যুক্তরাষ্ট্র জুড়ে

তীব্র তুষারপাতে ঢাকা পড়েছে নিউইয়র্ক শহর: বিপর্যস্ত জনজীবন

শীর্ষবিন্দু নিউজ ডেস্ক: হিমাঙ্কের নিচে ১৩ ডিগ্রি ফারেনহাইটে নেমে এসেছে নিউইয়র্কের তাপমাত্রা। সঙ্গে তীব্র তুষারপাত যোগ হওয়ায় থমকে গেছে জনজীবন। বৃহস্পতিবার ভোর থেকে শুরু হওয়া এই তুষারপাত শনিবার পর্যন্ত চলবে বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ওয়েদার সার্ভিস (আবহাওয়া দপ্তর)।

নিউইয়র্কে এরইমধ্যে প্রায় ৮ ইঞ্চি তুষারপাত হয়েছে। চলছে ঝড়ো হাওয়া। তুষারপাতের পরিমাণ শনিবার নাগাদ ১৪ ইঞ্চিতে পৌঁছাবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। শনিবার নাগাদ তাপমাত্রা ১১ডিগ্রি ফারেনহাইটে নামবে বলেও জানানো হয়েছে। নিউইয়র্কে হিমাঙ্কের নিচে এমন অপ্রচলিত তাপমাত্রার ফলে প্রচণ্ড ঠাণ্ডায় জনজীবনে চরম দুর্ভোগ সহ বয়স্কদের প্রাণহানিরও আশঙ্কা করা হচ্ছে ।

তুষারপাতের কারণে নিউইয়র্কের ব্যস্ততম দু’টি হাইওয়ে লং আইল্যান্ড এক্সপ্রেসওয়ে ও গ্র্যান্ড সেন্ট্রাল পার্কওয়েসহ নিউইয়র্কের বিমান বন্দরগুলোও বন্ধ রাখা হয়েছে। বাতিল করা হয়েছে কয়েক হাজার ফ্লাইট। ম্যানহাটনসহ কুইন্স, ব্রুকলিন, ব্রংকস স্ট্যাটেন্ড আইল্যান্ডের গোটা জনজীবন স্থবির হয়ে পড়েছে। গাড়ি শূন্য হয়ে গেছে প্রধান সড়কগুলো। কিছু ট্যাক্সি ও জরুরি পরিবহন ছাড়া আর কোনো ধরনের যানবাহন চোখে পড়ছে না। নাগরিকদের গাড়ি বের করতে নিষেধ করেছন নিউইয়র্কের গভর্নর অ্যান্ড্রু কোমো। জমে থাকা তুষার গলানোর জন্য মেয়র অফিস ম্যানহাটনে জরুরি লবন ছিটানোর কাজ শুরু করেছে।

তীব্র শীতের প্রভাব পড়তে শুরু করেছে ব্যবসা বাণিজ্যেও। প্রক্রিয়াজাত খাবারসহ পানি ও প্রয়োজনীয় গৃহস্থালি দ্রব্যাদি কিনে মজুদ রাখছেন বাসিন্দারা। আর সরবরাহের অভাবে জিনিসপত্রের দামও বেড়ে গেছে। বাঙালি অধ্যুষিত জ্যাকসন হাইটস, জ্যামাইকা ও ব্রুকলিনে ভোগান্তির কথা বলছেন বাঙালি ব্যবসায়ীরা।

অন্যদিকে, খারাপ আবহাওয়ার কারণে নিউ ইংল্যান্ড রাজ্যে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। এছাড়া ম্যাসাচুসেটস রাজ্যের একটি শহরে এরইমধ্যে ৫৩ ইঞ্চি তুষারপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close