Featuredঅন্যকিছু

সুন্দর সম্পর্ক তছনছ করতে পারে যে আচরণ

শী অনলাইন নিউজ ডেস্ক: সুরম্য অট্টালিকা বানাতে দিনের পর দিন সময় ব্যয় করতে হয়। কিন্তু গুঁড়িয়ে দিতে সময় লাগে না একদিনও। মানবীয় সম্পর্কের ক্ষেত্রে উপমাটি বেশ সাযুজ্যপূর্ণ। কারণ মানব-মানবীর মধ্যকার কোনো সম্পর্ক গড়তে অনেক কাঠখড় পোড়াতে হয়। অথচ এক মুহূর্তের ভুল বোঝাবুঝিতে তা ভেঙে খানখান হয়ে যেতে পারে। কিন্তু কী কী কারণে দীর্ঘ দিনের সম্পর্ক নষ্ট হয়ে যায়? টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে তুলে ধরা হয়েছে বিষয়গুলো। প্রতিবেদনটিতে সম্পর্ক দৃঢ় রাখার স্বার্থে ওই বিষয়গুলো পরিহারের কথা বলা হয়েছে।

ছোটখাটো ভুল নিয়ে কথা বলা বন্ধ করুন
একটি সুন্দর সম্পর্ককে পাংশু করে দিতে সবচেয়ে বড় অনুঘটক হতে পারে অপ্রয়োজনীয় বিষয়ে খোঁটাখুটি করা। অর্থাত্ আপনার প্রিয়জনের পোশাক-আশাক থেকে শুরু করে খাওয়া-দাওয়া-সব বিষয় নিয়ে কথা বলার দরকার নেই। আপনাকে তাকে বলতে পারেন, কোনভাবে চললে তাকে আরেকটু ভালো দেখাবে। কিন্তু তার পছন্দ নিয়ে সমালোচনায় মেতে উঠবেন না।

চাকরিকে বড় করে দেখবেন না
আপনার চাকরি অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ। তবে চাকরি নিয়েই পড়ে থাকবেন না। সবসময় কাছের মানুষটির সঙ্গে চাকরি নিয়ে কথা বলবেন না। তবে আপত্কালীন কথা বলতে পারেন। কিন্তু মনে রাখবেন, আপনি চাকরির সঙ্গে সম্পর্ক করছেন না, করছেন একজন মানুষের সঙ্গে।

সম্পর্ককে এগিয়ে নিন
আপনি কারো সঙ্গে প্রণয়ে জড়িয়েছেন। তারপর সে সম্পর্ককে পরিণয়ে রূপ দিতে প্রতিটি পদক্ষেপে সতর্কভাবে এগিয়ে যান। তাঁর সঙ্গে প্রথম দিন সময় কাটানোর পর দ্বিতীয় দিনটিও সফলভাবে কাটান। আপনার মা-বাবার সঙ্গে তাকে পরিচয় করিয়ে দিন। এভাবে সম্পর্ককে একটু একটু করে এগিয়ে নিন।

বোকা সাজবেন না
নিজেকে সুন্দর বলা, বা আয়নার সামনে সুন্দর মনে করা দোষের কিছু নয়। কিন্তু আপনার এ আচরণ তার সামনে প্রকাশ করবেন না। আপনার সম্পর্কের বয়স মাত্র ছয় মাস। তাই এসব বিষয় নিয়ে তাড়াহুড়ো করবেন না। পাছে হিতে-বিপরীত হতে পারে।

বিশ্বাস করতে শিখুন
ভালোবাসা ছাড়া যেকোনো সুষম সম্পর্কের ভিত্তি হলো বিশ্বাস। অনিশ্চয়তায় ভুগবেন না। যাকে প্রেয়সী করতে চাচ্ছেন বা যার প্রিয় হতে যাচ্ছেন, তাকে নিয়ে প্রতিনিয়ত বিস্মিত হওয়া যাবে না। তাকে বোঝার চেষ্টা করুন। তারপর যৌক্তিকভাবে বিশ্বাস করতে শিখুন।

বিরক্তির কারণ হবেন না
আপনার বস আপনাকে ঘৃণা করে, বন্ধুরা ঈর্ষা করে, মা পছন্দ করেন না, আপনি মোটা-এতসব কাহিনী প্রিয় মানুষটির কাছে সবসময় টেপ রেকর্ডারের মতো বাজাবেন না। মনে রাখবেন আপনার দুঃখের গান শুনতে কেউই চায় না। তাই পরিবেশটকে সবসময় গুমট বেঁধে রাখবেন না। তবে মাঝে মাঝে তাকে দুঃখের গান শোনাতে পারেন।

লুকোচুরি করবেন না

আপনি যদি নতুন কাউকে পছন্দ করেন, তবে বর্তমান প্রিয় মানুষটির কাছে বিষয়টি লুকিয়ে রাখবেন না। একসঙ্গে দুই নৌকায় পা দেওয়া যায় না। আপনাকে নিশ্চিত করে বলতে হবে, আপনি তার সঙ্গে নেই। অন্যথায় এটি হবে তার সঙ্গে এক ধরনের প্রতারণা। আপনি এবং আপনার অনুভূতি প্রকাশে সত্ হোন।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

আরও দেখুন...

Close
ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close