Featuredবানিজ্য

জিএসপি ফিরে পেতে বাংলাদেশকে সত্যিকার অগ্রগতি দেখাতে হবে

শীর্ষবিন্দু নিউজ: শ্রমমানের উন্নয়ন ও কারখানার নিরাপত্তা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে চূড়ান্ত সীমার মধ্যে জিএসপি কর্মপরিকল্পনা ও ক্রেতাদের উদ্যোগ সাসটেইনেবিলিটি কমপ্যাক্ট-এ দেওয়া বাকি শর্ত পূরণে বাংলাদেশকে সত্যিকার অগ্রগতি দেখাতে হবে। পোশাক কারখানায় কর্মপরিবেশ উন্নয়নের এসব শর্ত পূরণের জন্য আগামী মার্চ পর্যন্ত চূড়ান্ত সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত এক বৈঠকের পর ঢাকায় কর্মরত তিন দেশের শীর্ষ কূটনীতিকেরা

এ অভিমত দেন। যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের শীর্ষ কূটনীতিকেরা জানান, পরিস্থিতির উন্নয়নে কিছু পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। আরও বেশ কিছু পদক্ষেপ নিতে হবে। এ ক্ষেত্রে কী অগ্রগতি হচ্ছে, সেটি প্রচারমাধ্যমসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় লক্ষ রাখছে। কারণ, আগামী ২৪ এপ্রিল সাভারের রানা প্লাজা ধসের এক বছর পূর্ণ হবে।

তৈরি পোশাকশিল্পে কর্মপরিবেশের লক্ষ্যে সরকারের তিনটি মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে পাঁচ রাষ্ট্রদূতের নিয়মিত সমন্বয় সভার পর তাঁরা সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়ে এমন অভিমত দেন। কানাডার হাইকমিশনার হিদার ত্রুদ্ধডেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে বাণিজ্যসচিব মাহবুব আহমেদ, শ্রমসচিব মিকাইল শিপার, পররাষ্ট্রসচিব মো. শহীদুল হক, মার্কিন রাষ্ট্রদূত ড্যান মজীনা, ইউরোপীয় ইউনিয়নের রাষ্ট্রদূত উইলিয়াম আনা, নেদারল্যান্ডসের রাষ্ট্রদূত গারবেন ডি ইয়াং অংশ নেন। গত বছর রানা প্লাজা ধসের পর কর্মপরিবেশের উন্নয়নে বৈশ্বিক কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়নের অগ্রগতির লক্ষ্যে নিয়মিত এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠক শেষে ড্যান মজীনা সাংবাদিকদের বলেন, এ পর্যন্ত ভালোই অগ্রগতি হয়েছে। এখন মার্চের চূড়ান্ত সময়সীমা অনুযায়ী বাকি বিষয়গুলোতে সবার দৃষ্টি রয়েছে। তিনি সাংবাদিকদের জানান, যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশের পণ্যের অগ্রাধিকারমূলক বাজারসুবিধা (জিএসপি) ফিরে পেতে হলে কর্মপরিকল্পনায় দেওয়া শর্তগুলো পূরণ করতে হবে।

হিদার ক্রুডেন বলেন, আগামী ২৪ এপ্রিল রানা প্লাজা ধসের এক বছর পূর্ণ হবে। এ সময়ের মধ্যে বাংলাদেশ কর্মপরিবেশের উন্নয়নে কতটা অগ্রগতি করেছে, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় সেটি লক্ষ করবে। উইলিয়াম আনা বলেন, এখন পর্যন্ত কিছু অগ্রগতি হয়েছে, তবে পরিস্থিতির উন্নয়নে আরও পদক্ষেপ নিতে হবে।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close