রাজনীতি

ফোনের জন্য প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ: সংলাপ দিন হরতালের পর

শীর্ষবিন্দু নিউজ: মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরপ্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফোনে বিরোধী দল বিএনপি আশাবাদী বলে জানিয়েছেন দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। একই সঙ্গে তিনি প্রধানমন্ত্রীকে এ জন্য ধন্যবাদও জানান। আজ রোববার রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে তিনি সাংবাদিকদের কাছে এ আশা প্রকাশ করেন।

দিনভর অনেক নাটকীয়তার পর গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মুঠোফোনে বিরোধীদলীয় নেতা খালেদা জিয়ার সঙ্গে কথা বলেছেন। প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনকালীন সরকারব্যবস্থা নিয়ে আলোচনার জন্য বিরোধীদলীয় নেতাকে ২৮ অক্টোবর গণভবনে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। জবাবে খালেদা জিয়া বলেছেন, তাঁদের জোটের হরতাল কর্মসূচি থাকার কারণে ২৮ অক্টোবর নয়, ২৯ অক্টোবরের পর যেকোনো দিন তিনি সংলাপে বসতে প্রস্তুত আছেন।

তবে ফোনালাপে প্রধানমন্ত্রীর অনুরোধ সত্ত্বেও বিরোধীদলীয় নেতা হরতাল প্রত্যাহার করেননি। বরং হরতালের আগেই গতকাল সকাল থেকে রাত পর্যন্ত রাজধানীতে বেশ কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণ এবং গাড়ি পোড়ানোর ঘটনা ঘটেছে। ফলে কয়েক দিন ধরে জনমনে যে আতঙ্ক ও উত্কণ্ঠা বিরাজ করছে, শেষ পর্যন্ত তা কাটেনি।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে অবশ্যই ধন্যবাদ জানাতে চাই। অনেক দেরিতে হলেও টেলিফোন করার ফলে মনে করি আলোচনা শুরু হতে পারে। আমাদের কর্মসূচি শেষ করে অর্থাৎ ২৯ তারিখের পর যেকোনো সময় এই সংলাপ হতে পারে। আমরা অত্যন্ত আশাবাদী এ সংলাপটি হয়তো হবে।

ফখরুল বলেন, সংলাপর উদ্যোগ সরকারকেই নিতে হবে। এ ক্ষেত্রে বিএনপির দাবি স্পষ্ট। নির্বাচনকালীন নির্দলীয়-নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের বিষয়ে আলোচনা হতে হবে। হরতাল প্রত্যাহার করা হবে কি না—এমন প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, সরকারের আচরণের ওপর নির্ভর করছে হরতাল প্রত্যাহার করা হবে কি না। তিনি বলেন, যেই সময়ে ফোন করা হয়েছে, সে সময়টা ছিল অত্যন্ত স্বল্প। আমাদের পক্ষে সম্ভব ছিল না যাঁরা আমাদের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট, তাঁদের সঙ্গে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়ার। এটাকে অজুহাত হিসেবে দেখানোটা সঠিক হবে বলে আমি মনে করি না।

 

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close