Featuredস্বদেশ জুড়ে

নেগেটিভ সংবাদ মিডিয়ার সাইকোলজিক্যাল প্রবলেম

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: শনিবার রাতে নিউ ইয়র্কে এক সাংবাদিক সম্মেলনে দেশের সংবাদমাধ্যমগুলোর কড়া সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্থানীয় সরকার নির্বাচনে সরকার সমর্থকদের পরাজয়ের জন্য মিডিয়ার নেতিবাচক প্রচারণাকে দায়ী করেছেন। ম্যানহাটানের হিলটন হোটেলের বলরুমে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ।

ক্ষমতাসীন দলের প্রভাবশালীরা মিডিয়ার মালিক হওয়া সত্ত্বেও এমন মন্তব্যের কারণ জানতে চাইলে গণমাধ্যমকে শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশের মিডিয়া এখন পুরো স্বাধীনতা ভোগ করছে। এছাড়া বাংলাদেশের মিডিয়াগুলো নেগেটিভ সংবাদকে বেশী গুরুত্ব দেয়ার কালচার তৈরী করেছে। এটি মিডিয়াগুলোর সাইকোলজিক্যাল প্রবলেম।

সাংবাদিক সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, গত ৫ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীদের বিপর্যয় ঘটার অনেক কারণের একটি হচ্ছে মিডিয়াগুলোর নেতিবাচক প্রচারণা। আমাদের উন্নয়ন-অগ্রগতির সংবাদ তেমন আসেনা। একটু খারাপ কিছু দেখলেই সবগুলো মিডিয়া সেটি ফলাও করে প্রচার করে।

এক প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, খালেদা জিয়া যদি যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের বিরুদ্ধে না দাঁড়ান, তাহলে সকল সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে খুব সহজে। চলমান রাজনৈতিক সংকট বিষয়ে প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন করার রীতি কাউকে না কাউকে চালু করতে হবে, সেটি আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট করে দেখাতে চায়। জামায়াত-শিবির নিষিদ্ধ করতে সরকার কালক্ষেপন করছে এমন প্রশ্নের উত্তরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিষয়টি কোর্টে রয়েছে। তারাই সিদ্ধান্ত দেবেন।

৩০ মিনিটের ভাষণে শেখ হাসিনা গত পৌণে  পাঁচ বছরে দেশের উন্নয়নের কথা প্রবাসীদের কাছে তুলে ধরে বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশে পরিণত করার লক্ষ্য ধার্য করেছিলাম। কিন্তু চলতি বছরই সেটি হয়েছে। যুদ্ধাপরাধীদের বিচারকাজ অব্যাহত রাখতে বিএনপিকে ভোট বিপ্লবে পরাজিত করতে হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনের পর প্রবাসীদের দেয়া এক নাগরিক সম্বর্ধনায় শেখ হাসিনা আসন্ন নির্বাচন আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট প্রার্থীদের বিজয়ী করতে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসীদের প্রতি আহ্বান জানান। অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগ নেতা তোফায়েল আহমেদ ও মহাজোট নেতা রাশেদ খান মেননসহ সফররত কয়েকজন সংসদ সদস্য ও স্থানীয় নেতারাও বক্তব্য রাখেন। সন্ধ্যায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান। সমাবেশ পরিচালনার দায়িত্বে ছিলেন সেক্রেটারী সাজ্জাদুর রহমান। আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর পাশে উপস্থিত ছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. দীপু মনি, বাংলাদেশ মিশনের ফার্স্ট সেক্রেটারি(প্রেস) মামুন-অর রশীদ।

 

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close