কিচিরমিচির

ঘড়িটা

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

সুজন বড়ুয়া:

ঘড়িটা দুষ্ট ভারি

শোনে না আমার কথা

বলি রোজ আস্তে চলো

সে চলে তাড়াতাড়ি।
আমি তো এত্তটুকু

পড়ি এই কেলাস টু-তে

সাথে তার দৌড়ে পারি

পারি কি তাকে ছুঁতে?
আমার সে কত্ত পড়া

ইংরেজি বাংলা সমাজ

পরিবেশ পরিচিতি

চারুপাঠ নামতা ছড়া।

 

যখনই পড়তে বসি

পড়াটা শেখার আগেই

ঘড়িটা ঘণ্টা বাজায়

আমাকে দেয় থামিয়ে।

 

পরীক্ষার দিনে যেন

আরও তার জোর বেড়ে যায়

যত না দ্রুতই লিখি

পারি না পাল্লা দিয়ে।

 

সকালের মিষ্টি ঘুমে

আমি যেই স্বপ্ন দেখি

ঘড়িটা ডেকে ডেকে

করে কান ঝালাপালা।

 

মা তুমি চেনো নাকি

ঘড়িটার মা-বাবাকে

দাও তো ফোন নাম্বার

আমি ঠিক নালিশ দেব।

 

ঘড়িটার কেমন সাহস

আমাকে জ্বালায় কেবল

দুচোখের সামনে থেকে

করে সে সময় চুরি।

 

মা তুমি নিজেই বলো

ঘড়িটার কেমন সাহস

ঘড়িটার কেমন সাহস

ঘড়িটার কেমন সাহস…

 

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

আরও দেখুন...

Close
ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close