Featuredশরীর স্বাস্থ্য

চা পানের গুরুত্বপূর্ণ ৪ কারণ…

কাজী আরিফ আহমেদ |

সকাল ও বিকালের নাস্তায় চা না হলে যেন জমেই না। কয়েক চুমুকেই শরীর চাঙ্গা ও ঝরঝরে হয়ে ওঠে। তবে পরিমিত চা পানের বিষয়টা মাথায় রাখা বেশ গুরুত্বপূর্ণ। দিনে ২ থেকে খুব বেশি হলে ৩ কাপ পর্যন্ত চা পান করা যেতে পারে। তবে সেটা ১-২ কাপের মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখতে পারলে আরও ভাল। ইউরোপ কিংবা যুক্তরাষ্ট্রের জলবায়ুর সঙ্গে এশিয়ার জলবায়ুতে রয়েছে ভিন্নতা। আর তাই সেখানে সর্বোচ্চ ৪ কাপ পর্যন্ত চা পান পরিমিত হলেও, এখানকার তুলনামূলক উষ্ণ জলবায়ুতে সেটা পরিমিত মাত্রা হিসেবে গণ্য করা যাবে না। চায়ে রয়েছে শরীরের জন্য উপকারি বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। ওজন নিয়ন্ত্রণে, রোগ প্রতিরোধে, মানসিক চাপ নিয়ন্ত্রণে ও তারুণ্যোদ্দীপ্ত ত্বকের জন্য চা বেশ কার্যকর ভূমিকা রাখে।

নিচে এ ৪টি বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হলো:

রোগ প্রতিরোধে: হার্ট অ্যাটাক, স্ট্রোক, ক্যান্সার, পার্কিনসন্সের মতো ভয়াবহ রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিকেও কমিয়ে দেয় নিয়মিত ও পরিমিত পরিমাণে চা পানের অভ্যাস। ডায়াবেটিসে আক্রান্তরাও চা পানে বেশ উপকার পেতে পারেন। ২০১০ সালের একটি গবেষণায় দেখা গেছে, চায়ে যে ক্যাফেইন রয়েছে, সামগ্রিকভাবে তা ডায়াবেটিসের ঝুঁকিকে কমায়।
ওজন নিয়ন্ত্রণে: চা ক্যালোরিমুক্ত পানীয়। দুধ বা চিনি মেশানোর পর তাতে ক্যালোরি যুক্ত হয়। ২০১১ সালে পরিচালিত এক গবেষণায় দেখা গেছে, গ্রীন টির নির্যাস শরীর থেকে অতিরিক্ত ক্যালোরি ঝরাতে সহায়তা করে।

মানসিক চাপ নিয়ন্ত্রণে: আপনি কি বেশ মানসিক চাপে রয়েছেন? তবে এক-কাপ চা পান করে দেখুন। অনেকটা হালকা বোধ করবেন। কারণ, একটি গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে যে কালো চা মানসিক চাপ সৃষ্টিকারী স্ট্রেস হরমোনের মাত্রাকে হ্রাস করে। গ্রীন টিতে স্বাদের জন্য থায়ানিন জাতীয় যে অ্যামাইনো অ্যাসিড থাকে, সেটি ক্যাফেইনবিরোধী একটি উপাদান। শরীর ও মনে এক ধরনের শিথিলতা ও প্রশান্তি এনে দেয় নিয়মিত গ্রীন টি পানের অভ্যাস।

তারুণ্যোদ্দীপ্ত ত্বকের জন্য: কপালে বা ত্বকে ভাঁজ পড়া বা চামড়া গুটিয়ে যাওয়ার সমস্যা নিয়ে যদি দুশ্চিন্তায় থাকেন, তবে চা পান করুন। একটি গবেষণায় দেখা গেছে, সাদা চায়ের নির্যাস দুটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান ইলাস্টিন ও কোলাজেনকে বাড়িয়ে দেয়, যা অকাল-বার্ধক্য প্রতিরোধে কাজ করে। সাদা চা শরীরের সংযোগস্থলগুলোকেও তুলনামূলকভাবে বেশ সবল রাখে বলে মনে করা হয়। ফলে, আপনি থাকেন আরও সতেজ ও তারুণ্যোদ্দীপ্ত।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close