জাতীয়

মালয়েশীয়ান উড়োজাহাজ অনুসন্ধানে বাংলাদেশ

শীর্ষবিন্দু নিউজ: সাতদিন ধরে নিখোঁজ মালয়েশীয় উড়োজাহাজ অনুসন্ধানে বাংলাদেশ সরকার উদ্যোগ নিয়েছে। বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর দুটি প্রেট্রোল এয়ারক্রাফট এবং নৌবাহিনীর দুটি ফ্রিগেট এ অনুসন্ধান কাজে নিয়োজিত থাকবে। প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে বাংলানিউজকে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী মাহবুবুল হক শাকিল বাংলানিউজকে জানান, নিখোঁজ মালয়েশীয় উড়োজাহাজের সন্ধানের জন্য গোটা বিশ্বের উদ্বেগের সঙ্গে একাত্ম হয়ে প্রধানমন্ত্রী এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। বিমান বাহিনীর দুটি পেট্রোল এয়ারক্রাফট ও নৌবাহিনীর দুটি ফ্রিগেট এ অনুসন্ধান কাজে নিয়োজিত হচ্ছে। ইতোমধ্যেই চীন, যুক্তরাষ্ট্র, ভিয়েতনাম, মালয়েশিয়াও ভারত যৌথভাবে উড়োজাহাজটির সন্ধান করে যাচ্ছে। তবে এখন পর্যন্ত উড়োজাহাজটির হদিস পাওয়া যায়নি।

২২৭ যাত্রী ও ১২ ক্রু’বাহী বোয়িং ৭৭৭-২০০ সিরিজের উড়োজাহাজটি স্থানীয় সময় শুক্রবার দিনগত রাত ১২টা ৪১ মিনিটে বেইজিংয়ের উদ্দেশে কুয়ালালামপুর ছেড়ে যায়। এর এক ঘণ্টা পর ভিয়েতনামের আকাশসীমায় নিখোঁজ হয় উড়োজাহাজটি। উড়োজাহাজটি সকাল ৬টা ৩০ মিনিটে চীনের রাজধানীতে পৌঁছানোর কথা ছিলো।

কুয়ালালামপুর থেকে বেইজিংগামী উড়োজাহাজটিতে ১৪টি দেশের নাগরিক ছিলেন।  মালয়েশিয়া এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তাদের উড়োজাহাজে চীনের ১৫৩, মালয়েশিয়ার ৩৮, ইন্দোনেশিয়ার ১২, অস্ট্রেলিয়ার ৭, ফ্রান্সের ৩, যুক্তরাষ্টের ৩, নিউজিল্যান্ডের ২, ইউক্রেনের ২, কানাডার ২, রাশিয়ার ১, ইতালির ১, তাইওয়ানের ১, নেদারল্যান্ডসের ১ ও অস্ট্রিয়ার ১ নাগরিক রয়েছেন। এদের মধ্যে চীন ও যুক্তরাষ্ট্রের দুই শিশু রয়েছে। এছাড়াও উড়োহাজাহটিতে ১২ জন ক্রু ছিলেন।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close