বিনোদন

মম’র ম্যাজিক

মোশাররফ রুমী: শৈশবে ম্যাজিক মমকে খুব টানতো। এর মন্ত্রমুগ্ধতা তাকে ভাল লাগায় আচ্ছন্ন করতো দুর্নিবার। তাইতো কোন ম্যাজিশিয়ানের ম্যাজিক দেখা মানেই অপলকে তা উপভোগ করায় কোন ক্লান্তি থাকতো না মম’র। সে সঙ্গে অহর্নিশ স্বপ্নের জাল বোনা চলতো একজন ম্যাজিশিয়ান হওয়ার আকাঙক্ষায় ডুবে থেকে। মম’র সেই স্বপ্ন পূরণ হয়নি। তাতে কি! ম্যাজিক তার সঙ্গী হয়েছে ঠিকই। আর সে ম্যাজিক অভিনয়ের। একজন দুর্দান্ত অভিনেত্রী হিসেবে এই পর্দাকন্যা ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই অভিনয়ের জাদুতে আলো ছড়িয়ে চলেছেন দেশের শোবিজ মাধ্যমে। কি দর্শক, কি নির্মাতা- সব মহলেই মম’র এই অভিনয় ম্যাজিক দারুণ উপভোগের ঝড় তোলে। সেই প্রথম চলচ্চিত্র ‘দারুচিনি দ্বীপ’ থেকে শুরু করে এযাবৎ নিজের অভিনীত প্রতিটি নাটকেই মম তার অসাধারণ অভিনয় ম্যাজিকে দর্শক হৃদয়ে ভাল লাগার সুখ বিলিয়ে যাচ্ছেন অনিমেষ। এমনটার ধারাবাহিকতা মিলেছে এবারের ঈদুল আজহাতেও। অভিনয়ের ম্যাজিক দিয়ে এ ঈদে মম আবার নতুন আলো ছড়িয়েছেন। আর এ আলোর পরশে মিডিয়ার সর্বত্র এখন তার জন্য প্রশংসার তুমুল ঝড়। এবারের ঈদে নাটক-টেলিফিল্ম মিলিয়ে মম কাজ করেছেন বেছে বেছে ১০টি। আর সে ১০টি কাজই প্রচার হয়েছে বিভিন্ন টিভি চ্যানেলের ঈদ আয়োজনে। এগুলোর মধ্যে রয়েছে একুশে টিভির ‘জান্নাত এক্সপ্রেস’, ‘ফুচকা’, আরটিভির ‘দজ্জাল বউ’, মাছরাঙা টেলিভিশনের ‘হিয়ার মাঝে লুকিয়ে ছিলে’, চ্যানেল টুয়েন্টি ফোরের ‘শঙ্খচিল’, ‘আমি তুমি ও রাশিচক্র’ প্রভৃতি। এসবের প্রতিটি নাটকেই মম ক্যামেরাবন্দি হয়েছেন ভিন্ন ভিন্ন চরিত্রে। যে সবের একটির সঙ্গে অন্যটির ধরন, গেটআপ-মেকআপ আর গভীরতায় লক্ষ্য করা গেছে বিস্তর ফারাক। এ প্রসঙ্গে মম বলেন, আমি আসলে সব সময়ই চেষ্টা করি গল্পের গভীরতা, চরিত্রের বৈচিত্র্য আর গেটআপ-মেকআপে একটু ভিন্ন কিছু আছে তেমন নাটক-টেলিফিল্মে অভিনয় করতে। আর এ কারণে আমার অভিনীত যে কোন নাটক-টেলিফিল্মেই নতুন এক মমকে খুঁজে পান দর্শক। এবারের ঈদেও তার ব্যত্যয় ঘটেনি। আরও বেশ কিছু ঈদ নাটক-টেলিফিল্মের অফার ছিল। কিন্তু চরিত্র মিলে যাওয়াতে সেসবে আমি কাজ করিনি। তাই এবার ঈদের ১০টি নির্মাণে দর্শক ভিন্ন ভিন্ন ১০ রূপে আমাকে পেয়েছেন। আমিও চেষ্টা করেছি যথার্থভাবে আমাকে উপস্থাপন করতে। কতটুকু পেরেছি সেটার বিচার দর্শকদের কাছে। এ বিচার সম্পর্কে আপনি কি কিছু জানতে পারেননি- এমন প্রশ্নের জবাবে মম বলেন, পেরেছি। প্রতিটি নির্মাণই প্রচার হওয়ার পর প্রশংসাপূর্ণ প্রচুর ফোন পেয়েছি। সামনাসামনি যার সঙ্গে দেখা হয়েছে তার কাছ থেকেও ভাল লাগার অনুভূতিই জানতে পেরেছি। বরাবরের মতো এবারের ঈদেও অন্য অনেক অভিনেত্রীকেই দেখা গেছে অভিনয়ের পাশাপাশি বিভিন্ন অনুষ্ঠান উপস্থাপনা, গান করা, নাচের পারফরমেন্স করা কিংবা বিভিন্ন তারকা আড্ডায় অংশ নিতে। মম ছিলেন এসব কিছুরই বাইরে। শুধু অভিনেত্রী হিসেবেই ঈদের টিভি আয়োজনে উপস্থিত হয়েছেন তিনি। কেন জানতে চাইলে বলেন, তেমন কোন কারণ নেই। ব্যাটে-বলে মেলেনি। এছাড়া অভিনয়ে যথার্থভাবে মনোযোগ দিতে গিয়েই অন্য আর কিছু করা হয়ে ওঠেনি। সামনের পরিকল্পনা জানতে চাইলে মম বলেন, তেমন কোন পরিকল্পনার ছক এঁকে আমার পথচলা হয়ে ওঠে না। নিয়মিত কাজ করে যাবো এবং অবশ্যই তা ভাল মানের আর দর্শক পছন্দকে মাথায় রেখে। উল্লেখ্য, বর্তমানে মম অভিনীত ধারাবাহিক নাটক ‘কামিনী’র প্রচার চলছে একুশে টিভিতে। নাটকের কেন্দ্রীয় চরিত্র ‘কামিনী’তে রূপদান করছেন তিনি। ইতিমধ্যে এ চরিত্রের রূপায়নে বেশ প্রশংসাও কুড়িয়েছেন মম। পরবর্তী কাজ সম্পর্কে এ অভিনেত্রী জানান, ডিসেম্বর থেকে তিনি ‘আসিন’ নামে একটি চরিত্রে পর্দায় আসছেন একই নামের একটি ধারাবাহিকের মাধ্যমে। জানালেন, এ চরিত্রেও মম’র ম্যাজিক দেখতে পারবেন দর্শক- এমনটাই প্রত্যাশা তার।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

আরও দেখুন...

Close
ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close