অন্যান্য

আশি বছরে এভারেস্ট জয়

বয়সের ভারে নূহ্যমান মানুষ যখন শারীরিক ও মানসিক ক্ষমতার অনেকটাই হারিয়ে ফেলেন, তখন বাড়ির গণ্ডি পেরিয়ে বড়জোর বাইরে উঠোনে বা রাস্তায় খানিকটা হাঁটাহাঁটি করেন। যেখানে এভারেস্ট জয়ের দুঃসাধ্য দেখাতে প্রাণোচ্ছ্বলে ভরপুর তরুণরাও ভাবতে পারেন না সেখানে আশ্চর্য হলেও সত্য যে আশি বছর বয়সের  প্রবীণ পর্বতারোহী জাপানের নাগরিক ইউইচিরো মিউরা আজ ভোরে এভারেস্ট চূড়া জয় করে গড়লেন নতুন এক ইতিহাস।

সবচেয়ে বেশি বয়সে এভারেস্ট জয় করে রেকর্ড বুকে নাম লেখালেন স্বর্ণাক্ষরে। আর এবারই প্রথম নয়, এর আগেও দু’ বার এভারেস্টের সর্বোচ্চ শৃঙ্গ স্পর্শ করেছেন মিউরা। সে দুইবারও তরুণ বয়সে নয়, ৭০ ও ৭৫ বছর বয়সে। এ নিয়ে তৃতীয়বার এভারেস্ট জয় করলেন তিনি। ৪ বার হার্টে অস্ত্রোপচার হওয়া হার্টের সমস্যার রোগী মিউরা চূড়ায় উঠে স্যাটেলাইট ফোনে তার পরিবার ও সমর্থকদের বলেন, আমি এটা করতে পেরেছি। তবে আমি কখনোই কল্পনা করিনি ৮০ বছর বয়সে এভারেস্ট চূড়ায় উঠতে পারবো। যদিও আমি একেবারেই পরিশ্রান্ত, তারপরও এটা বিশ্বের সবচেয়ে বেশি ভাল লাগার অনুভূতি। কিন্তু চিরতরুণ এ প্রবীণের মনে যে অদম্য সাহস, তা প্রমাণের আর অপেক্ষা রাখে না। এদিকে নেপালের কর্মকর্তারাও মিউরার এভারেস্ট জয়ের খবর নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে এর আগে সবচেয়ে বেশি বয়সে এভারেস্ট জয়ের রেকর্ডটি ছিল নেপালের মিন বাহাদুর শেরচানের দখলে। শেরচান ৭৬ বছর বয়সে চূড়া স্পর্শ করেছিলেন। ৮০ বছর বয়সী প্রবীণ পর্বতারোহী জাপানের নাগরিক ইউইচিরো মিউরা এভারেস্ট চূড়া জয় করে নতুন এক ইতিহাস গড়ায় শেরচানও নতুন চ্যালেঞ্জ গ্রহণে পিছিয়ে থাকার পাত্র নন। মিউরার গড়া রেকর্ডকে ভাঙতে বর্তমানে ৮১ বছর বয়সী শেরচান আগামী সপ্তাহেই পুনরায় এভারেস্ট জয়ের অভিযানে নামবেন বলে জানা যায়।

সূত্র: বিবিসি

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close