রাজনীতি

জনমনে আতঙ্ক তৈরি করতে সরকারের এই ধরনের পদক্ষেপ

শীর্ষবিন্দু নিউজ: ২৫শে অক্টোবরের পর দেশে সংঘাতময় পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে পারে- সরকার জনমনে এমন আতঙ্ক তৈরি করতে চাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। শুক্রবার সকালে নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা আলমগীর বলেন, ঈদের ছুটিতে  নেতাকর্মী ও কার্যালয়ের স্টাফরা বাড়িতে গেলে পুলিশ ২ দিন ধরে কার্যালয় ঘেরাও করে রেখেছে। গ্রেপ্তারের ভয়ভীতি সৃষ্টি করেছে জনমনে আতঙ্ক তৈরি করতে চাচ্ছে। দলীয় কার্যালয়ে নেতাকর্মীদের ঢুকতে না দেয়ার অভিযোগ করে তিনি বলেন, দলীয় কার্যালয়ে নেতা-কর্মীরা আসবেন, এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু তাদের আসতে দেয়া হচ্ছে না। এখনই যদি সরকারের অবস্থা এমন হয়; তাহলে তাদের অধীনে নির্বাচন  কেমন হবে বোঝা যায়।

তিনি বলেন, আমরা গত কয়েক মাসে সচেতনভাবেই কর্মসূচি দিয়েছি যাতে দেশে কোন ধরনের সংঘাত সৃষ্টি না হয়। কিন্তু সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনী দেশকে অনিশ্চয়তার দিকে নিয়ে যাচ্ছে। জাতির উদ্দেশে আজ সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ প্রদান প্রসঙ্গে মির্জা আলমগীর বলেন, আমরা আশা করি তিনি তার ভাষণে চলমান সংকট সমাধানের ব্যাপারে দিক-নির্দেশনা দেবেন।

সংলাপের পথ খোলা আছে প্রধানমন্ত্রীর এমন বক্তব্যের প্রসঙ্গে মির্জা আলমগীল বলেন, সরকার পার্লামেন্টে প্রস্তাব দেয়ার কথা বলছে। কিন্তু পার্লামেন্টে গেলে প্রস্তাব ভোটে যাবে এবং না হয়ে যাবে। কারণ আমরা সংখ্যায় কম। তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী আলোচনার ব্যাপারে আন্তরিক নন। তিনি একেকবার একেক কথা বলেন। তবে তত্ত্বাবধায়ক নিয়ে আলোচনার কথা বলেন না। বিএনপি এই সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বলে জানিয়ে দেন মির্জা ফখরুল।

সংলাপের পথ নিয়ে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময়কালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে মন্তব্য করেছেন, এ ব্যাপারে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর আরো বলেন, বিএনপি সংলাপের জন্য প্রস্তুত। যেকোনো জায়গায় যেকোনো সময় আলোচনায় বসতে চাই। আমরা সমঝোতা চাই। তবে সমঝোতার ব্যাপারে সরকারের কোনো আন্তরিকতা নেই বলে অভিযোগ করেন তিনি।

 

 

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close