গ্যালারী থেকে

বিপিএলের টিকেট মুল্য নির্ধারণ

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে এক সংবাদ সম্মেলনে বিপিএল আয়োজনে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সহযোগী গেমস স্পোর্টস ম্যানেজমেন্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক অঞ্জন গাঙ্গুলী বলেন, গত বছর ৪৫ কোটি টাকায় শিহাব ট্রেডিং টিকেট স্বত্ব কিনেছিল যা কিনা ২০ কোটি টাকায় এবার অ্যাক্টিভ সার্ভিসেস কিনে নিতে সক্ষম হয়েছে।

এদিকে, অ্যাক্টিভ সার্ভিসে এর সিইও আসাদুর রহমান জানান, জনসাধারণের জন্য গ্যালারির দাম রাখা হয়েছে ৩৫০ টাকা। তবে এয়ারটেল গ্রাহক ও শিক্ষার্থীরা ৩০ শতাংশ ছাড়ে কিনতে পারবেন তাদের স্বপ্নের বিপিএল টিকিট যা মাত্র ২৪৫ টাকায় পাওয়া যাবে। তিনি আরো জানান, ভিআইপি গ্যালারি, হসপিটালিটি বক্স, কর্পোরেট বক্স ছাড়া অন্যসব টিকেটের ক্ষেত্রে এয়ারটেল ব্যবহারকারী ও ছাত্ররা ৩০ শতাংশ ছাড় পাবেন। একজন প্রতিদিনের সর্বোচ্চ দুটি টিকেট কিনতে পারবেন। ছোট শিশুদের জন্য কোন টিকিট না লাগলেও পাঁচ বছরের ওপরের শিশুদের জন্য টিকেট লাগবে। ১৩ জানুয়ারি থেকে টিকেট পাওয়া যাবে এয়ারটেলের আউটলেটগুলোয়। টুর্নামেন্টের টাইটেল স্পন্সর প্রাইম ব্যাঙ্কের সঙ্গে কথা চলছে, কালই (বুধবার) তাদের অনুমোদন পাওয়া যাবে আশা করছি।” এয়ারটেলের আউটলেটে ৩০ শতাংশ, ব্যাংকে ৩০ শতাংশ, অনলাইনে ১০ শতাংশ ও ভেন্যুতে ১০ শতাংশ টিকেট বিক্রি করা হবে। বিসিবিকে দেয়া হবে ২০ শতাংশ টিকেট।

টিকিটের মূল্য যথাক্রমে, কর্পোরেট বক্স টিকেট ৮ হাজার, ভিআইপি টিকেট ৫ হাজার টাকা,  ইন্টারন্যাশনাল গ্যালারির টিকেট ৩ হাজার টাকা, শহীদ মোশতাক ও শহীদ জুয়েল স্ট্যান্ডের টিকেট ২ হাজার টাকা, আর সবনিম্ন মূল্য ইস্টার্ন ও সাউদার্ন স্ট্যান্ডের টিকেট পাঁচশ টাকা  রাখা হয়েছে।

মাঠে দর্শক উপস্তিতি বাড়াতে প্রতিদিন খেলার পাশাপাশি  ‘ফেস অব দ্য ম্যাচ’ ও ‘ফ্যান অব দ্য ম্যাচ’ পুরস্কার দেয়া হবে। গ্রুপ পর্যায়ের প্রতি ম্যাচে লটারি করে টিভি ও ফ্রিজ দেয়া হবে। সেমিফাইনাল ও ফাইনালে দেয়া হবে মোট ৬টি মোটরসাইকেল। এজন্য ওয়ালটন তাদের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে সৌজন্যে পুরস্কার প্রদানে।

 

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

১ thought on “বিপিএলের টিকেট মুল্য নির্ধারণ”

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close