Featuredব্রিকলেন টু জিন্দাবাজার

নগরজুড়ে পুলিশের তল্লাশি: শঙ্কায় সিলেটের ব্যবসায়ীরা

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

শীর্ষবিন্দু নিউজ: সিলেটে আলোচিত স্বর্ণের মার্কেট বলে খ্যাত নেহার মার্কেটে ডাকাতির ঘটনায় সিলেটের ব্যবসায়ীদের মধ্যে শঙ্কা বিরাজ করছে। একই সঙ্গে ঘন ঘন ছিনতাই আর খুনের ঘটনায় তারা উদ্বিগ্ন। পুলিশের ওপর থেকেও ভরসা হারিয়ে ফেলার উপক্রম। এ অবস্থায় নিজেদের নিরাপত্তার স্বার্থে সিলেটে কঠোর আন্দোলনের চিন্তা-ভাবনা করছেন তারা।

আগামী মঙ্গলবার সিলেটে আসছেন প্রধানমন্ত্রী। এ কারণে ব্যবসায়ীরা কিছুটা স্তিমিত হলেও প্রধানমন্ত্রী ফিরে যাওয়ার পর সিলেটে তারা দুর্বার আন্দোলন শুরু করবেন। এমন তথ্য জানিয়েছেন সিলেটের ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠনগুলোর নেতারা।

তারা জানান, আন্দোলনের ধারাবাহিকতায় আজ তারা সিলেটে ৩ ঘণ্টা অবস্থান কর্মসূচি পালন করবেন। সিলেট ব্যবসায়ী ঐক্য কল্যাণ পরিষদের সভাপতি আলহাজ শেখ মকন মিয়া জানিয়েছেন, ডাকাতদের গ্রেপ্তার ও ব্যবসায়ীদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করাই এখন তাদের মূল দাবি। এ কারণে আজ সিলেট নগরীর কোর্ট পয়েন্টে তারা অবস্থান কর্মসূচি পালন করবেন। এদিকে, নেহার মার্কেটে ডাকাতির ঘটনায় সিলেটের ব্যবসায়ী নেতারা গতকাল সকালে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। বৈঠকে ব্যবসায়ী নেতারা ডাকাতদের গ্রেপ্তারে আন্দোলনে নামার ঘোষণা দিয়েছেন।

হঠাৎ করে সিলেটের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় নগরজুড়ে চলছে অভিযান। নগরীর মোড়ে মোড়ে বসানো হয়েছে চেকপোস্ট। আর এসব চেকপোস্টে চলছে তল্লাশি। পুলিশ এসব চেকপোস্টে অভিযান চালিয়ে গতকালও ৫ জনকে আটক করেছে বলে জানা গেছে। সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ জানিয়েছে, চেকপোস্ট বসিয়ে তল্লাশি করা হচ্ছে। এতে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি গত দুই দিনে বেশ স্বাভাবিক হয়েছে।

পুলিশ জানায়, নগরীর তালতলা পয়েন্টে অভিযান চালিয়ে তালিকাভুক্ত ছিনতাইকারী রাজু আহমেদকে গ্রেপ্তার করা হয়। সে বিশ্বনাথ উপজেলার বাইশঘরের ইসমত আলীর পুত্র। গ্রেপ্তারের পর রাজুর কাছ থেকে ১ রাউন্ড গুলিসহ ৬ চেম্বারবিশিষ্ট একটি রিভলবার ও নগদ ১ লাখ ১ হাজার ৫শ’ টাকা উদ্ধার করা হয়। তার ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটি (সিলেট-হ-১১-১৮৭৯) এ সময় আটক করে পুলিশ। সে বারুতখানায় বাটার বিক্রয় প্রতিনিধি হত্যা ও ছিনতাইয়ের ঘটনায় জড়িত বলে পুলিশ দাবি করেছে।

চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই বৃদ্ধির প্রতিবাদে গতকাল সকালে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে মানববন্ধন করেছে সিলেট কল্যাণ সংস্থা। এ সময় আয়োজিত সমাবেশে বক্তারা বলেন, সিলেট নগরীতে চুরি, ডাকাতি ও ছিনতাই মাত্রারিক্ত মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। কিন্তু তা প্রতিরোধে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ লক্ষ করছি না, যা সিলেটের ঐতিহ্য ও ভাবমূর্তিকে চরমভাবে ব্যাহত করছে এবং সিলেটের জনগণ চরম আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে দিন কাটাচ্ছে।

জেলা কমিটির সভাপতি মো. রেহান উদ্দিনের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক আজিজুর রহমান আজিজের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় দাবির প্রতি গুরুত্বারোপ ও একাত্মতা পোষণ করে বক্তব্য রাখেন সিলেট কল্যাণ সংস্থার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মো. জিয়াউর রহমান ও কার্যকরী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মো. হাসান তালুকদার সোহেল, মহানগর কমিটির সাধারণ সম্পাদক একে কামাল হোসেন, স্বাধীন সামাজিক সংগঠনের সভাপতি সিলেট কল্যাণ সংস্থা মহানগর কমিটির দপ্তর সম্পাদক মো. রাশেদুজ্জামান রাশেদ প্রমুখ।

সিলেটে ডাকাতি ও অপরাধপ্রবণতা বেড়ে যাওয়ায় অভিযান চালিয়ে ৮ ছিনতাইকারীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। দুই দিনের অভিযানে এদের গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতদের কাছ থেকে গুলিসহ রিভলবার ও নগদ ১ লাখ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। আটক করা হয়েছে দুটি মোটরসাইকেল। পুলিশ দাবি করেছে, গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে ছিনতাইকারী রাজু আহমেদ বারুতখানায় ছিনতাইয়ের ঘটনায় সরাসরি জড়িত।

