Featuredগ্রামবাংলা

ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের মৃত্যুকূপ ওসমানীনগর

মো. কয়েছ মিয়া: ওসমানীনগরে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের বিভিন্ন অংশ ভেঙ্গে বেহাল অবস্থা হয়েছে। এ এলাকায় মহাসড়কের কার্পেটিং উঠে গেছে, কোথাও দেবে গেছে, কোথাও আবার গর্ত হয়েছে। এতে যানবাহন মারাত্মক ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে। এই দুরবস্থার কারণে দুর্ঘটনা বৃদ্ধি পেয়েছে। আর মৃত্যুর কাছে সমর্পতিত হচ্ছে চালক, যাত্রী, পথচারী মানুষ।

সম্প্রতি সংস্কারের নামে মহাসড়কের ভাঙ্গা অংশের কার্পেটিং তুলে নতুন করে কাজ করা হচ্ছে। কিন্তু কাজ শেষ হতে না হতেই আবার ভেঙ্গে গর্তের সৃষ্টি হচ্ছে। দূর্ঘটনার অনুসন্ধানে জানাযায় যানবাহনগুলো মহসড়কের ভাঙ্গা অংশকে পাশকাটিয়ে ভাল অংশে দিয়ে চলাচল করে এতে রাইট সাইডের গাড়ি রং সাইডে চলে যায়। তাতেই ঘটে মরণঘাতী দুর্ঘটনা। আর এর বেশিরভাগ কারণ রাস্তার অধিকাংশ স্থানে ভাঙ্গা ও গর্তের সৃষ্টি হওয়ায়।

চলতি বছরের উল্লেখযোগ্য দূর্ঘটনাগুলো হচ্ছে, ১মার্চ শুক্রবার মহাসড়কে ঢাকাগামী এসকে পরিবহনের যাত্রীবাহী বাস (ঢাকা মেট্রো ব ১৪-১৮১৮) বিপরীতমুখি অজ্ঞাতনামা ট্রাকের সাথে সংঘর্ষে অন্তত কমপে ৩০জন যাত্রী আহত হন। ৬মে সোমবার রাত ১১ টায় নাটকীলা ব্রীজ নামক এলাকায় পাথর বোঝাই ঢাকাগামী ট্রাকের (ঢাকা মেট্রো ট-১৬-১৪৬২) সাথে বিপরীতমুখি এনা পরিবহনের বাসের (ঢাকা মেট্রো ব ১১-৫৯৬৫) মুখোমুখি সংঘর্ষে এক ব্যক্তি নিহত হন।

এসময় অন্তত ৬জন বাসযাত্রী আহত হন। ৬ জুন বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ইলাশপুর এলাকায় অজ্ঞাতনামা একটি ট্রাক গাড়ি পথচারী এক যুবককে চাপা দিলে তার মৃত্যু হয়। ১৩আগষ্ট মঙ্গলবার ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের দয়ামীর নামকস্থানে মাছ বোঝাই একটি পিকআপ (ঢাকা মেট্টো- ন- ১১-৪৬২৪) দূর্ঘটনার শিকার হয়। এসময় এক ব্যক্তি নিহত ও একজন আহত হন। ৪অক্টোবর শুক্রবার মহাসড়কের ব্রাহ্মণশাসন (তেরমাইল) নামক এলাকায় সিলেটগামী মিতালী পরিবহনের (ঢাকা মেট্রো ব ১৪-৬৪৪৮) বাসের সাথে বিপরীত মুখি যাত্রীবাহী স্থানীয় বাসের (ঢাকা মেট্রো-০৪-০৮২৩) মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে এক যুবক, এক বৃদ্ধা ও দুই ছেলে শিশু নিহত ও কমপে ২০জন আহত হয়। ৯অক্টোবর বুধবার সন্ধ্যায় কাগজপুর নামক স্থানে সিলেটগামী অজ্ঞাত একটি ট্রাকে পেছনে থাকা অপর সিলেটগামী (ঢাকামেট্টো ট- ১৬-৪৮৬৭) মালবাহী ট্রাক এর সাথে সংঘর্ষ হয়।

এতে চালক ও হেল্পার গুরুতর আহত হন। ১৫অক্টোবর মঙ্গলবার রাত প্রায় ১০টায় ঢাকাগামী আহমদ পরিবহন ( ঢাকা মেট্টো ব- ১১- ১০৯০) এর বাস গোয়ালাবাজার গয়নাঘাট নামক স্থানে বিপরিত দিক থেকে ছেড়ে আসা অটোরিক্সা যাত্রীবাহী সিএনজি ( সিলেট মেট্টো থ- ১১-৩৭৩৯) এর সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ৫জন যাত্রী নিহত ও একজন গুরুতর আহত হন। ২নভেম্বর শনিবার দুপুরে তাজপুরে স্থানীয় গোয়ালাবাজার গামী অটোরিক্সা নং (সিলেট- থ-১১-৩৫৯৮) কে বিপরিত দিক থেকে আসা সিলেটগামী একটি অজ্ঞাতনামা পাজেরো জিপ অটোরিক্সাকে সরাসরি ধাক্কা দেয় এতে অটোরিক্সা চালক নিহত ও তিনজন গুরুতর আহত হন। সর্বশেষ ১৯ নভেম্বর মঙ্গলবার সকালে সিলেট গামী হবিগঞ্জী বাস( সিলেট – ব- ৪৫৭৩) বিপরীত দিক থেকে আসা একটি মোটর সাইকেলকে চাপা দেয়। এতে কেউ হতাহত না হলেও মোটর সাইকেলটি দুমড়ে মুচড়ে যায়।

সচেতন মহল মনে করেন মহাসড়কের সুষ্ট রনাবেন ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা নজর না দিলে দূর্ঘটনার মাত্রা দিন দিন বেড়ে যাবে।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close