ব্রিকলেন টু জিন্দাবাজার

নৌ দুর্ঘটনা এড়াতে ট্র্যাকিং ডিভাইস তৈরী করেছে শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

শীর্ষবিন্দু সিলেট: দুর্ঘটনা কবলিত নৌযানকে সহজেই ট্র্যাকারের মাধ্যমে চিহ্নিত করতে নিয়ন্ত্রন কক্ষ থেকে সহজেই অবস্থান জেনে  নৌযান উদ্ধার করা যাবে।  নৌ দুর্ঘটনা এড়াতে দেশীয় প্রযুক্তিতে জিপিএস নির্ভর এই ট্যাকিং ডিভাইস তৈরী করেছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা। ‘

দুর্ঘটনা কবলিত নৌযানে সাঁটানো বিষেশভাবে তৈরী ডিভাইস বিশেষ সেন্সরের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রন কক্ষে সংকেত পাঠাবে। সংকেত নিয়ন্ত্রনে কক্ষের সার্ভারে স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপলোড হবে। সার্ভার কো-অর্ডিনেটগুলো দুর্ঘটনা কবলিত নৌযানকে  সহজেই ট্র্যাকারের মাধ্যমে চিহ্নিত করে দেবে। আর সহজেই অবস্থান জেনে  নৌযান উদ্ধার করা যাবে। মুক্ত সফটওয়্যার এর আর্থিক সহযোগিতায় এবং ঐশী ইলেকট্রনিক্স এর কারিগরি সহায়তায় এই ডিভাইস তৈরী করা হয়। এর মাধ্যমে নিয়ন্ত্রন কক্ষ থেকে দুর্ঘটনা কবলিত নৌযানের অবস্থান নির্নয় সহজেই জানা যাবে বলে গবেষকরা জানিয়েছেন।

শাবিপ্রবির কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের  শিক্ষক রুহুল আমিন সজীব, পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের স্নাতকোত্তর শ্রেণীর শিক্ষার্থী সৈয়দ রেজওয়ানুল হক নাবিল ও কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের ছাত্র নওশাদ ডিভাইস তৈরীতে গবেষক হিসেবে কাজ করেন। গবেষক দলের নেতৃত্ব দেন ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক মুহম্মদ জাফর ইকবাল।

সম্প্রতি বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্পোরশেনের (বিআইডব্লিউটিসি) কাছে এই ডিভাইস হস্তান্তর করা হয়। দেশে প্রথমবারের মত এই প্রযুক্তি ব্যবহার করা হচ্ছে। চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে পরীক্ষামূলকভাবে একই ধরনের ট্র্যাকিং ডিভাইস ব্যবহার করা হচ্ছে শাবির শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের পরিবহন বাসে। ফলে সহজেই ইন্টারনেটের মাধ্যমে বাসের অবস্থান জানতে পারছেন শিক্ষার্থীরা।

 

 

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close