এশিয়া জুড়ে

ফুপাকে কুকুর দিয়ে খাওয়ান কিম জং-উন

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: রাষ্ট্রদ্রোহ এবং দুর্নীতির অভিযোগে ফুপাকে হত্যা করেন উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং- উন। ঘটনার একমাস পর সেই হত্যার ভয়াবহতা প্রকাশ পেতে শুরু করেছে বিভিন্ন পশ্চিমা মিডিয়ায়। ৬৭ বছর বয়সী কিমের ফুপার নাম জং সং থেক। কিমের পর একসময়ে তাকেই দেশটির দ্বিতীয় ক্ষমতাধর ব্যক্তি ভাবা হতো।

মিডিয়াগুলো দাবি করছে, কিম তার ফুপাকে মৃত্যুর আগে নগ্ন করে কুকুরের মুখে ঠেলে দেন। হিংস্র বন্য কুকুরগুলোকে তিনদিন কোন খাবার দেওয়া হয়নি। এ অবস্থায় তাকে হাত-পা বেঁধে কুকুরের খাচায় নিক্ষেপ করা হয়। কুকুর দিয়ে হত্যা করাকে কোরিয়ান ভাষায় ‘কোয়ান জু’ বলা হয়। প্রায় একঘণ্টা কুকুরগুলো কিমের ফুপাকে কামড়িয়ে ছিন্ন-ভিন্ন করে ফেলে। কিমসহ তিন শতাধিক কর্মকর্তা এই ভয়াবহ ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ছিলেন।

চীনা সংবাদপত্র ওয়েন ওই পো এক সংবাদে জানায়, জং সং-থেকের সঙ্গে তার আরও পাঁচ সহকর্মীকে একই কায়দায় হত্যা করা হয়। বিভিন্ন রাজনৈতিক বন্দিদের ফায়ারিং স্কোয়াডে মেশিন গানের মাধ্যমে হত্যা করা হলেও সাধারণত এভাবে হত্যা করা হয় না। কোরিয়ান সমাজের সবচেয়ে ঘৃণিত ব্যক্তিদের এই ধরনের সাজা দেওয়া হয়।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close