আফ্রিকা জুড়ে

নাইজেরিয়ায় জঙ্গী সংগঠন বোকো হারামের গণহত্যা

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: নাইজেরিয়ায় উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় বোরনো রাজ্যের একটি গ্রামে হামলা চালিয়ে অন্তত ১০৬ জনকে হত্যা করা হয়েছে। ইসলামপন্থী জঙ্গী সংগঠন বোকো হারাম এ হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছে বলে সরকারের পক্ষ থেকে দাবি করা হচ্ছে। লাশগুলো এখনো রাস্তায় পড়ে আছে।

এর আগে চলতি সপ্তাহের শুরুর দিকে বোরনো রাজ্যের কোনদোগা শহরে এক হামলায় অন্তত ৩০ জন নিহত হয়। যার জন্যও সন্দেহের তীর ছোড়া হয় বোকো হারামের দিকে। বোকো হারাম আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদী সংগঠন হিসেবে চিহ্নিত আল-কায়েদার সহযোগী। ২০০২ সালে নাইজেরিয়ার বোরনো রাজ্যের রাজধানী মাইদুগুরিতে এ সংগঠনের জন্ম। এটি প্রতিষ্ঠা করেন সংগঠনের বহুল আলোচিত নেতা মোহাম্মদ ইউসুফ। ইসলামি আইন প্রতিষ্ঠা বোকো হারামের লক্ষ্য। বোকো হারাম মনে করে, পশ্চিমা সমাজ-সংস্কৃতির সঙ্গে তাল মিলিয়ে যেকোনো রাজনৈতিক বা সামাজিক কর্মকাণ্ড চালানো হারাম বা নিষিদ্ধ।

নাইজেরিয়ার উত্তরাঞ্চলে একটি ইসলামি রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার দাবিতে বিভিন্ন সময়ে সহিংসতা সৃষ্টিসহ এ ধরনের হামলা চালায় বোকো হারাম। ওই এলাকার অধিবাসী আবুবকর ওসমান জানিয়েছেন, লাশগুলো এখনো রাস্তায় পড়ে আছে। সন্ত্রাসীরা এখনো ‍ঝোপঝাঁড়ে লুকিয়ে থাকার ভয়ে আমরা লাশগুলো দাফন না করেই পালিয়ে এসেছি।

প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে, একদল বন্দুকধারী রোরনো রাজ্যের ইজগে গ্রামে ঢুকে চারপাশ ঘিরে ফেলে এবং তাদের নির্বিচারে গুলি করতে থাকে। অনেকে বলছেন, ট্রাক ও মোটর সাইকেলে করে এসে একদল বন্দুকধারী গ্রামের লোকজনকে ভয় দেখিয়ে একত্র হতে বলে এবং তাদেরকে গুলি করে হত্যা করে।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close