Featuredদুনিয়া জুড়ে

সিরিয়ায় রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারের প্রমাণ নেই

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

শীর্ষবিন্দু নিউজ ডেস্ক: সরকারি বাহিনীই যে রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করেছে তার কোনো প্রমাণ যুক্তরাষ্ট্রের কাছে নেই বলে দাবি করেছেন সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ। সোমবার প্রচারিতব্য মার্কিন সংবাদ সংস্থা পাবলিক ব্রডকাস্টিং করপোরেশনকে (পিবিএস) দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ দাবি করেন। পশ্চিমা বাহিনী হামলা করলে তার মিত্রবাহিনী পাল্টা জবাব দেবে বলেও হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

প্রেসিডেন্ট আসাদ বলেন, দামেস্কের ওই রাসায়নিক হামলায় তার সেনাবাহিনীই যে দায়ী এ কথা যুক্তরাষ্ট্রকে প্রমাণ করতে হবে।  আমি আমার নিজের জনগণের বিরুদ্ধে রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করেছি এমন কোনো প্রমাণ যুক্তরাষ্ট্রের কাছে নেই। অতএব সিরিয়ার সরকার নির্দোষ। আসাদ বলেন, যদি আমাদের রাসায়নিক অস্ত্র থাকতো তবে দেশের কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণ থাকতো আমাদের হাতেই।

আসাদ হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, পশ্চিমা বাহিনী যদি কোনো ধরনের হামলা চালায় তবে তার পক্ষের মিত্ররাও পাল্টা জবাব দেবে। রাশিয়া, চীন, ইরান ও লেবাননের সামরিক সংগঠন হিজবুল্লাহ সিরিয়া সরকারের ঘনিষ্ঠ মিত্র বলে খ্যাত।

প্যারিসে আরব লিগের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠক শেষে কেরি বলেন, আসাদের এই দুঃখজনক রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারের ঘটনা আন্তর্জাতিক চূড়ান্ত সীমা লঙ্ঘন করেছে। সোমবার বিকেলে যুক্তরাষ্ট্রে ফেরার আগে সকালে যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্রমন্ত্রী উইলিয়াম হেগের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন কেরি। অন্য দিকে অবকাশ শেষ করে মার্কিন পার্লামেন্ট কংগ্রেসের আইন প্রণেতারা সোমবার কার্যালয়ে ফিরছেন। ধারণা করা হচ্ছে পার্লামেন্টারিয়ানদের ফেরার পর সিরিয়ায় হামলার ব্যাপারে আলোচনা হবে কংগ্রেসে।

হোয়াইট হাউস যদিও রাসায়নিক অস্ত্র হামলার পেছনে আসাদ বাহিনীর জড়িত থাকার কোনো অকাট্য প্রমাণ হাজির করতে পারেনি, তবু মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দাবি করছে, গোয়েন্দাদের তথ্য উপাত্তে আসাদবাহিনীর জড়িত থাকার প্রমাণ রয়েছে। তবে আসাদের এই বক্তব্যের জবাবে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি বলেছেন, প্রমাণ তার নিজের পক্ষে কথা বলে। সিরিয়ায় হামলার ব্যাপারে ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও আরব দেশগুলোর সমর্থন পেতে জোর প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন কেরি। এ লক্ষ্যে চারদিনের ইউরোপ সফর করছেন তিনি।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close