পুলিশ বলছে, উদ্ধারকৃত টাকা বারুতখানায় ছিনতাই হওয়া টাকার অংশ। তার বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় অস্ত্র, ছিনতাইসহ বিভিন্ন অভিযোগে ৭টি মামলা রয়েছে। শুক্রবার ভোররাতে নগরীর আম্বরখানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে ২ ছিনতাইকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হচ্ছে- বালাগঞ্জ উপজেলার পূর্ব ধুপপুরের মবশ্বির আলীর পুত্র হেলাল (২৫) ও নগরীর কলবাখানীর মৃত আবদুস সাত্তারের পুত্র আবদুল মুমিন (২২)।

একই সময় আম্বরখানা পয়েন্ট থেকে মোহাম্মদ আলী (২৮) নামের আরেক ছিনতাইকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়। সে বালুচর এলাকার নূর মিয়ার পুত্র। তার বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় ছিনতাই ও চুরির মামলা রয়েছে। সুবিদবাজারের মিতালী এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৩ ছিনতাইকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হচ্ছে- সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের কাউকান্দি গ্রামের মৃত আবদুল হকের পুত্র আজিজুল হক (৩১), দক্ষিণ সুরমার বরইকান্দির সবুজ মিয়ার পুত্র জাকির (২৮) ও ছাতকের বাগবাড়ীর মৃত ব্যাঙ মিয়ার পুত্র তুতুবুর রহমান (৩০)। গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে জাকিরের কাছ থেকে একটি মোটরসাইকেল (সিলেট-হ-১২-৫৩২৮) উদ্ধার করা হয়।

আজিজুল হক ২০০৪ সালের জানুয়ারি মাসে সংঘটিত কালাম হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত আসামি। বিকালে চিহ্নিত ছিনতাইকারী রাজা মিয়াকে (২৭) বাগবাড়ী থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। সে সদর উপজেলার উমাইর গাঁওয়ের সাজ্জাদুর রহমানের পুত্র। তার বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় ৪টি মামলা রয়েছে। একই দিন রুবেল আহমদ (২২) নামের আরেক ছিনতাইকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়। সে তাহিরপুর উপজেলার মারালা গ্রামের মৃত অলি মিয়ার পুত্র। তার বিরুদ্ধে ছিনতাই ও পুলিশের ওপর হামলার অভিযোগে কোতোয়ালি থানায় মামলা রয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যা মহানগর পুলিশের এক প্রেসনোটে এসব তথ্য জানানো হয়।

মহানগর পুলিশের মুখপাত্র ও এডিসি (উত্তর) মুহাম্মদ আইয়ূব জানিয়েছেন, নগরীর অপরাধীদের গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। গত দু’দিনের অভিযানে এদের গ্রেপ্তার করা হয়। নগরীর জিন্দাবাজারে নেহার মার্কেটে ডাকাতির মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পরিবর্তন করা হয়েছে। মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব পেয়েছেন কোতোয়ালি থানার নবাগত ওসি আক্তার হোসেন। দায়িত্ব গ্রহণের পর রাতেই মামলার তদন্তের জন্য নবাগত ওসি আক্তার হোসেনকে তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়। দায়িত্ব গ্রহণের পরপরই ওসি আক্তারসহ পুলিশের একাধিক টিম ডাকাতদের সন্ধানে মাঠে ছিল। কিন্তু পুলিশ ডাকাতদের কোন সন্ধান পায়নি।

নেত্রকোনা থেকে গ্রেপ্তারকৃত আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সদস্য রিপুল মিয়াকে নিয়ে বিভিন্ন স্থানে পুলিশ অভিযান করলেও এখনও কোন সফলতা আসেনি। কোতোয়ালি থানার ওসি আক্তার জানিয়েছেন, পুলিশ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। দক্ষিণ সুরমার হবিনন্দী নয়াবাজারে ট্রাক দিয়ে ডাকাতির চেষ্টাকালে জনতার হাতে ৩ ডাকাত আটক হয়েছে। পরে তাদের গণধোলাইয়ের পর পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। আটককৃত ডাকাতরা হচ্ছে- কুমিল্লা জেলার গরনজা গ্রামের মৃত কিতাবর আলীর ছেলে দেলওয়ার (২৮), একই জেলার দেবীদ্বার উপজেলার আ. রাজ্জাকের ছেলে রিপন (২৫), মুরাদনগর গ্রামের কাশেমের ছেলে আনিস (২২)।

শুক্রবার ভোররাতে ট্রাকযোগে ৭-৮ জনের একটি সংঘবদ্ধ ডাকাত দল বাজারের দলা মিয়া মালিকাধীন ইত্যাদি স্টোরের সামনে ট্রাকটি রেখে ত্রিপল দিয়ে দোকানের সামনে ঢেকে শাটারের তালা ভেঙে দোকানে প্রবেশ করে। এ সময় লোকজন টের পেয়ে ডাকাতদের ধাওয়া করে। পরে ৩ জনকে ব্যাপক গণধোলাই দিয়ে মোগলাবাজার থানা পুলিশের হাতে সোপর্দ করেন তারা। গুরুতর আহত ৩ ডাকাতকে পুলিশ ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেছে।

 

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close