রাজনীতি

সর্বদলীয় সরকারে যোগ দেয়া জাপা মন্ত্রীদের পদত্যাগপত্র পেয়ে কি করবেন প্রেসিডেন্ট?

শীর্ষবিন্দু নিউজ: জাতীয় পার্টির মন্ত্রীদের পদত্যাগ সিদ্ধান্ত নতুন করে সাংবিধানিক প্রশ্নের জন্ম দিতে পারে। কারণ, সংবিধান অনুযায়ী মন্ত্রীরা পদত্যাগপত্র জমা দেবেন প্রধানমন্ত্রীর কাছে। সরাসরি প্রেসিডেন্টের কাছে মন্ত্রীদের পদত্যাগপত্র জমা দেয়ার বিধান নেই। কোন সুযোগ নেই। এমনকি বঙ্গভবন তা গ্রহণও করতে পারবে না।

বেসামরিক বিমান চলাচল মন্ত্রী জাতীয় পার্টির নেতা রুহুল আমীন হাওলাদার গতকাল সাংবাদিকদের বলেছেন, জেনারেল এরশাদের কাছে তারা পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন। এরশাদ ওই পদত্যাগপত্র নিয়ে বঙ্গভবনে প্রেসিডেন্টের কাছে যাবেন এবং তিনি তাকে পদত্যাগপত্র গ্রহণ করতে অনুরোধ করবেন। রাতে যোগাযোগ করা হলে জনাব হাওলাদার ইঙ্গিত দেন যে, এটা সর্বদলীয় সরকার। এ জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে দেয়ার দরকার নেই। তারা প্রেসিডেন্টের কাছে সরাসরি দেবেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, তিনি পদত্যাগপত্র গ্রহণ না করলে তা কার্যকর হবে না। সোহেল তাজ ও সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের পর গণপদত্যাগ নাটকের ঘটনায়ও প্রধানমন্ত্রী তার সেই অবস্থানই ধরে রেখেছেন। এ নিয়ে উচ্চ আদালতে রিট হলেও কোন প্রতিকার মেলেনি।

সংবিধানে বলা আছে, মন্ত্রীদের পদ শূন্য হবে যদি তারা প্রেসিডেন্টের উদ্দেশ্যে পেশ করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে পদত্যাগপত্র প্রদান করেন। যদিও সংবিধান বিশেষজ্ঞরা একমত যে, পদত্যাগপত্র জমা দেয়া মাত্রই পদ শূন্য হবে। এখানে প্রধানমন্ত্রীর গ্রহণ করা বা না করার ব্যাপার নেই। কিন্তু বাস্তবে সংবিধানের এই ব্যাখ্যা গ্রহণ করা হয়নি।

পর্যবেক্ষকরা মনে করছেন, প্রধানমন্ত্রী তার আগের নীতি ধরে রাখলে জাপার মন্ত্রীরা পদত্যাগ করলেও তা তিনি চাইলে ঝুলিয়ে রাখতে পারেন। এছাড়া, জাতীয় পার্টি কেন প্রধানমন্ত্রীকে এড়িয়ে বঙ্গভবনে যেতে চাইছেন তা ভেবেচিন্তে নাকি অজ্ঞতাবশত তা স্পষ্ট নয়।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close