিনেমা, আই মিউজিক, আই স্পোর্টস, আই কৃষি ইত্যাদি শাখা চালু করার ইচ্ছা রাখি। সরকারের কাছে আবেদনও করেছি। সরকার অনুমোদন দিলে অবশ্যই হবে। কারণ আমরা এখন বিশ্বাস করি, চ্যানেল আই’র নানা রকম শাখা-প্রশাখার খুব বেশি প্রয়োজন। ১লা অক্টোবর চ্যানেল আই’র জন্মদিন। রাত ১২টা ১ মিনিটে চ্যানেল আই’র ছাদে চ্যানেল আই পরিবারের সদস্যরা আমন্ত্রিত কিছু ব্যক্তিবর্গকে নিয়ে কেক কেটে জন্মদিনের সূচনা করবেন। তবে জন্মদিনের মূল অনুষ্ঠান শুরু হবে ১লা অক্টোবর সকাল ১১টায়। চ্যানেল আই ভবনে নির্মিত সুসজ্জিত বিশাল মঞ্চ থেকে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে জন্মদিনের অনুষ্ঠানমালার সূচনা করবেন রাজনীতিবিদ, কবি, সাহিত্যিক, শিল্পী, সাংবাদিক, গণমাধ্যম ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সহ চ্যানেল আই’র পরিচালনা পরিষদের সদস্যবৃন্দ। এ সময় মঞ্চ থেকে পরিবেশন করা হবে গান, নৃত্য, আবৃত্তি, স্মৃতিচারণ। মেলার মতো থাকবে বিভিন্ন ধরনের স্টল। কেকা ফেরদৌসীর রান্নাঘর থেকে মধ্যাহ্নভোজ এবং পান সুপারির স্টল থেকে আমন্ত্রিত অতিথিদের পান সরবরাহ করা হবে। সন্ধ্যা ৭টায় বিশাল কেক কাটবেন সরকারের মন্ত্রী পরিষদের বেশ কয়েকজন সদস্য, বিরোধী দলীয় নেতৃবৃন্দ, মহাজোট সরকারের শরিক দলের নেতৃবৃন্দসহ শিল্পী, সাহিত্যিক, কবি, সাংবাদিক, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিবর্গ। আকাশে ফোটানো হবে নানান বর্ণের আতশবাজি। চ্যানেল আই সকাল ১১টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত পুরো অনুষ্ঠানটি সরাসরি সমপ্রচার করবে।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

আরও দেখুন...

Close
ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close