গ্যালারী থেকে

বার্সেলোনাকে বিদায় করে শেষ চারে আতলেতিকো মাদ্রিদ

গ্যালারী থেকে: বার্সেলোনাকে বিদায় করে উয়েফা চ্যাস্পিয়ন্স লিগের সেমি-ফাইনালে পৌঁছেছে আতলেতিকো মাদ্রিদ। কোয়ার্টার-ফাইনালের দ্বিতীয় লেগে নিজেদের মাঠ ভিসেন্তে কালদেরনে কোকের একমাত্র গোলে লা লিগা চ্যাম্পিয়নদের হারিয়েছে দিয়েগো সিমেওনের দল।

ক্যাম্প নউতে প্রথম লেগের ম্যাচটি ১-১ গোলে ড্র হয়েছিল। দুই লেগ মিলিয়ে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে শেষ চারে উঠে গেল আতলেতিকো। ১৯৭৪ সালের পর এই প্রথম ইউরোপের সর্বোচ্চ ক্লাব প্রতিযোগিতার শেষ চারে উঠলো এ মৌসুমের চমক জাগানো দলটি।

ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে বার্সেলোনার মাঝমাঠের কারিগর চাভি হার্নান্দেজ সতীর্থদের বলেছিলেন, কঠিন এই ম্যাচে তাদের আগে গোল করতে হবে। আগের চার ম্যাচে করতে না পারা কাজটি বুধবার রাতেও করতে পারেনি লা লিগার চ্যাম্পিয়নরা। ম্যাচের মাত্র পঞ্চম মিনিটেই গ্যালারিকে উৎসবে মাতিয়ে এগিয়ে যায় আতলেতিকো। বার্সার সাবেক স্ট্রাইকার দাভিদ ভিয়ার ক্রস আদ্রিয়ান লোপেজকে খুঁজে পায়। তার হেড থেকে বল পেয়ে জালে জড়াতে কোনো ভুল করেননি কোকে।

তীব্র উত্তেজনা ছড়ানো এই ম্যাচের প্রথম বিশ মিনিটেই খেলার ভাগ্য লিখে দিতে পারতো আতলেতিকো। কোকের গোলের ঠিক আগ মুহূর্তে বারে লেগেছিল আদ্রিয়ানের শট। তাই সেটাতে তেমন কিছু আসে-যায়নি। তবে ১১তম মিনিটে গোলপোস্ট আর আর ১৯তম মিনিটে ক্রসবার হতাশায় পোড়ায় স্পেন স্ট্রাইকার দাভিদ ভিয়াকে।

এর পর খেলার চিত্র পাল্টে যায়। প্রতি-আক্রমণে বার্সেলোনার রক্ষণভাগের পরীক্ষা নিলেও বেশির ভাগ সময় নিজেদের অর্ধে ছিল স্বাগতিকরা। আতলেতিকোর জমাট সেই রক্ষণভাগ ভাঙা সম্ভব হয়নি লিওনেল মেসি, নেইমারদের। দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই আক্রমণ শুরু করে বার্সেলোনা। কিন্তু গোলে শট নেয়ার মুহূর্তে নেইমারের পা থেকে বল সরিয়ে দেন আতলেতিকোর গোলরক্ষক করতোয়া। বলটা মেসির পায়ে গেলেও গোল করতে পারেননি বার্সেলোনার সবচেয়ে বড় তারকা।

৬০তম মিনিটে দানি আলভেসের ক্রসে চাভি ঠিকভাবে মাথা ছোঁয়াতে না পারায় সমতা ফেরানোর আরেকটি সুযোগ নষ্ট হয় বার্সার। পাঁচ মিনিট পর ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ পেয়েছিল আতলেতিকো। কোকের তীব্র গতির শট ঝাপিয়ে পড়ে ঠেকিয়ে দেন বার্সা গোলরক্ষক পিন্তো। ৭০তম মিনিটে আবার সুযোগ হাতছাড়া করে আতলেতিকো। গোলরক্ষককে একা পেয়েও গোল করতে পারেননি গাবি।

৭৮তম মিনিটে আচমকা একটা সুযোগ পেয়েছিলেন নেইমার। ইনিয়েস্তার বদলে মাঠে নামা পেদ্রোর ক্রসে তার হেড অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। সব ধরনের ইউরোপীয় প্রতিযোগিতা মিলিয়ে এ নিয়ে সর্বশেষ ১৮ ম্যাচের ১৭টিতেই জয় পেল আতলেতিকো। বার্সেলোনা, রিয়াল মাদ্রিদের মতো বড় দলগুলোকে পেছনে ফেলে আপাতত স্প্যানিশ লিগের পয়েন্ট তালিকারও শীর্ষেও আছে এ মৌসুমের চমক জাগানো দলটি।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close