স্বদেশ জুড়ে

যারা ফাঁসিতে ঝুলাতে চেয়েছিল, বঙ্গবন্ধু তাদেরও আলোচনায় বাধ্য করেছিলেন

কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বীরউত্তম বলেছেন, জনগণকে বুঝাতে হবে যে তারা দেশের মালিক। মালিকানা ছেড়ে দিলে অধিকার পাওয়া যায় না। গণতান্ত্রিক রাজনীতিতে সংলাপ একটা মস্তবড় মাধ্যম। আলোচনা ছাড়া কিছুই হবে না।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলার আসামি ছিলেন। যারা তাকে ফাঁসিতে ঝুলাতে চেয়েছিল তাদেরকেও তিনি আলোচনায় বসতে বাধ্য করেছিলেন। কিন্তু আমাদের দুর্ভাগ্য যে দুই নেত্রী আলোচনার দিকে যাচ্ছেন না।

মানবজমিনকে দেয়া প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, দেশের মানুষ গণতান্ত্রিক একটা সমাধান চায়। তারা দুই নেত্রীর উপর বারবার আস্থা রাখছে। কিন্তু বড় দুই দল এবং দুই নেত্রীর কাছে আমরা কোন কার্যকর ভূমিকা পাচ্ছি না। এ থেকে উত্তরণের উপায় কি জানতে চাইলে তিনি বলেন, উত্তরণের উপায় আলোচনা। উত্তরণের উপায় সংগ্রাম।

বিরোধী দল যদি দেশের মানুষকে নিয়ে সংগ্রাম করে সেটাই সমাধান এনে দেবে। ছোট ছোট দলের কিংবা যারা ভাল কিছু প্রত্যাশা করছে তাদের কি কিছুই করার নেই? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আসলে ভালোরই জয় হবে। সময় অবশ্যই ভালোর পক্ষে আসবে। শুধু দেশের মানুষকে বুঝাতে হবে যে দেশটা তাদের। মালিকানা ছেড়ে দিলে হবে না।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close