এশিয়া জুড়ে

ধর্ষণের শিকার কিশোরীর মৃত্যু: মুখ্যমন্ত্রী মমতার বিরুদ্ধে মামলা

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: কলকাতায় গণধর্ষণের শিকার হওয়া ১৬ বছর বয়সী এক কিশোরী গতকাল মঙ্গলবার মারা গেছে। এ ঘটনায় ওই কিশোরীর বাবা পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও স্বাস্থ্য দপ্তরের দায়িত্বে থাকা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

ক্ষতিগ্রস্ত বাবা তাঁর মেয়ের মৃত্যুর জন্য সরকারি আরজি কর মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষকে তাদের চিকিত্সার অবহেলার জন্য দায়ী করছেন। কিশোরীর বাবা পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও হাসপাতালটির তত্ত্বাবধায়কের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। গণধর্ষণের মামলায় এ পর্যন্ত আটজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গত ২৫ অক্টোবর পশ্চিমবঙ্গের এ কিশোরী গণধর্ষণের শিকার হয়। এরপর থেকে ধর্ষকেরা তাকে বারবার হুমকি দিতে থাকলে ২৩ ডিসেম্বর সে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে। একপর্যায়ে সে নিজের গায়ে আগুন ধরিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে।  এতে তার শরীরের ৪০ শতাংশ পুড়ে যায় ও তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গতকাল চিকিত্সাধীন অবস্থায় সে মারা যায়। গণধষর্ণের এ ঘটনাটিকে রাজনৈতিক রং চড়াতে তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে আন্দোলনে নেমেছে ভারতের মার্ক্সবাদী কমিউনিস্ট পার্টি। এদিকে কিশোরীর মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে কলকাতা পুলিশ ও বাম সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়।

কিশোরীর বাবা একজন ট্যাক্সিচালক ও তিনি ভারতীয় ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সঙ্গে জড়িত। তিনি বলেন, তাঁরা চেয়েছিলেন কিশোরীর মৃতদেহ পিস হ্যাভেন মর্গে রাখা হবে ও লাশ নিয়ে একটি শোকযাত্রার আয়োজন করা হবে। কিন্তু মঙ্গলবার রাতে মর্গে রাখার জন্য লাশ নেওয়ার সময় পরিবারের সম্মতি ছাড়াই পুলিশ লাশটি ছিনিয়ে নেয়। গণধর্ষণের শিকার কিশোরীর ভাই বলেন, পুলিশ মামলাটি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করছিল। তিনি ধর্ষকদের ফাঁসির দাবি জানান।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close