অন্যান্য

জন্মেই রেকর্ড!

 

 

 

 

 

 

 

 

 

নিউজ ডেস্ক: তার জন্মটাই অন্যরকম। সে জন্ম নিয়েই একটি রেকর্ড করে ফেলেছে। নাম লেখিয়েছে গিনিস বুক অব ওয়ার্ল্ডে। ইউরোপের সবচেয়ে ভারী শিশুকন্যা হিসেবে জন্ম নিয়ে এ রেকর্ড করেছে শিশুটি। এ শিশুটির নাম রাখা হয়েছে জাসলিন।

ঘটনাটি জার্মানির। কয়েকদিন আগে দেশটির একটি হাসপাতালে জন্ম নেয় জাসলিন। জন্মের পর ডাক্তাররা জাসলিনের ওজন মাপতেই অবাক হয়ে গেলেন। ২২.৬ ইঞ্চি লম্বা সদ্যজাত শিশুটি ওজন ছিল ১৩.৪৭ পাউন্ড (৬ কিলো)।

গিনিস বুক অব ওর্য়াল্ডের রেকর্ড অনুযায়ী, জাসলিনই এখন প্রাকৃতিকভাবে জন্ম নেওয়া ইউরোপের সবচেয়ে ভারী ও লম্বা কন্যাশিশু। জেসলিন এবং তার মা এখন বেশ ভালোই আছেন।

বিশ্বের সবচেয়ে ভারী শিশু হিসেবে জন্ম নিয়ে গিনিস বুক অব ওর্য়াল্ডে নাম লেখিয়েছেন কানাডার আনা বেটিস। ১৮৭৯ সালে জন্ম নেওয়া ওই শিশুটির ওজন ছিল ২৩ পাউন্ড। কানাডায় জন্ম নেওয়া সেই শিশুটির রেকর্ড এখনও অক্ষত।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close