Featuredশরীর স্বাস্থ্য

ধুমপানে ব্লাডার ক্যান্সারে আক্রান্তদের প্রতি পরামর্শ

সুমন আহমেদ: ধুমপান ব্লাডার ক্যান্সারের প্রধানতম কারণ। ধুমপান ছাড়ার পরও পাচ বছর পর্যন্ত ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার আশংকা থাকে। এমনকি সদস্যের অন্যান্য সদস্যরাও এ বিষয়ে আক্রান্ত হওয়া সম্ভাবনা থাকে বলে জানান রয়েল লন্ডন হসপিটালের কনসালটেন্ট ইউরোজিক্যাল সার্জন জুমুর পতি। এছাড়া ক্যান্সার এড়াতে চর্বি জাতীয় খাবার কমানোর প্রতি জোর দিলেন তিনি।

পরিসংখ্যান মতে ইস্ট লন্ডনের বাঙ্গালী কমিউনিটিতে অন্যান্য কমিউনিটির চেয়ে ধুমপায়ীর হার বেশি। এর ফলে এই এলাকার মানুষ বিশেষ করে ব্লাডার ক্যান্সারের ঝুকিতে রয়েছে। বাঙ্গালী কমিউনিটিতে ধুমপানের হার কমানোর জন্য বিভিন্ন ক্যাম্পেইন পরিচালনা করে খুব ইতিবাচক ফলাফল আসছে না। করসালটেন্ট ইউরোজিক্যাল সার্জন ঝুমুর পতি জানালেন শুধু ধুমপানের প্রতি নয় ধুমপানের পরও ক্যান্সার আক্রান্তের আশংকা থাকে।

ডাঃ ঝুমুর পতি জানান, যদি তারা সিগারেট খাওয়া বন্ধওকরে দেয়। তারপরও ৫ বছর পরও তাদের ক্যন্সারের ঝুকি থাকে। ধুমপায়ী শুধু নিজে নয় তার আশেপাশে যারা থাকে তারাও ক্যান্সার আক্রান্তের ঝুকিতে পড়ে। এটাকে বলে স্পেসিস স্মোকিং।  এব্যাপারে ডাঃ পতি বলেন, এই ধরনের সমস্যার যারা সম্মুখিন হয়েছেন তারা নিজেদের জিপির আথবা হসপিটালের স্পেশাল স্মোকিং ইউনিট এর সাথে যোগাযোগ করে সমাধানের পথ খুজে নিতে বলেন। এছাড়া সরাসরি ওয়াকিং এর মাধ্যমে এই সেবা পেতেপারেন। এক্ষেত্রে তারা পুরোপুরি সাহায্যে পারেন উল্লেখিত এসব স্থানে। স্পেশাষ্টিদদের সাথে যোগাযোগের তারা অন্য কিভাবে সমাধান পাওয়া যাবে বা ই-সিগারেটের মাধ্যমেও ধৃমপায়ীমুক্ত হওয়ার সুযোগ রয়েছে বলে জানান ডাঃ ঝুমুর পতি। এজন্য নিজেদের আত্নবিশ্বাসকেও কাজে লাগাতে পরামর্শ দেন তিনি।

আবার পরিবারের অন্যান্য সদস্য যেমন, মা-বাবা, দাদা-দাদী যাদের মধ্যে ব্লাডার ক্যান্সার বা কিডনি ক্যান্সার আছে তারা উচ্চতর সমস্যা মধ্যে রয়েছেন বলে জানান তিনি। তিনি বলেন, কলেস্টরাল লেবেল নীচে রেখে ভালো খাবার যেমন শাকসবজি ছোটমাছ এগুলো খাওয়া উচিত। অনেক মানুষ এই ধরনের ক্যান্সোরে আক্রান্ত হচ্ছে জানিয়ে ডাঃ পতি বলেন, এই হার কমাতে এই ধরনের এওয়ারনেস প্রোগ্রাম হাতে নেয়া হলো। এই সুযোগ গ্রহণ করে মানুষ মরণব্যাধি ক্যান্সার থেকে দূরে থাকতে পারবেন।। তবে এজন্য সবাইকে সচেতন হওয়ার উপর গুরুত্ব দিলেন ডাঃ ঝুমুর পতি।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

আরও দেখুন...

Close
ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close