Featuredআলোচিতরাজনীতি

মঞ্জুরে‘র জেপির পর এবার নির্বাচনে যাবে তরীকত

শীর্ষবিন্দু নিউজ: ১৪ দলীয় জোটের বাইরে আনোয়ার হোসেন মঞ্জুর নেতৃত্বাধীন জাতীয় পার্টির (জেপি) পর তরীকত ফেডারেশনও সর্বদলীয় সরকারের অধীনে আগামী নির্বাচনে অংশ নেয়ার ঘোষণা দিয়েছে। মঙ্গলবার আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪ দলের সঙ্গে বৈঠকের পর নির্বাচন কমিশনে নিবন্ধিত দলটির চেয়ারম্যান সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভাণ্ডারী এই ঘোষণা দেন।

ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভনেত্রীর কার‌্যালয়ে ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান মল্লিকের সভাপতিত্বে ১৪ দল এবং তরীকত ফেডারেশনের বৈঠক হয়। বৈঠকে ১৪ দল নেতাদের মধ্যে ছিলেন আওয়ামী লীগের খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, আহম্মদ হোসেন, গণতন্ত্রী পার্টির শহীদুল্লাহ শিকদার, কমিউনিস্ট কেন্দ্রের ওয়াজেদুল ইসলাম খান প্রমুখ। চেয়ারম্যান নজিবুল বশরের সঙ্গে তরীকত ফেডারেশনের মহাসচিব এম এ আউয়ালসহ দলটির শীর্ষ পর্যায়ের নেতারা বৈঠকে অংশ নেন।

সর্বদলীয় সরকার ও নির্বাচনে অংশ নিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে বৈঠক করছেন। তবে তাদের মহাজোটের সঙ্গী জাতীয় পার্টি এখনো এই বিষয়ে স্পষ্ট ঘোষণা দেয়নি। বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোটের বিরোধিতার মধ্যেই নির্বাচনকালীন সর্বদলীয় সরকারের পথে এগোচ্ছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। বিএনপি নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন চায়।

সর্বদলীয় সরকার গঠনের তোড়জোড়ের প্রতিক্রিয়ায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গত সপ্তাহে বলেছিলেন, কথিত সর্বদলীয় সরকারের ১৪ দলই থাকবে। আর সম্ভবত আনোয়ার হোসেন মঞ্জুর দল থাকতে পারে। সোমবার ১৪ দলের সঙ্গে বৈঠক করে নির্বাচনে অংশ নেয়ার ঘোষণা দেন আনোয়ার হোসেন মঞ্জু। এরপর তরীকতের ঘোষণা এল।

থেকে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে তারা। নজিবুল বশর সাংবাদিকদের বলেন, আমরা জামায়াত-শিবির-হেফাজতের তাণ্ডবের বিরুদ্ধে আন্দোলন করছি। আন্দোলনের অংশ হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সর্বদলীয় সরকারের অধীনে আগামী নির্বাচনে আমরা অংশ নেব।

এক সময় চট্টগ্রামের ফটিকছড়িতে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন নজিবুল বশর। পরে আবার বিএনপির টিকিটে নির্বাচন করেছিলেন তিনি। এরপর নতুন দল তরীকত ফেডারেশন গঠন  করেন। সম্প্রতি তরীকত ফোডারেশনের একটি রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সম্প্রতি হাই কোর্ট জামায়াতে ইসলামীর নিবন্ধন অবৈধ ঘোষণা করেছে। এর ফলে বিএনপির জোট শরিক দলটির নির্বাচনে অংশগ্রহণ অনিশ্চিত।

 

 

 

 

 

 

তরীকতকে ‘অসাম্প্রদায়িক ধর্মীয় মূল্যবোধ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী’ দল অভিহিত করে আওয়ামী লীগ নেতা মোহাম্মদ নাসিম সাংবাদিকদের বলেন, “নিজেদের অবস্থান থেকে তারা নির্বাচনে অংশ নেবে।

“একই সঙ্গে বিএনপি-জামায়াত-হেফাজতের চক্রান্ত ও নৈরাজ্য রুখতে ১৪ দলের সঙ্গেও মাঠে থাকবে তারা।”

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close