Featuredদৈনন্দিন জীবন

শীতে ব্লেজার জ্যাকেট

হাসান ইমাম |

শুধু একটা পাতলা টি-শার্ট বা ক্যাজুয়াল শার্ট পরার দিন প্রায় গেল। গরম কাপড় চাই এই সময়ে। তবে গরম কাপড় মানেই মোটা কাপড় না। হালকা-পাতলা গরম কাপড়ই পছন্দ এই সময়ের তরুণদের। আর তাই দেখা মিলছে পাতলা কাপড়ের ব্লেজার আর জ্যাকেটের।ক্যাজুয়াল বা ফরমাল—দুই উপলক্ষেই চলবে এমন ব্লেজারক্যাজুয়াল বা ফরমাল—দুই উপলক্ষেই চলবে এমন ব্লেজার
ফ্যাশন হাউস ওটুর প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা জাফর ইকবাল বলেন, ‘শুধু জিনস আর টি-শার্ট তো এই সময়ে চলবে না, এখন চাই একটা বাড়তি পোশাক জ্যাকেট বা ব্লেজার। তরুণদের চাহিদা মাথায় রেখে জ্যাকেট বা ব্লেজারেও এসেছে পরিবর্তন। ব্লেজারের কাপড়, কাট-ছাঁট, বেতাম, রং ইত্যাদি বিষয়ে এবার বৈচিত্র্যের ছোঁয়া লেগেছে বেশি। জিনস, চামড়া, সুতির বাইরে এবার নতুন এসেছে মখমলের জ্যাকেট বা কোট।’
আমাদের দেশে খুব কম সময়ের জন্যই জাঁকানো শীত পড়ে। তাই মাথা থেকে পা পর্যন্ত নিজেকে শীতের পোশাকে মুড়িয়ে রাখাটা পছন্দ করেন না ফ্যাশন-সচেতন তরুণেরা। অনেকেই ভেতরে একটা টি-শার্ট বা শার্ট পরে তার ওপরে পরেন ব্লেজার। তাই সেটা পাতলা হলেও ওম থাকে শরীরে।
বাজারের হালচালবোতামের ব্যবহারে আর নকশায় এসেছে বৈচিত্র্যবোতামের ব্যবহারে আর নকশায় এসেছে বৈচিত্র্য
পুরোদস্তুর আনুষ্ঠানিক ব্লেজার নয়, ক্যাজুয়াল ব্লেজারই বেশি চলছে বাজারে। চামড়ার জ্যাকেটে আছে নানা রঙের খেলা। ইস্পাতের বোতামের ব্যবহার জ্যাকেটগুলোকে আরও আকর্ষণীয় করে তুলেছে। চামড়ার এক রঙের জ্যাকেট ছাড়াও আছে চেকের নকশার জ্যাকেট। কোনোটিতে আবার কাপড়ের সঙ্গে চামড়ার ব্যবহার করা হয়েছে। এ ছাড়া ডেনিম কাপড়ের তৈরি নানা ধরনের ব্লেজার চলছে এবারও। মখমলের নকশা করা ব্লেজার এসেছে এবার। জ্যাকেট ও সেমি-স্যুট ধাঁচের এসব মখমলের পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে বেছে নিতে পারেন উজ্জ্বল রঙের প্যান্ট। একের ভেতর দুই অর্থাৎ অফিসে পরা যায় আবার বাইরে কোনো পার্টিতেও ঠিকমতো মানিয়ে যায়, এমন ব্লেজার কিনছেন অনেকে। জ্যাকেট বা ব্লেজারের ভেতরে আগে একটা সাধারণ কাপড় ব্যবহার করা হতো। কিন্তু এবার সেখানে নকশার অংশ হিসেবেই দেখা যাচ্ছে বৈচিত্র্যময় কাপড়।
সেমিস্যুট ধাঁচের ব্লেজারও চলছেসেমিস্যুট ধাঁচের ব্লেজারও চলছেদরদাম
চামড়ার জ্যাকেট কেনা যাবে ২০০০ থেকে ৬০০০ টাকায়। ব্লেজারের দাম পড়বে ১৮০০ থেকে ৪৫০০ টাকা, গ্যাবার্ডিন কাপড়ে তৈরি ব্লেজারের দাম পড়বে ১২০০ থেকে ৩০০০ টাকা, রেইনকোটে যে ধরনের কাপড় ব্যবহার হয় তেমন চকচকে পানিরোধী উপাদানে তৈরি পাতলা জ্যাকেটের দাম পড়বে ২০০০ থেকে ৩৫০০ টাকা, মখমলের ব্লেজারের দাম পড়বে ৪০০০ থেকে ৬০০০ টাকার মধ্যে, মোটা সুতি কাপড়ের ব্লেজারের দাম ৫০০০ টাকার মধ্যে। খাদি কাপড়ের তৈরি ব্লেজারগুলোর দাম শুরু ১২০০ থেকে।
যেখানে কেনা যাবে
রাজধানীর ফ্যাশন হাউস ওটু, আর্টিস্টি, ফ্রিল্যান্ড, ক্যাটস আই, একস্ট্যাসি, স্মার্টেক্স, প্লাস পয়েন্ট, তানজিম স্ট্রিট, ইনফিনিটিসহ বিভিন্ন দোকানে পাবেন এগুলো। এ ছাড়া ঢাকার বসুন্ধরা সিটি শপিং কমপ্লেক্স, নিউমার্কেট, বঙ্গবাজার, ইসলামপুর, বদরুদ্দোজা সুপার মার্কেট, প্রিন্স প্লাজাসহ বিভিন্ন শপিং মলে পাওয়া যাবে ব্লেজার বা জ্যাকেট।

ক্যাজুয়াল বা ফরমাল—দুই উপলক্ষেই চলবে এমন ব্লেজার

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close