অর্থনীতি

গ্রাহক হয়রানি বন্ধে অভিযোগ কেন্দ্র স্থাপন হচ্ছে ব্যাংকের সব শাখায়

শীর্ষবিন্দু নিউজ: ব্যাংকের গ্রাহক হয়রানি বন্ধে বাণিজ্যিক ব্যাংকের সব শাখায় খোলা হচ্ছে অভিযোগ কেন্দ্র। এ ব্যাপারে বাংলাদেশ ব্যাংক একটি নীতিমালা করতে যাচ্ছে। নীতিমালায় অভিযোগ কেন্দ্র স্থাপনে থাকছে বাধ্যবাধকতা। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আর্থিক অন্তর্ভুক্তি ও গ্রাহকসেবা বিভাগ ইতোমধ্যেই একটি খসড়া চূড়ান্ত করেছে।

নীতিমালায় গ্রাহকহয়রানির সঙ্গে ব্যাংকের কোন কর্মকর্তা জড়িত থাকলে তার বিরুদ্ধেও শাস্তির বিধান থাকছে। প্রয়োজনে কর্মকর্তাকে চাকরিচ্যুত এবং আর্থিক দণ্ডেরওবিধান রাখা হচ্ছে। নীতিমালায় বলা হয়েছে, বোর্ডের সদস্যদের নিয়ে কমিটি অভ্যন্তরীণ নীতিমালা করার দরকার হলে করবে। তাছাড়া ব্যাংকের পুরো গ্রাহক হয়রানির বিষয়টিও নজরদারি করবে কমিটি।

বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্র জানিয়েছে, ব্যাংকারদের কাছ থেকে মতামত নিতে সম্প্রতি খসড়া নীতিমালা বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠানো হয়েছে। আগামী ১৫ এপ্রিলের মধ্যেই কোন পর্যবেক্ষণ বা সুপারিশ থাকলে তা লিখিত আকারে জানাতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সূত্র জানায়, খসড়া নীতিমালায় শাখা পর্যায়ে অভিযোগ কেন্দ্র খোলার নির্দেশনার সঙ্গে তিন স্তরে অভিযোগ নিষ্পত্তির বিধান থাকছে। সর্বোচ্চ পর্যায়ে থাকছে–পরিচালনা পর্ষদের সদস্যদের নিয়ে ৫ সদস্য বিশিষ্ট উচ্চ পর্যায়ের কমিটি। কমিটির প্রধান থাকবেন পর্ষদের একজন পরিচালক। পদাধিকার বলে ব্যাংকের প্রধান নির্বাহী আহবায়কের দায়িত্বে থাকবেন। ব্যাংকের একজন নিয়মিত গ্রাহককেও কমিটিতে রাখতে বলা হয়েছে খসড়া নীতিমালায়।

ব্যাংকের শাখাগুলোয় অভিযোগ কেন্দ্র স্থাপন সম্পর্কে বাংলাদেশ ব্যাংকের আর্থিক অন্তর্ভূক্তি ও গ্রাহকসেবা কেন্দ্রের উপ-মহাব্যবস্থাপক (ডিজিএম) স্বপন কুমার রায় বাংলানিউজকে জানান,  গ্রাহক হয়রানি বন্ধে সব ব্যাংকের জন্যই একটি অভিন্ন নীতিমালা প্রণয়ণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এতে গ্রাহকের অভিযোগ নিষ্পত্তিতে ব্যর্থ ব্যাংকগুলোর বিরুদ্ধে শাস্তির বিধান রাখা হয়েছে। দীর্ঘদিন গ্রাহক অভিযোগ নিয়ে কাজ করা এই কর্মকর্তা আরো বলেন, আমরা বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর মতামত চেয়ে পাঠিয়েছি। তাদের মতামত ও সুপারিশ বিবেচনায় নিয়ে প্রজ্ঞাপন আকারে জারি করা হবে।

সূত্র জানিয়েছে, ব্যাংকিং সেবার পরিধি বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে গ্রাহক হয়রানিও ব্যাংক খাতে ব্যাপকভাবে বাড়ছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছে এ বিষয়ে বিভিন্ন ব্যাংকের বিরুদ্ধে বিপুল অভিযোগ এসেছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্যমতে, ২০১২-১৩ অর্থ বছরে মোট ৪ হাজার ২৯৬টি গ্রাহক হয়রানির ঘটনা ঘটেছে ব্যাংক খাতে। তবে এর বাইরে আরো অসংখ্য গ্রাহকহয়রানির ঘটনাই আড়ালে থেকে যাচ্ছে।

বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্র জানিয়েছে, ২০১১ সালের মার্চ মাসে বাংলাদেশ ব্যাংক গ্রাহক স্বার্থ সংরক্ষণ কেন্দ্র স্থাপন করা হয়। এরপর মোট ৭ হাজার ১৪৪ জন গ্রাহক হয়রানির শিকার হয়েছেন বলে বাংলাদেশ ব্যাংকে অভিযোগ করেছেন। সূত্র জানিয়েছে, শাখা পর্যায়ে অভিযোগ কেন্দ্র ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট শাখার গ্রাহক অভিযোগ তুলতে পারবেন। সেখানে একজন দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা থাকবেন। যেসব অভিযোগ নিষ্পত্তি করতে তিনি ব্যর্থ হবেন সেগুলো সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের জোনাল অফিসে স্থাপিত অভিযোগ কেন্দ্রে আসবে। সেখানেও নিষ্পত্তি না হলে প্রধান কার্যালয়ে নিয়ে আসার সুযোগ থাকবে। তবে একটি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে অভিযোগগুলোর নিষ্পত্তির বিধান থাকবে।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

আরও দেখুন...

Close
ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close