যুক্তরাষ্ট্র জুড়ে

যৌন সম্পর্কের বিষয়ে আবারো মুখ খুলছেন মনিকা

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: আবার সরব হয়েছেন মনিকা লিউনস্কি। যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটনের সঙ্গে যার যৌন সংসর্গের বিষয়টি একসময় বিশ্বজুড়ে আলোচিত ছিল-সেই মনিকা। ক্লিনটনের সঙ্গে সম্পর্কের বিষয়ে ১৯৯৯ সালে কথা বলে ঝড় তুলে আড়ালে চলে যান মনিকা। তবে আড়াল থেকে ফের বের হয়ে আসছেন তিনি।

আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমগুলোর খবরে প্রকাশ, মনিকা এবার ১৯৯০ সালের সালের সেই কেলেঙ্কারির ঘটনা পুরোটাই ফাঁস করতে যাচ্ছেন। তার সঙ্গে ক্লিনটনের সম্পর্কের কাহিনীর পুরোটাই তিনি লিখতে যাচ্ছেন। আর এটি প্রকাশিত হতে যাচ্ছে বিশ্বখ্যাত ম্যাগাজিন ভ্যানিটি ফেয়ারের মে সংখ্যায়। এক দশকের বেশি সময় ধরে বেশ নীরবে সময় কাটিয়েছেন মনিকা। তবে, এবার মুখ খুলেছেন তিনি। বলেছেন, এখনই সময় নিজের অতীত ঘেঁটে দেওয়ার এবং অন্যদের ভবিষ্যৎ চষে বেড়ানোর! হ্যাট পুড়ে দেওয়ার এবং নীল পোশাক মাটিচাপা দেওয়ার।

ভ্যানিটি ফেয়ারে প্রকাশিতব্য কাহিনীর সারমর্ম সংবাদ মাধ্যম এপি’র অনলাইনে প্রকাশিত হয়েছে। সেখানে মনিকা বলেছেন, ক্লিনটনের সঙ্গে তার সম্পর্কের ব্যাপারটি ছিল গভীর অনুতাপের। ক্লিনটন প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালনকালে তার কাছ থেকে ফায়দা লুটেছেন। এ প্রসঙ্গে ২০১০ সালে স্টেট ইউনিভার্সিটি অব নিউজার্সির (রজার্স) ১৮ বছর বয়সী এক শিক্ষার্থীর আত্মহত্যার ঘটনাটিও স্মরণ করেন মনিকা। তিনি বলেন, এই শিক্ষার্থীর অজ্ঞাতে অন্য এক ব্যক্তির সঙ্গে তার চুম্বনের দৃশ্যধারণ করেছিলেন তারই রুমমেট। যা তাকে আত্মহত্যার পথে ঠেলে দেয়। মনিকা বলেন, এই ঘটনা আমার অতীতকে মনে করিয়ে দেয়, যখন আমার মা-ও আমার আত্মহননের আশঙ্কা করতেন। আমি মনে করি, এখনই সত্যটা উপস্থাপন করা দরকার। আমি ঘুরে দাঁড়াতে চাই।

তবে বিতর্ক এড়ানোর জন্যই ১৯৯৯ সালের পর চুপ থাকেন বলে দাবি করেন মনিকা। অবশ্য সংবাদ মাধ্যমগুলো বলছে, ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে সম্ভাব্য প্রার্থী হিলারি ক্লিনটন। নির্বাচনকে সামনে রেখেই স্পটলাইনে আসতে চাইছেন মনিকা। অনেক সম্ভাব্য রিপাবলিকান প্রার্থী ইতোমধ্যে মনিকাকে ইস্যু করে খেলতে চইছেন। তাছাড়া, এ বছরের শুরুতে কেন্টাকি অঙ্গরাজ্যের সিনেটর ৠান্ড পলতো  বলেই ফেলেছেন, কেলেঙ্কারিতে জড়ানো ক্লিনটনকে আবারও হোয়াইট হাউজে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে কিনা এ বিষয়টি ভোটারদের ভেবে দেখা উচিত।

উল্লেখ করা যেতে পারে মনিকা এবারই প্রথম মুখ খোলেননি। এর ‍আগেও, ১৯৯৯ সালে একটি সংবাদ মাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাত্কারে ক্লিনটনের সঙ্গে তার সম্পর্কের বিষয়টি তুলে ধরে বিশ্বব্যাপী ঝড় তুলেছিলেন হোয়াইট হাউজের সাবেক এই ইন্টার্ন। অবশ্য, মনিকার সঙ্গে সম্পর্কের কথা ফাঁস হওয়ার পর পরিস্থিতি সামলাতে স্ত্রী হিলারিকে সঙ্গে নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন ক্লিনটন। তিনি দাবি করেন, মনিকার সঙ্গে তার কোনো শারীরিক সম্পর্ক ছিল না। পরে যদিও ক্লিনটন নিজেই হোয়াইট হাউজের সাবেক ইন্টার্ন মনিকার সঙ্গে সম্পর্কের কথা স্বীকার করেন।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close