Featuredঅন্যান্য

সকালের শুরুটা হোক…

 

 

 

 

 

 

 

 

কথায় আছে ‘সব ভাল যার, শেষ ভাল তার।’ কিন্তু এই শেষ ভাল করতে হলে শুরুটা চমৎকার হওয়া বাঞ্ছনীয়। দিনের শুরুটা যদি হয় ফুরফুরে মেজাজে তখনই সবকিছুতে মনযোগী হতে পারবেন আপনি। তাছাড়া কে না নিজের সেরাটা উপস্থাপন করতে চায়।তাই প্রস্তুতি নিয়েই শুরু করতে পারেন সুন্দর সকালটা।

সকালে উঠেই আপনি প্রার্থনা সেরে নিতে পারেন। এতে করে নিজের মধ্যে আত্মবিশ্বাস অনুভব করবেন। তাছাড়া সকালে ঘুম থেকে উঠেই আপনার মন অনেক সময়ই বিক্ষিপ্ত থাকে। প্রার্থনা করলে মনসংযোগে সুবিধা হয়। শরীর চর্চার আদর্শ সময় হচ্ছে সকাল। আপনার দেহের কলকব্জা সারাদিনের ধকল সামলাতে প্রস্তুত হয়ে ওঠে। শরীর সতেজ হয়ে ওঠে। আর এই সতেজতাই আপনাকে আত্মবিশ্বাস যোগায়। তাছাড়া ঘামের সাথে আপনার ত্বকও পরিষ্কার ও জীবাণূমুক্ত হয়ে ওঠে।

আপনাকে সকালে প্রথমেই হয়ত অফিসে ঢুকতে হবে। শুরু হবে কাজের চাপ। তাই ফ্রেশ লুকে সকাল শুরু করতে গোসল খুবই গুরুত্বপূর্ণ। চেহারা থেকে ক্লান্তি ঝেরে ফেলতে মানসম্মত ফেসিয়াল ক্লিনজার ব্যবহার করতে পারেন। ব্যস, সারাদিনের জন্য পেয়ে গেলেন ঝকঝকে চেহারা। তবে সারাদিনে চটজলদি ফ্রেসনেসের জন্য ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুতে পারেন। সবসময়ই আমরা শুরুর বিষয়টাকে গুরুত্ব দিয়ে থাকি। আর আমাদের খাদ্যগ্রহণের শুরুটাও হয় প্রাতঃরাশ দিয়ে। তাই শক্তিবর্ধক প্রাতঃরাশ অপরিহার্য।

উচ্চ প্রোটিনসম্পন্ন খাবারের পাশাপাশি আমিষও স্থান যোগ হতে পারে আপনার নাস্তার তালিকায়। ডিম, ইয়োগার্ড, ফল, দুধ। তাড়া থাকলে ফল ও দুধ একসাথে ব্লেন্ড করে নিতে পারেন। বাঙালী এখনও সুগন্ধি ব্যবহারকে শৌখিনতা বলে ভাবতে ভালবাসে। কিন্তু আপনার ব্যক্তিত্ব অনুযায়ী সুগন্ধী একটি বড় জায়গা জুড়ে থাকে। সুগন্ধী শুধু নিজের ব্যবহারের জন্য নয় নিজেকে সাবলিল উপস্থাপনেও সাহায্য করে ব্যক্তিত্বের সাথে মানানসই সুগন্ধী।

সবশেষের প্রস্তুতি হল আপনার পোশাক। রাতেই ঠিক করে রাখতে পারেন সকালে কি পরে বেরোবেন। এতে করে সকালে তোলপাড় করে খুঁজতে হবে না। তবে যদি মনে করেন পোশাকের ব্যাপারে মনযোগী না হলেও চলবে, তবে সেটা ভুল। কারণ আপনার পোশাকের উপর আপনার ব্যক্তিত্ব থেকে শুরু করে মানসিকতা সবকিছুই নির্ভর করে। পোশাক দামি হতে হবে এমন কোন কথা নেই। পোশাক যাতে নোংরা বা উগ্র না হয়। গরমের দিনে অফিসের পোশাকের জন্য প্যাস্টেল শেড বাছাই করুন। যারা এয়ারকন্ডিশনড এনভায়রনমেন্টে কাজ করেন না, তাদের জন্য সুতি পোশাকই ভাল। কারণ সুতি কাপড় সহজেই ঘাম শুষে নেয়। ভাজহীন পরিষ্কার কাপড় পরা উচিত। প্রতিদিন একই কাপড় না পরাই ভাল। জুতা এবং ব্যাগের রং কাছাকাছি শেডের মধ্যে বাছুন।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close