Featuredদুনিয়া জুড়ে

রেকর্ড সংখ্যক ধর্ষণ মামলায় আলোচিত দিল্লি

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: বর্তমান সময়ে রেকর্ড সংখ্যক ধর্ষণ মামলায় আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে চলে এসেছে ভারত। ভারতের রাজধানী দিল্লিতে চলতি বছরের প্রথম আট মাসে ১১২১টি ধর্ষণের মামলা হয়েছে, যা গত ১৩ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ এবং ২০১২ সালের তুলনায় দ্বিগুণেরও বেশি। ন্যাশনাল ক্রাইম রিপোর্ট ব্যুরোর (এনসিআরবি) তথ্য অনুযায়ী  ২০১২ সালের ৩১ অগাস্ট পর্যন্ত ৪৬৮টি মামলা হয়েছিলো। এছাড়া ২০১১ সালে ৫৭২টি এবং ২০১০  সালে ৫০৭টি মামলা হয় বলে এনডিটিভি জানিয়েছে।

অবশ্য ধর্ষণের মামলা হওয়ার  বিষয়টিকে দিল্লি পুলিশ ইতিবাচক দৃষ্টিতেই দেখছে। পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়, এর অর্থ  এখন বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই মামলা হচ্ছে। গত ১৬ ডিসেম্বর দিল্লিতে চলন্ত বাসে  গণধর্ষণের ঘটনা ও ধর্ষিত ছাত্রীর মৃত্যুর পর থেকে ভারতে নারীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত  করতে বিভিন্ন পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। ওই ঘটনার প্রায় নয় মাস পর ১০ অগাস্ট আদালত আসামি বিনয় শর্মা, অক্ষয় ঠাকুর, পবন গুপ্ত ও মুকেশ সিংকে ধর্ষণ ও হত্যার অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত করে। শুক্রবার তাদের সাজা ঘোষণা হওয়ার কথা রয়েছে।

পুলিশের  একজন শীর্ষ কর্মকর্তা বলেন, আজকাল অভিযোগ বিস্তারিতভাবে রেকর্ড করা হয় এবং কোনো  রকম আপত্তি না তুলে শুধুমাত্র নারীদের অভিযোগের ওপর ভিত্তি করেই এফআইআর নথিভুক্ত  করা হয়। এই কারণে মামলার সংখ্যা ব্যাপক হারে বেড়েছে। কিন্তু আমরা এটাতে মোটেও হতাশ  হচ্ছি না। নারীর বিরুদ্ধে সহিংসতার যে সব অভিযোগ দিল্লি পুলিশ পেয়েছে তার  মধ্য শতকরা ৮০ ভাগ ক্ষেত্রে অভিযোগ করার এক সপ্তাহের মধ্যেই অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার  করা হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি।

তদন্তে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা গেছে পরিচিত  মানুষের দ্বারাই নারীরা হামলার শিকার হয়েছেন। যা ভুক্তভোগী নারীদের জন্য মামলা করার  ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় প্রতিবন্ধকতা। তাই যদি ধর্ষণের মামলার পরিমাণ বৃদ্ধি পায় তবে এর  অর্থ আমাদের প্রচেষ্টা ফল দিতে শুরু করেছে। নারীদের বিরুদ্ধে সংঘঠিত অপরাধ নথিভুক্ত  করার জন্য আমরা বিশেষ নারী সেলের ব্যবস্থা করেছি। কিন্তু সবকিছুর ওপরে আমাদের  সামাজিক সচেতনতা প্রয়োজন।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close