আরববিশ্ব জুড়ে

যুক্তরাষ্ট্রের দিকে ইরানের রণতরী

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের নৌসীমার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে ইরানি রণতরী। পারস্য উপসাগরে মার্কিন যুদ্ধ জাহাজের মহড়ার জবাবে এ রণতরী পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে ইরানি নৌবাহিনী। শনিবার ইরানি বার্তা সংস্থা ফারস দেশটির নৌবাহিনীর এক কমান্ডারের বরাত দিয়ে এ খবর প্রকাশ করেছে।

ইরানের নৌবাহিনীর উত্তরাঞ্চলীয় বহর ও চতুর্থ নৌজোনের কমান্ডার অ্যাডমিরাল আফশিন রেজায়ি হাদ্দাদ শনিবার জানিয়েছেন, তেহরানের সামরিক রণতরী আটলান্টিক মহাসাগর হয়ে মার্কিন নৌসীমান্তের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে এবং এটা মার্কিনিদের জন্য একটি বার্তা। তবে ঐ খবরে নৌবহরগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু জানায়নি।

রয়টার্স জানিয়েছে, ইরানি এ অভিযোগ নিয়ে মার্কিন প্রতিরক্ষা কর্মকর্তাদের মধ্যে সন্দেহ রয়েছে। তবে মার্কিন কর্মকর্তারা বলছেন, আন্তর্জাতিক সমুদ্রসীমায় যেকেউ উন্মক্তভাবে জাহাজ চালাতে পারে।
পারস্য উপসাগরে সামরিক মহড়া সম্পর্কে ওয়াশিংটনের দাবি, বিশ্বের প্রায় ৪০ ভাগ তেল এ পথে রফতানি করা হয়। সমুদ্রপথে নৌ চলাচলের স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে তারা পারস্য উপসাগরে সামরিক মহড়া চালিয়ে আসছে। ইরানের খুব কাছেই পারস্য উপসাগরে বাহরাইন উপকূলেও মার্কিন পঞ্চম নৌবহরের ঘাঁটি মোতায়েন রয়েছে।

এদিকে ইরান বলে আসছে, তাদের পরমাণু স্থাপনায় হামলা চালালে তারা পারস্য উপসাগরের মুখে গুরুত্বপূর্ণ হরমুজ প্রণালী বন্ধ করে দেবে। ইরানের বেশ কয়েকটি রণতরী ভূমধ্যসাগরসহ কয়েকটি আন্তর্জাতিক সাগর ও মহাসাগর সফর করেছে। ফারস বলছে, ২০১০ সাল থেকে প্রতিনিয়ত ভারত মহাসাগর ও এডেন উপসাগরে আন্তর্জাতিক সমুদ্রসীমায় ইরানি নৌবাহিনী মোতায়েন করা হচ্ছে সোমালিয়ার জলদস্যুদের হাত থেকে ইরানি জাহাজগুলো রক্ষা করতে।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close